নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 7 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • বুলবুল
    • জাকারিয়া হুসাইন
    • সৌরভ দাস
    • মোমিনুর রহমান মিন্টু
    • কাঙালী ফকির চাষী
    • দুর্জয় দাশ গুপ্ত
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী

    নতুন যাত্রী

    • আমি ফ্রিল্যান্স...
    • সোহেল বাপ্পি
    • হাসিন মাহতাব
    • কৃষ্ণ মহাম্মদ
    • মু.আরিফুল ইসলাম
    • রাজাবাবু
    • রক্স রাব্বি
    • আলমগীর আলম
    • সৌহার্দ্য দেওয়ান
    • নিলয় নীল অভি

    "জাতির পুত্র-কন্যা ও নাতী-নাতনীদের উদ্দেশ্যে" ব্লগ !!! অতঃপর বিরতিরপর ফিরছি প্রশ্ন উত্তর নিয়ে!!!


    জাতির পুত্র-কন্যা ও নাতী-নাতনীদের উদ্দেশ্যে-এই ব্লগটা আমি যখন আমার ফেইসবুক পেইজে শেয়ার করি তখন এর উপরে আরো কয়েকটি লাইন যোগ করেছিলাম। লিখেছিলাম, "এটা জিয়াউর রহমানকে দেবতুল্য প্রমাণ করার জন্য লেখা নয়। এটা জাতির পুত্র-কন্যা, নাতি-নাতনীদের মধ্যে যারা তাকে নিয়ে কমপ্লেকশনে ভুগছেন তাদের সেই কমপ্লেকশন দূর করবার নিছক চেষ্টা মাত্র।" যা এই ব্লগে ছিলনা। বোধ করি থাকা উচিৎ ছিল। যাইহোক ব্লগে যখন একটা লেখা পোস্ট করেছি আর সেখানে অন্যান্য ব্লগাররা যেহেতু আমাকে কিছু প্রশ্ন করেছেন সেহেতু সেগুলোর উত্তর দেয়াটা স্বাভাব

    ধর্ম ধর্ষনের জন্যে দায়ী নয়।


    মুসলিম মেয়েকে হিন্দুদের নির্যাতন

    মুসলিম মেয়েকে ৫৩ দিন আটকে রেখে হিন্দু বানিয়ে পতিতালয়ে বিক্রির হুমকি বাংলাদেশের কোন জেলায় ঘটেছে,মেয়েটির নাম,বয়স কত জানেন?জানি,এই স্ট্যাটাস যারা পড়ছেন তাদের ৯৮ ভাগই জানেননা।কিন্তু,হিন্দু মেয়েকে কয়েকজন মুসলিম নামধারী ধর্ষন করেছে সেটা ৯০ ভাগই জানেন।

    আমার বর্ষারানি (পর্ব-২)


    "ব্যস্ত শহর নিঝুম যখন রাত্রির আগমনে
    আলোকোজ্জল সব পথে পথে নামে মায়াবী আঁধার
    জোস্না রঙের আলোয় ভেজা প্রতিটি শোবার ঘরে
    নর-নারীকে জাগিয়ে রাখে স্বীকৃত সব আদিম যৌনাচার
    নিকোটিন বিষে নীলকন্ঠ কেউ কাতরায় ফুটপাতে
    খুঁজে খুঁজে ফেরে , ছুঁতে চায় কারো নির্ভরতার হাত
    তখন ঘরের ভাঙ্গা দরজায় শিকল টেনে দিয়ে
    সোডিয়াম আলোয় শহরের পথে শুরু হয় তার অভিসার"

    মাংসল কাব্য


    সাদা কাগজে কাব্য করা
    কবির বিলাস । বলেই না
    কবির কাগজে কাব্যের ছোঁয়া ।

    বন্দুক ও পোড়ামাটির যৌবন


    আমি একলা গিয়েছি বনে মাঝরাতের অবসরে
    জোছনার গালিচায় ঘাসে ঘাসে রবিঠাকুরের গান গাইতে গাইতে,
    কখন চাঁদের চোখে চোখ রেখে নেশায় বুদ হয়ে গেছি
    আমাকে ফাঁকি দিয়ে পাহাড়ের ঢাল বেয়ে পালাচ্চে চাঁদ,
    ছড়াটা পার হয়ে ঐ পাহাড়চূড়ায় আমি চাঁদটা ধরবই ধরব।
    এমন সময় কোমল শব্দে পাথরে পা ফেলে
    নির্বসনা তুমি মৃত্তিকা, পৃথিবীর প্রাণ, নাড়িয়ে দিলে ফুলগুলো
    ঝরিয়ে দিলে ঝর্ণা যত
    গলিয়ে দিলে বরফের স্তুপ।
    আমি অপলক দেখি অপার অমরাবতী
    কে গো তুমি? শুধুই নারী? শুধুই ফুল? ঝরঝরে জল?
    আমার তুমি কে? প্রিয়তমা? ষোড়ষী ভগিনী? বিগত যৌবনে মাতা?

    না, এমন জোছনরাতের অমৃত আমি ছুইনি, এমন ঘটেনি সুঘটনা।

    সরকারি প্রশাসনের বেশিরভাগ কর্মচারি


    সরকারি কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রশাসনের বেশিরভাগ কর্মচারিরা নিজেদেরকে রাজা বাহাদুর বলে মনে করেন। আর আমাদেরকে তাদের প্রজা বলে ধরে নেন। এরা সবর্দাই সেবাপ্রার্থীদের খুঁত ধরায় ব্যস্ত থাকেন যাতে তাকে কোনরকমে আটকিয়ে পয়সা কড়ি হাতড়ানো যায়। এদের আসলে থাপড়াইতে মন চায়।

    অমানুষ গুলা যেনো এগারো বছরের কোন মেয়েকে না , নিজের সন্তানকে ধর্ষন করলো !!


    অমানুষ গুলা যেনো এগারো বছরের কোন মেয়েকে না , নিজের সন্তানকে ধর্ষন করলো ! তাও আবার জোর করে ধর্মান্তরিত করে ! নিরীহ পরিবারের এগারো বছরের একটা মেয়েকে পাশবিক নির্যাতন করে ধর্ষন করা কত বড় সোয়াব ! ঈশ্বর , আল্লাহ , ভগবান যাই বলেন , উনার আবার এইসব অমানুষ পশু গুলোর সাথে ভাল সম্পর্ক আছে । আর তা না হলে ওই তিন নামধারী একজন ঐ কুত্তাগুলোর সৃষ্ট নাম , যাকে পশুগুলো নিজেদের স্বার্থ উদ্ধরের কাজে ব্যবহার করে । আর ৬ এপ্রিল থেকে ৩ জুন কোন শিক্ষিত পশু কি ছিলোনা ঐ এলাকায় ? আর আজ সংবাদপত্রে আসার পর আমরা জেগে উঠলাম । এতদিন ঘটনাটা চেপে থাকলো কিভাবে ? তাইলে আমরা সবাই মানুষ নাকি ওদের দলেই ?

    জাবর


    চিন্তার তিন তার ছিঁড়ে যায়;
    প্রেমিকের আজ মনে নেই চুমুর স্বাদ!
    সেই শেষ কবে খেয়েছিলো-
    টপাটপ কয়েকবার, এক বর্ষার সন্ধ্যায়!

    জন্ডিস- পাওয়া ল্যাম্প পোস্ট এক -
    গভীর রাতে তার ছায়াকে একাকী করে;

    আজো কেন এগারো বছরের শিশুকে ধর্ষিত হতে হবে ? !!


    আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি। বাবা-মা, শিক্ষকদের কাছে শুনে, বই পড়ে জেনেছি কিভাবে জন্মেছে রক্তস্নাত বাংলাদেশ নামের দেশটি। যুদ্ধের প্রেক্ষাপট, অন্যায় ও শোষণের গল্পগুলো শিশুমনে খুব দাগ কেটে ছিল। বুঝতে পেরেছিলাম স্বাধীনতা কেন প্রয়োজন ছিল, যুদ্ধ কেন অপরিহার্য ছিল। যুদ্ধের সময় দেশের মানুষ আশায় বুক বেঁধেছিল, স্বপ্ন দেখেছিল এক স্বাধীন বাংলাদেশের, যেখানে শোষণ থাকবে না, অন্যায় অবিচার থাকবে না। ৪২ বছর আগে দেশ স্বাধীন তো হয়েছে কিন্তু সত্যি কি আমরা সেই অন্যায়, অবিচার ও শোষণ থেকে মুক্তি পেয়েছি? পাইনি। তাহলে? আজো কেন এগারো বছরের শিশুকে ধর্ষিত হতে হবে ? আমরা কি এভাবেই বেঁচে থাকতে অভ্যস্ত ?

    এই আস্তিকের থেকে নাস্তিক ভাল।


    মেয়েটির দোষ কি দেখতে একটু সুন্দর ছিল। মেয়েটির দোষ কি বেপর্দা থাকায় সে অন্য ধার্মিক পুরুষেকেও আকৃষ্ট করত?
    সেই ধার্মিক দের অবস্থা খারাপ করে দিত, ধার্মিক কাজে মন বসাতে পারত না ধার্মিক ব্যক্তিটি মেয়েটি রুপের কথা মনে পড়ত বার বার্। হয়তো তাই গায়ে গতরে বেড়ে ওঠা ১১বছরে মেয়ে টিকে না না মেয়ে নয় শিশুটিকে ধর্ষন করে তার সমস্ত রূপ যৌবন শেষ করে দিয়েছে যাতে অন্যদের ধর্ম পালনে সমস্যা না হয়।

    নাকি মেয়ে টির দোষ ছিল সে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের , সে বিধর্মী। তাই হয়তো তাই তো ধর্মান্তরিত করা হল মেয়েটিকে।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর