নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • ফারুক হায়দার চৌধুরী
    • নরসুন্দর মানুষ
    • শিকারী
    • ফারজানা সুমনা
    • নুর নবী দুলাল
    • আবদুর রহমান শ্রাবণ
    • মওদুদ তন্ময়
    • অজল দেওয়ান

    নতুন যাত্রী

    • প্রলয় দস্তিদার
    • ফারিয়া রিশতা
    • চ্যাং
    • রাসেল আহমেদ
    • আবদুর রহমান শ্রাবণ
    • হিপোক্রেটস কিলার
    • পরিতোষ
    • শ্যামা
    • শিকারী
    • মারিও সুইটেন মুরমু

    একজন নিষ্পাপ পূর্ণিমার কান্নার দায়


    গত ২০০১ সালের অক্টোবরে পূর্ণিমার মা একদল পাঁচ ওয়াক্ত নামাজী মানুষকে বলেছিলেন “বাবারা, আমার মেয়েটা ছোট,
    তোমরা একজন একজন করে এসো; মরে যাবে”

    তারা পূর্ণিমার মায়ের আকুতি শোনেনি বরং পূর্ণিমার চিৎকার উপভোগ করেছে।এবং পত্রিকায় খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে পড়ে আমরাও চরমভাবে উপভোগ করেছি।তারপর অনেকদিন কেটে গেছে,মাঝখানে ফরহাদ মজহারের ভাষায় বোমা ফাটিয়ে বিপ্লব হয়েছে,হুমায়ূন আজাদরা রাস্তায় কোপ খেয়ে মরেছে ইত্যাদি ইত্যাদি।
    ইতিমধ্যে আমরা আবার পালাবদল এনেছি এবং একদল বুড়ো হয়ে যাওয়া পুরনো পাপীকে অযথা বিচারের চেষ্টা করেছি এবং কতটা সফল হয়েছি বুঝতে পারছি না।যাইহোক অযথা সময় নষ্ট করেছি বলেই এটা ধরে নেয়া যায়।

    ৭১-এর নারী নির্যাতন সম্পর্কিত মওদুদিও ফতোয়া


    ১৯৭১, যুদ্ধের দামামা বাজছে চারিদিকে।
    একদিকে আকুত ভয় বাংলার দামাল সন্তানরা ঝাপিয়ে পরছে দেশ মাতা কে শকুনের হাত থেকে রক্ষা করতে। অন্যদিকে কিছু কুলাঙ্গার দেশকে শ্মশান করতে সাহায্য করছে পাকিদের।
    গনিমতের মাল নাম দিয়ে দেশের মা বোনদের তুলে দিচ্ছে হায়নাদের হাতে।

    গনিমত কি জিনিষ?
    গনিমত হচ্ছে (ইসলাম ধর্ম মতে) যুদ্ধে লব্ধ মাল। অর্থাৎ মুসলমান গন যদি কোন যুদ্ধে জয় লাভ করে তবে উক্ত যুদ্ধে পরাজিত দলের হতে প্রাপ্ত মালামাল কে গনিমত হিসাবে গ্রহন করবে। (আমার জানা মতে এইটাই গনিমতের সংজ্ঞা। নিশ্চয়তা দিতে পারলাম না)

    ফরিদা আকতার—তথাকথিত নারী আন্দোলনের কর্মী নাকি হেফাজতকে হেফাজতকারি?


    দুটি সকাল খুব যন্ত্রণাদায়ক ছিল। এবং আর অসংখ্য সকাল আমার জন্য অপেক্ষা করছে যন্ত্রণা নিয়ে। ব্যক্তিগত জীবনে হঠাৎ এমন ঝড় আসল যে এর সমাপ্তি কখন হবে জানি না,বা আদৌ হবে কিনা অনিশ্চিত।
    যা হোক, যত যন্ত্রণায় থাকি না কেন, যতই নিজের হাহাকারের জন্য অন্য হাহাকার শুনতে অনাগ্রহী হই না কেন, তবু কানে কিছু চলে আসে, চোখে কিছু পড়ে যায়, যা এড়িয়ে যেতে পারি না, বিবেক কিছুটা নড়ে উঠে। লিখব না লিখব না করেও হাত চলে যায় কীবোর্ডে।

    গ্রামে গেলে যে কথাগুলো আমাকে শুনতেই হয়...!!!


    গ্রামে গেলে যে কথাগুলো আমাকে শুনতেই হয়-

    -তুমার আর স্বাইস্থ্য অইলো না!! বেশি কইরি খাবার পাও না?? :বিস্ময়:

    -তুই আর মোটা হবি না!! হবি কিবেই...খাবার তো সময়ই পাস না...ঘুমাইতেই দিন যায়!! :চিন্তায়আছি:

    -বাবা, কিব্যা আছো?? কি দিয়ে আইলা?? :খুশি:

    -রাব্বি ডা আর মুডা অইলো না!!! :কনফিউজড:

    -তোর কি অসুখ আছে?? মুডা অস না ক্যা?? :কনফিউজড:

    -কিরে ছ্যারা কবে আইছোস?? Biggrin

    -(ফোন দিয়া) দোস্ত বাড়িত আইছো বলে??!!! দেহা তো করলানা!!! :মনখারাপ:

    পড়ে দেখুন (অবুঝদের জন্য নয়)


    শাহবাগে আন্দোলন শুরু হওয়ার পর থেকে প্রায় সব ব্লগে একটা বিষয় কমন হয়ে গেছে, যারাই ব্লগিং করছে, তারা প্রায় সকলেই ধর্ম আর ধর্মে বিশ্বাসী মানুষ গুলোর বিপক্ষে লেখা শুরু করেছে। আবার অন্যদিকে ধর্মপ্রাণ (!) মানুষগুলো ব্লগার বলতেই এক দল নাস্তিককে কল্পনা করছে, এতে আবার দেখা যাচ্ছে যারা ধর্মীয় বিষয় নিয়ে নেতিবাচক কিছু লিখত না- তারা আবার এখন নেতিবাচক লেখা শুরু করেছে, কারন, ধর্মের প্রতি সহানুভূতি দেখালে যে আবার প্রতিষ্ঠিত ব্লগারেরা তাদের সম্মান নিয়ে টানাটানি শুরু করবেন!

    ব্লগারদের মুক্তির দাবিতে পক্ষপাতিত্বঃ


    মৌলবাদীদের মামা বাড়ির আবদার রক্ষা করতে আওয়ামী সরকার চার জন ব্লগারকে অত্যন্ত বাজে ভাবে গ্রেফতার এবং আটক করে রেখেছে । সন্দেহমূলকভাবে গ্রেফতার এর পর দফায় দফায় রিমান্ডে নিয়েছে এবং গণমাধ্যমের সামনে চোর-ছ্যাচড়ের মতো উপস্থাপন করেছে; যা অত্যন্ত ঘৃন্যজনক । এ ব্যাপারে প্রশাসনের ভূমিকা দেখে বাঙলাদেশকে আফগানিস্তান থেকে আলাদা চোখে দেখা বা পার্থক্য করা খুব কষ্টসাধ্য ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে ।

    ব্লগ ! সেটা আবার কি ? খায় না মাথায় দেয় ?


    ব্লগ জিনিসটা এদেশে এখন একটা লুলায়িত এবং সেই সাথে কষ্টেরও বিষয় । ব্লগ দিয়ে কি হয়? এর উত্তরে চলে আসে ব্লগ দিয়ে ইন্টারনেট চালানো হয় । আর ব্লগার কারা? যারা নাস্তিক তারাই ব্লগার । অত্যন্ত দুঃখের ব্যপার হলেও সত্যি যে আমাদের দেশের একটা বিশাল অংশের মানুষ ব্লগ আর ব্লগার সম্পর্কে এই ধারণাই পোষণ করছে । তবে এর মধ্যে একটা সুসংবাদও আছে । আগে তো ব্লগ কি সেটাও জানতো না । কিন্তু এখন ভুল জানলেও কিছু একটা জানে । ব্লগ বলে যে পৃথিবীতে কিছু একটা আছে সেটা জানাটা কি কম বড় কথা ?

    :) (:


    এটা এখন সবার কাছেই পরিষ্কার । আসল যায়গাটা হল বিশ্বাসের । আমি কেন তাকে বিশ্বাস করব ? কারন যার বাপ শহিদ মুক্তিযোদ্ধা তারে নিয়া লোকের যতই চুলকানি থাক সে কখনোই জ্ঞানত রাজাকারের অনুষ্ঠানে যাবেনা । the program was innocent enough-banking of school children i went to encourage the children.
    আদিকাল থেকাই তো দেখতাছি সে বাচ্চাদের কিছু পাইলেই ঊর্ধ্বশ্বাসে ছুটে । তাই আমরা --

    ইরন
    ফোবিয়ানের যাত্রী
    নিঃসঙ্গ গ্রহচারীরা

    বলছি এইসবে কান না দিয়া নিজের ''কপোট্রনিক সুখ-দুঃখ'' নিয়া ব্যস্ত থাকো যাইয়া ।
    (আমার নিঃসঙ্গ গ্রহচারী যে চুরি করছে , সে একটি ছাগু)

    লেনিন


    বলা হয়ে থাকে শ্রমিক, কৃষকসহ মেহনতী মানুষগুলো যখন কু‍‌‌জো হয়ে যাচ্ছি‍ল পুজিবাদীদের তীব্র শ্রম রোষে; মেহনতীদের ঘাড় ভেঙে পু‌জিপতি সুবিধাবাদী জাররা মুঠি ভরে নিত; ঠিক সে সময় রাশিয়ার মহানদী ভলগার তীরে সিমবিস্র্ক (বর্তমানে উলিয়ানভস্ক) শহরে জন্ম নেন প্রথিত যশা-মেহনতীদের নেতা, মার্কস ও এঙ্গেলসের বৈপ্লবিক মতবাদের প্রতিভান উত্তরসাধক, সোভিয়েত ইউনিয়নের কমিউনিষ্ট পার্টির সংগঠক, সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবে উজ্জেবিত সোভিয়েত রাষ্টের প্রতিষ্ঠাতা, মহান মনীষী ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিন।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর