নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 12 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • সৌমেন গুহ
    • আগুনখোর আঁতেল
    • আমি অথবা অন্য কেউ
    • সাইয়িদ রফিকুল হক
    • আরমান অর্ক
    • সুবিনয় মুস্তফী
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী
    • সুমিত রায়
    • মিশু মিলন
    • সুব্রত শুভ

    নতুন যাত্রী

    • অন্নপূর্ণা দেবী
    • অপরাজিত
    • বিকাশ দেবনাথ
    • কলা বিজ্ঞানী
    • সুবর্ণ জলের মাছ
    • সাবুল সাই
    • বিশ্বজিৎ বিশ্বাস
    • মাহফুজুর রহমান সুমন
    • নাইমুর রহমান
    • রাফি_আদনান_আকাশ

    কপিরাইট বিষয়ক কতিপয় কথকতা


    জীবনকে যাপন করা একটা আর্ট। সৃষ্টিশীল মানুষ দু’ধরনের সম্পদ নিয়ে শিল্পিত জীবন যাপন করে; প্রথমতঃ বস্তুগত সম্পদ- জায়গা-জমি, গাড়ি-বাড়ি, টাকা-পয়সা, ব্যবসায়-বাণিজ্য, শিল্প-কারখানা ইত্যাদি ও নানা রকম প্রাত্যহিক ব্যবহার্য দ্রব্যাদি এবং দ্বিতীয়তঃ মেধাসম্পদ বা Intellectual Property.এর আওতায় আছে- সাহিত্যকর্ম, নাট্যকর্ম, শিল্পকর্ম, সঙ্গীতকর্ম, অডিও-ভিডিওকর্ম, চলচ্চিত্রকর্ম, ফটোগ্রাফি, ভাস্কর্যকর্ম, সম্প্রচারকর্ম,সফটওয়্যার,রেকর্ডকর্ম, ই-মেইল, ওয়েব-সাইট, বেতার ও টেলিভিশন সমপ্রচারকর্ম ইত্যাদি। রবীন্দ্রনাথ মনে করতেন- বস্তুগত সম্পদ পড়ে ‘নির্মাণ’ পর্বে, অন্যদিকে সৃষ্টিশীল মানুষের মেধার নতুন নতুন আবিষ্কার হলো-

    বিবাহ বহির্ভুত শারীরিক সম্পর্ক কেন জরুরী, এবং দু'একটি মন্তব্যের উত্তর


    কয়েক দিন আগে ব্লগ আর ফেবুতে বিবাহবহির্ভুত শারীরিক সম্পর্ক কেন জরুরী তা নিয়ে একটা পোস্ট দিয়েছিলাম। এর ফলে অনেক বিতর্ক হয়েছে, হয়েছে আলোচনা, সমালোচনা। একবারে বেকুব হয়ে গেছিলাম যখন দেখলাম এ নিয়ে আরো দুইটা ব্লগ পোস্ট করা হয়েছে, তার মানে কারো কারো মনে আমার কথাগুলো কিছুটা হলেও দাগ কাটতে পেরেছে। ভাল যে লাগেনি তা বলবো না, বেশ ভাল লেগেছে এই ভেবে যে আমার ধারনাগুলো অন্যকেউ ভাবিয়েছে। কেউ কেউ ব্যক্তিগত আক্রমণ করতে ছাড়েননি। সবাইকে স্বাগতম।

    গল্পঃ অপেক্ষক


    'সুফিয়া, অই সুফিয়া ।'

    হাঁক শুনে বারান্দায় দৌড়ে গেলেন সুফিয়া বেগম । বারান্দা নয় বরং ছাদ বলা যায় একে । চারদিক খোলা এই ছাদটাকে প্রথম দৃষ্টিতে বারান্দা ভেবে ভুল হয় । দোতলা বাড়ি । না দেড় তলা । নিচে থাকেন বাড়িওয়ালা । ওপরে সুফিয়া বেগম তার ছেলে, ছেলের বউ আর নাতনিকে নিয়ে থাকেন । দোতলার অর্ধেক তৈরি হয়েছে । সেখানে থাকেন সুফিয়া বেগম । বাকি অর্ধেক সেভাবেই পড়ে আছে । সেটাকে নির্দ্বিধায় ছাদ কিংবা বারান্দা বলে চালিয়ে দেয়া যায় । তাদের ছাদ কিংবা বারান্দাটাকে উঠোন বলেও চালিয়ে দেয়া যায় । উঠোনটার সাথে গ্রাম্য উঠোনের বেশ মিল আছে । বেশ বড়। তবে অমিলটাও কম না ।

    মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক শিক্ষা এবং এর প্রচারনা।


    আমাদের জাতি অবিস্বরনীয় ইতিহাস , চিরস্মরনীয় ইতিহাস হল মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তা বলার অপেক্ষা রাখে না । তা সকলেই জানি ।

    কিন্তু দু:খের বিষয় এই যে আমাদের মধ্যে অনেকের কাছেই এর গুরুত্ব তো নেই ই বরং এটি নিয়ে নানা উপহাস করেন। আবার মুক্তিযুদ্ধের জন্য এখন জীবন বিসর্জন দিতে প্রস্তুত এর দৃষ্টান্ত ও কম নয়।

    আমারা অনেকেই এই মহান মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানি না। তাই এর প্রতি উদাসীন।

    এর জন্য দ্বায়ী পরোক্ষ ভাবে আমরাই।

    আমরা আমাদের সন্তানদের ,ছোট ভাইবোন দের কি অবসর সময়ে মুক্তিযুদ্ধের গল্প বলি । না অনেকেই বলি না। তাহলে তারা কি করে জানবেন এ ইতিহাস।

    ফিক্সিং এবং আশরাফুল: আমরা তোমার পাশে আছি , আশরাফুল


    ম্যাচ ফিক্সিং এর পুরোটা দায় কখনই একজনের হতে পারে না । মোহাম্মাদ আশরাফুল , বাংলাদেশের ক্রিকেটের প্রথম সুপারস্টার । আগে আমরা বিশ্বাস করতাম আশরাফুল ভালো খেললেই দল জিতবে , তখন সাকিব , তামিমের দাপট ছিল না । তার কথা শুনে মনে হয় সে খুবই সরল একটা ছেলে । আজকে প্রথম আলোতে উৎপল শুভ্র'র লেখাটি পড়ে আমার কয়েকটা প্রশ্ন মাথায় আসল ।
    যে অধিনায়ক থাকাকালে ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে ম্যাচ হারার কারণ বলতে গিয়ে কথা গুছাতে গিয়ে অনেকবার আমতা আমতা করত , সে কিভাবে ৮-৯ বছর আগের ম্যাচের কাহিনী এত সূক্ষ্মভাবে বর্ণনা করল ?

    বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস ও ধুমপায়ীদের নোবেল প্রাপ্তির সম্ভাবনা


    আজ ‘বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস’ (৩১শে মে)। এ দিনটি পালনের মধ্যে আমাদের, অর্থা এদেশবাসীর আহ্লাদিত হবার খুব একটা কিছু নেই। বিশেষত আমাদের জন্য, আমরা যারা বিড়িওয়ালাদের ঘরের ছেলে, সিঁড়িওয়ালাদের ঘরের সন্তান নই। নেশা মুক্তি, আর তামাক মুক্তি কিন্তু এক কথা নয়। তামাকমুক্ত দিবস অর্থ কিন্তু নেশা মুক্ত দিবস এক নয়। তামাকের চাইতে অনেক অনেক বেশী ক্ষতিকর হিরোইন মুক্ত দিবস কবে? ফেন্সিডিল মুক্ত দিবস কবে? আজ তো ‘নেশামুক্ত দিবস’ নয়। আর নেশা মুক্ত দিবসই বা চাইব কেন?

    আশরাফুলের উপর অন্যায় হয়রানী বন্ধ করা হোক!!


    যারা আশরাফুলকে নিয়ে হতাশ তাদের হতাশার কারন এই আশরাফুলদের দিয়ে মাঝে মাঝে আনন্দের উদযাপন, কোন একটা দেশের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম জিতে গেলে মিছিল নিয়ে বের হয়ে যাওয়া পাগলা সমর্থকদের আনন্দ আর আকাশের মত আবেগের মূল্য এরা বোঝেনা। সেটা তাদের দোষ না। দেশকে ভালবেসে খেলতে নামেনা ওরা। মূল্যবোধের শিক্ষার অভাব ওদের কখনই ভাবায়নি।একজন দুইজনের দুর্নীতির কারনে একটা খেলা কখনই দুষ্ট হতে পারেনা। সেটা ফুটবল হোক কিংবা ক্রিকেট। দুর্নীতি বিষয়টি ক্যান্সারের মত সব যায়গায় আছে। কোন একটি খারাপ কাজের প্রতি সঠিক দৃষ্টিভঙ্গির শিক্ষা, মূল্যবোধের চর্চার অভাবে এই ক্যান্সার বাড়তেই থাকে। হ্যান্সি ক্রনিয়ে, আজাহার উদ্দিনদের

    সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের ১৫ তম কেন্দ্রিয় কাউন্সিলের মাধ্যমে ষোড়শ কমিটি ঘোষনা


    ছাত্রসমাজের অগ্রবর্তী চিন্তার পথিকৃৎ সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের পঞ্চদশ কাউন্সিলের মাধ্যমে জনার্দন দত্ত নান্টুকে সভাপতি এবং ইমরান হাবিব রুমনকে সাধারণ সম্পাদক করে ষোড়শ কমিটি গঠিত হয়েছে।

    সভাপতিঃ জনার্দন দত্ত নান্টু
    সহ-সভাপতিঃ রাহাত আহমেদ
    সাধারণ সম্পাদকঃ ইমরান হাবিব রুমন
    সাংগঠনিক সম্পাদকঃ আল কাদেরী জয়
    দপ্তর সম্পাদকঃ নাসির উদ্দিন প্রিন্স
    অর্থ সম্পাদকঃ রুখসানা আফরোজ আশা
    প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকঃ মৈত্রী বর্মণ
    স্কুল বিষয়ক সম্পাদকঃ কিবরিয়া হোসেন
    সদস্যঃ
    সাদেক হোসেন,
    মাসুদ রানা,
    শ্যামল বর্মণ,
    রাশিব রহমান,
    জুনায়েদ ইসলাম,
    কিশোর আহমেদ,
    মনীষা চক্রবর্তী,
    সোহরাব হোসেন।

    একলা বিকেল


    অদ্ভুত সময়ের জোড়াতালিতে
    কিছু বিকেল আসে ,
    ছন্নছাড়া স্মৃতি ভাসে ,
    পুড়িয়ে চলা একলা সময়
    যুক্তি-বাস্তবতায় লড়তে লড়তে ।
    অদ্ভুত সেই বিকেলগুলো
    মলিন আকাশ , স্থবির ধূলো ,
    বৃষ্টিতে পায় না সে এতটুকু প্রাণ ,

    IPL নিয়ে ঝামেলা হচ্ছে? নাউজুবিল্লাহ!!


    চুদির ভাই এক শ্রেণীর ভাই। সে হিসেবে ইন্ডিয়াও আমাদের ভাই।

    বোঝা গেল না, তাই না? দাঁড়ান দাদা, দুই একটা উদাহরন দেই। দেখেন খোলসা হয় কি না!

    কেন্দ্র সরকার নিলাম ডাকল, প্রাদেশিক সরকার জানে না। আমরা কিন্তু রাগ করিনি। অভিমান করেছি শুধু। দাদা কি এবারো বুঝলেন না। আরে দাদা নারায়ণগঞ্জ বন্দরের কথা এত তাড়াতাড়ি ভুলে গেলেন নাকি?

    ফালানির লাশ কতদিন যেন ঝুলেছিল কাঁটাতারে? মনে নেই দাদা, আমরা ওসব ভুলে গেছি। ট্রাক ভর্তি পদ্মার ইলিশ উপহার পাঠাই দাদা আপনাদের। দুয়েকটা ফালানি ফেলে দিলে কি ই বা এমন আসে যায়!?

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর