নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • জলের গান
    • নুর নবী দুলাল
    • আকাশ সিদ্দিকী

    নতুন যাত্রী

    • সুমন মুরমু
    • জোসেফ হ্যারিসন
    • সাতাল
    • যাযাবর বুর্জোয়া
    • মিঠুন সিকদার শুভম
    • এম এম এইচ ভূঁইয়া
    • খাঁচা বন্দি পাখি
    • প্রসেনজিৎ কোনার
    • পৃথিবীর নাগরিক
    • এস এম এইচ রহমান

    লাল সেলাম যারা আমার মত


    নিজের Design এ একটা T-Shirt বানিয়েছি খায়েশ করে।
    বুকের ডানপাশে একটা বৃত্তকে চর্তুদিকে সবুজের মাঝে লাল রং খুব যত্ন করে বসিয়েছি।
    সমাজের কিছু কুলাঙ্গার সবুজের মাঝে লাল দেখলেই আঁড় চোখে তাকায়। তাদের কাছে এটা যেন এক মহা বিরক্তিকর জিনিস, মনে হয় ছিড়ে বিড়ে খাবলে নিবে।
    মুসলমান হয়েও এলাকায় সংখ্যালঘুর মত দিন যাপন করছি।
    বসত-বাড়ির চর্তুদিকে যামাত-শবিরের কারখানা, মাঝখানে একা আমি সারাক্ষণ উদ্বিগ্নতায় ভুগি কখন ছুরি চাপাতির কোপ ঘাড়ে এসেপড়বে।
    সমাজের কাছে কমিউনিস্ট হিসাবে পরিচিত সেই ছোট বেলা থেকেই।
    কখন নাস্তিক ট্যাগ লাগিয়ে বুকে ঘাড়ে কোপ বসাবে সেই কুলাঙ্গারেরা তার হিসাবটা অগ্রিম বলতে পারছিনা।

    আওগ্রা বেডার দুষ নাই দেখরা বেডার দুষ !!!


    এই হাসেনা তর জ্বালায় কি বাচুমনা।এইতা কিতা শুরু করচছ।যেই বেডা দুষ করছে হেই বেডারে না দইরা যেই বেডা দেখছে হেই বেডারে ধরছ কেন হু।আরতো কয়ডা দিন ক্ষমতা আছে মাইনসেরে আর জালাইচনা।বালায় বালায় বিদায় ও।নাইলে টেলাডা হরে লইতা হাত্তেনা।শাহবাগ আর কয়দিন হজনন করব।বালায় বালায় ভারত যাগা।

    হুনলাম তর ৭কোটি ৮০ লাখ টেহা লাগে ১ বছরে। হুইন্না তো আমার মাথা নষ্ট,ইতা কিতা কয়।দিনে ২,১৩,৬৯৮ টেহা। মাইয়া মাইয়া গো।অত টেহা কিতা করচ?
    আমি ২ডা টেহা হাইনা কাইতাম।

    হে হে হে.........।।

    এইচ এস সি


    নাহিদ ভাই, মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী।
    সিলেটে এমসি কলেজে আগুন দেখে আপনি কাঁদলেন। চেয়েছিলাম, আপনি উচিৎ ব্যাবস্থা নিবেন। নিলেন না।
    আপনার মন্ত্রনালয়ের অধীনে থাকা শিক্ষকদের উপর পিপার স্প্রে করা হলো। চেয়েছিলাম, আপনার মুখ থেকে সরি শব্দটা শুনব। শুনতে পাইনি।
    ইসলাম ধর্ম বইয়ে এত বড় বড় ভুল নিয়ে পাবলিশ হলো, আপনার কোন স্পিচ পেলাম না।
    এস এস সি পরীক্ষা তো কোন মতে চিপাচুপা দিয়ে বের হয়ে গেছে, এখন চলছে এইচ এস সি পরীক্ষা। বিরোধী দল হরতাল দিচ্ছে আর আপনি পরীক্ষা পেছাচ্ছেন।
    আপনার কোন বক্তব্য পাচ্ছি না। মাঝে সাঝে এদিক ওদিক দেখি আপনি তাদের অনুরোধ করছেন পরীক্ষার দিন হরতাল না দিতে।

    গ্যাং ফাকের জন্য প্রস্তুত থাকুন!! ব্লো জব নিয়েই এরা শান্তিতে থাকবেনা।!!!!!


    সরকারের পা এত বাড়সে যে, পায়ে পা বাজায়ে ঝগড়া করবে। আর জাতির বিবেকের কাছে জিগাবে 'কেন এই হরতাল, কেন এই সহিংসতা, বাসে কেন আগুন দিলো?

    অশিক্ষিতের রাজনীতি


    আব্রাহাম লিংকন প্রদত্ত গণতন্ত্রের সংজ্ঞা তো সবারি জানা....
    তবে বাংলাদেশে তা চিরায়ত আক্ষেপের বিষয়.....
    আক্ষেপ হবেই বা না কেন ? দেশের প্রচলিত শিক্ষা ব্যবস্থার হাত ধরে গড়ে উঠা রাজ্নৈতিক নেতারা যে এই উক্তি সম্পর্কে অজ্ঞ...
    এই দেশে জ্ঞানার্জন করে নেতা হওয়া হাসির খোরাক বৈকি!
    তাই তো মামুর ঠ্যালায় অনেকেই আছেন শিক্ষা সমাপনী কিংবা প্রবেশিকা উত্তীর্ণ না হয়ে রাজ্গদিতে আসীন...
    প্রসঙ্গের হেতূ
    "গনতান্ত্রিক অধিকার- হরতাল" আর তার সুফল ভোগি উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা তথা আমরা....
    এই সব ছেলে খেলাই হোক আর বালা খেলাই হোক
    দাবী আদায়ে আজ সবায় এক্টা পথই জানে

    'অন্ত'র পাশে হাসিনা নয়, বরং হাসিনার পাশেই 'অন্ত'


    চট্টগ্রামে হরতাল চলাকালে স্প্লিন্টারের আঘাতে স্কুল ছাত্রী অন্ত বড়ুয়ার চোখ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছিলো। (সময় মতো শেখ হাসিনা পাশে না দাঁড়ালে হয়তো অন্ধই হয়ে যেত মেয়েটা !!!) গতকাল 'অন্ত' তার মা সহ প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করে চোখের বর্তমান হাল হকিকত জানিয়ে এসেছে। সে সময় প্রধানমন্ত্রীর সাথে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। তবে সবচেয়ে জরুরী ছিল মিডিয়ার উপস্থিতি !!! আজ সব পত্রিকায় ফলাও করে প্রচারিত হয়েছে ''অন্ত আর আবেগআপ্লুত হাসিনা''র যুগলবন্দী ছবি !!!

    মেঘের কথা মনে পড়ছে !!!

    জনসমর্থন ও নৈতিকতার সম্পর্ক বিশ্লেষণ।


    জনসমর্থন, গনতন্ত্র, এই কথাগুলোর তাৎপর্য সৃষ্টি হ​য়েছে ১৯৪৭ আর ১৯৭১ এর ঘটনার ফলে। স্বাভাবিকভাবে সকলেই মনে করে যে বস্তুর গনসমর্থন বেশি তা সঠিক হতে বাধ্য।মুক্তিযুদ্ধের প্রতি বিশাল গনসমর্থন ছিল এবং বস্তুত তা সঠিক বটেই।কিন্তু সর্বদাই কি তাই?

    হেফাজতে ইসলাম ও ধর্মীয় সন্ত্রাসবাদ


    অবিভক্ত ভারতে হিন্দু মুসলমান পাশাপাশি বসবাস করত।একে অপরের ধর্ম বিষয়ে অনেকভাবেই অবহিত ছিল।তেমনি পরস্পরে ঔদার্যও ছিল।দ্বিজাতিক ভিত্তিতে পাক ভারত বিভক্ত হওয়ায় অনেক হিন্দু পূর্ব বাংলা ছেড়ে পশ্চিম বঙ্গে চলে যায় এবং উপমহাদেশের দেশগুলো ধর্মীয় গোঁড়ামীর দিকে ঝুকেঁ পড়ে। আমাদের স্বাধীন বাংলাদেশে অনেক জায়গাতেই আগের মতো হিন্দু মুসলিম একসাথে বাস করে না।গোঁড়ামি আর সীমাবদ্ধ শিক্ষার কারনে আমাদের এ দেশ ধীরে ধীরে কট্টর মৌলবাদীদের দেশে পরিনত হচ্ছে।সাধারনত মৌলবাদি এই অপশক্তিরা ধর্মকেই তাদের হাতিয়ার হিশেবে বেছে নেয় সবসময়।আমাদের বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষই ধর্মভীরু।ধর্মের ঢাল ব্যবহার করেই তাই তারা আসতে চায় রাষ্ট্র

    ফটিকছড়িতে জামাত হেফাজতের সম্মিলিত হত্যাযজ্ঞ


    যারা যারা ফটিকছড়ির নিউজের
    ব্যাপারে বিন্তারিত জানতে চাইছেন
    বা যতটুকু খবর কানে এসেছে সেটুকু
    অবিশ্বাস্য
    মনে হচ্ছে তারা এইটা পড়েন:
    ফটিকছড়ির ভুজপুরে মাদ্রাসা ছাত্র,
    গ্রামবাসী এবং হরতাল
    বিরোধী মিছিলকারীদের
    মধ্যে সংঘটিত
    রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই ৫ জন
    নিহত হয়েছেন। পুলিশ,
    বিজিবি এবং দমকল বাহিনীর সদস্যসহ
    আহত হয়েছেন দুই শতাধিক। দশ জনের
    মতো নিখোঁজ রয়েছেন। মৃতের
    সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা
    করা হয়েছে। পুড়িয়ে ছাই
    করে দেয়া হয়েছে মোটর সাইকেল,
    প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস ও জিপসহ
    দুই শতাধিক গাড়ি।
    পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ভুজপুরে ১
    ধারা জারি করা হয়েছে। মাদ্রাসায়

    ব্লগারদের মুক্তির দাবিতে মুখে কালো কাপড় বেধে বিক্ষোভ ও কার্টুন প্রদর্শনী


    আইন-কানুনের সামান্যতম কোনো তোয়াক্কা না করে জামিনের আবেদন না-মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে আটককৃত চার ব্লগারকে। ব্যারিস্ট্যার জোতির্ময় বড়ুয়া ও অন্যান্য আইনজীবীদের শুনানির মুখে অসহায় মনে হচ্ছিল বিচারককে কিন্তু তাতে কোনোকিছুর হেরফের হয়নি। কারণ সিদ্ধান্ত আগেই নেয়া হয়ে আছে। কারা অভ্যন্তরে নিরাপত্তহীনতার শংকা থাকলেও ব্লগারদের জন্য ডিভিশনের আবেদন মঞ্জুর করা হয়নি। অসুস্থ্য আসিফ মহীউদ্দিনের জন্য হাসপাতালের আবেদনও যথারীতি না-মঞ্জুর। ঘাড়ে গলায় অসংখ্য কোপের আঘাত নিয়ে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরেও বেচারা জীবনটা নিয়ে ভালই দড়ি টানাটানির মধ্যে পড়েছে।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর