নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • নিহত নক্ষত্র
    • সৈয়দ মাহী আহমদ
    • সাইয়িদ রফিকুল হক
    • কাঙালী ফকির চাষী
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী
    • দ্বিতীয়নাম

    নতুন যাত্রী

    • ফারজানা কাজী
    • আমি ফ্রিল্যান্স...
    • সোহেল বাপ্পি
    • হাসিন মাহতাব
    • কৃষ্ণ মহাম্মদ
    • মু.আরিফুল ইসলাম
    • রাজাবাবু
    • রক্স রাব্বি
    • আলমগীর আলম
    • সৌহার্দ্য দেওয়ান

    প্রসংগ বিহীন কিছু লিখালিখি।


    আমার কবিতার খাতা হারিয়ে গেছে কোথাও।
    অনেকদিন কিছু লেখা হয় না। সাদা পাতাগুলোর
    দিকে তাকালে মায়া হয় নিজেরই। তাই গল্প
    খুঁজতে বসি প্রতিদিন। রাস্তার পাতায়, শহরের
    খাতায়। গল্প জমা হয়ে আছে অনেকগুলো।
    সকালের গল্প, বিকেলের গল্প,অনেকগুলো গল্প
    রাতেরও। সব গল্পের
    মাঝে দাঁড়িয়ে আমি ভাবি কোন

    একটি প্রিয় কবিতা


    ছেলেটা খুব ভুল করেছে শক্ত পাথর ভেঙে
    মানুষ ছিলো নরম, কেটে, ছড়িয়ে দিলে পারতো
    অন্ধ ছেলে, বন্ধ ছেলে, জীবন আছে জানলায়
    পাথর কেটে পথথ বানানো, তাই হয়েছে ব্যর্থ
    মাথায় ক্যারা, ওদের ফেরা, যতোই থাক রপ্ত
    নিজের গলা দুহাতে টিপে বরণ করা মৃত্যু
    ছেলেটা খুব ভুল করেছে শক্ত পাথর ভেঙে
    মানুষ ছিলো নরম, কেটে , ছড়িয়ে দিলেপারতো
    পথের হদিস পথই জানে, মনের কথা মত
    মানুষ বড় সস্তা, কেটে, ছড়িয়ে দিলেপারতো।।

    রেজা ভাইয়ের কষ্টের গল্প


    লেখাটা বেশ কষ্ট নিয়ে লিখছি।গত পোস্টে আমাকে কপিপেস্ট ব্লগার বলা হয়েছে।আমার অনেক কষ্ট লেগেছে।হতে পারে আমি আপনাদের মত লিখতে পারিনা।তাই বলে এতটা আঘাত না করলেও পারতেন।এমনকি ইস্টিশন মাস্টারের দৃষ্টিও আর্কষন করা হয়েছে।আমার চোখে জল চলে এসেছিল।আমার প্রথম পোস্টে ট্যাগ মানে বুঝতে না পারায়,প্রায় সব বিভাগ দিয়েছিলাম।তাই নিয়েও আমাকে নিয়ে উপহাস করা হয়েছে।মানুষ এত খারাপ হয় কীভাবে ?এতটুকু মনুষত্ব ও কি নেই মানুষের মধ্যে ?যাই হোক মনে অনেক কষ্ট নিয়ে লিখলাম

    এসএ টিভি : ঈদের দিনে চলছে কর্মী ছাঁটাই


    চলতি বছরের শুরুতে (১৯ জানুয়ারি) অনএয়ারে আসে ক্যুরিয়ার ব্যবসায়ী সালাউদ্দিন আহম্মেদের এইচডি টিভি চ্যানেল এসএ টিভি। এসএ পরিবহনের সিস্টার কনসার্ন তাই অন্য কিছু থাকুক আর নাই থাকুক, চ্যানেলটিতে টাকা ঢালা হয় প্রচুর। আসে বিদিশি বার্তাপ্রধাণ। আর চ্যানেলটির নিউজ রিপোর্টার হিসেবে যোগ দেয় চ্যানেল আইয়ের মুর্সালিন বাবলা, ইন্ডিপেন্ডেন্টের সালাউদ্দিন মাহমুদ মীম, রুবিনা মোস্তফা আর ইটিভির মঞ্জুরুল আলম পান্না, জেমসন মাহমুদের মতোন সাংবাদিকেরা। এক মাসের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সুযোগ দেয়া হয় আরো ৩০ নতুন সাংবাদিককে।

    সমস্যা এবং সমাধানের কাছাকাছি থেকে বাস্তব চিত্র তুলে ধরেছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


    সমস্যা এবং সমাধানের কাছাকাছি থেকে বাস্তব চিত্র তুলে ধরেছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঈদের অবসরে লেখাটি চোখে পড়লো। দেরিতে হলেও পড়লাম। ইস্টিশনের পাঠক লিখক ব্লগারদের পড়া উচিত মনে করো লিখাটা পোষ্ট করলাম।
    ............................................................

    'ভালোর পসরা'

    ভালো চাই, ভালো
    ভালো নেবেন গো ভালো?
    আরো ভালো…

    জটিল ভাবনা।


    কেন এত সমস্যা? তা কি একটি বার ভেবে দেখেছেন। না ভেবে দেখেননি। কেনই বা আপনি ভেবে দেখতে যাবেন। যার যা কাজ সে তার কাজ করুক না ভাই। হুদাই ক্যান ত্যানা পেচাইতে যামু। বাদ দেন এই বুদ্ধির ঢেকিমার্কা কথাবার্তা। সমস্যায় জর্জরিত বিশ্ব কিন্তু সমাধান নাই। অন্তহীন সমস্যার পাহার ঠেলে ঠেলে রোজ আমরা একটু একটু করে এগুচ্ছি। সব সমস্যার মুলে আল্লামা তেতুল বাবার তেতুল সমস্যাই কিন্তু প্রধান। আসেন একটু খোলাসা করে ব্যাপারটার ভেতরে প্রবেশ করি।

    সময়ের স্রোতে


    Writer is considering to rewrite this section. Content will be updated soon. Thanks for your patience.

    "অ্যাই রায়ান ওঠ, নামাজ তো শেষ হয়ে গেল। ঈদের নামাজ পড়বি না ?"-- প্রতি বছর ঈদের দিন সকালে আমার ঘুম ভাঙ্গে আম্মার এই কথাটা শুনে। সময়ের তালে তালে অনেক কিছুই বদলে গেছে কিন্তু আমার কাছে এখনো ঈদ মানে এক নির্মল আনন্দের দিন। আম্মার প্রথম ডাকেই ঘুম ভেঙ্গে যায়, কিন্তু তারপরও বিছানা ছেড়ে উঠি না, এপাশ ওপাশ গড়াগড়ি খেতে থাকি। আমার আলসেমি দেখে আম্মা রাগে গজ গজ করতে থাকে,
    “কিরে উঠবি না, কত ঘুম পায় তোর?

    ঈদের খাবার দেশে দেশে


    ‘ঈদ’ আর সেমাই নাহলে কি চলে, কল্পনাই করা যায় না। ইদানীং অনেক খাবার যোগ হয়েছে কিন্তু সেমায়ের কদর বেড়েছে বৈ কমেনি। কিন্তু সব দেশেই কি সেমাই চলে? আসুন দেখে আসি কোন দেশের ঈদ এর প্রধান মেনু কি?

    ভারতের সাথে আমাদের খাবারের বেশ মিল আছে। ওদের প্রধান মেনু ‘লাচ্ছা’ বা ‘লাচ্ছি’ যাই বলি না কেন মূল কথা ওই সেমাই।

    পাকিস্থানিদের কাছে ঈদের প্রধান ঐতিহ্যবাহী খাবার হচ্ছে ‘শের কোর্মা’ (sheer korma)। এই শের কোর্মা প্রস্তুত করা হয় দুধ, চিনি, পনির ও শুকনো খেজুর দিয়ে। পাকিস্থান ছাড়াও ভারতও এই খাবার চলে।

    " ভালবাসার বিরহী দহন "


    এখন থমথমে নিঝুম রাত
    দু'একটি নিশাচর পাখির শব্দ ছাড়া
    আর কোন শব্দ নেই,
    ঘুমচোর স্মৃতির তাড়নায়
    জেগে আছি একা আমি গ্রীলের শিক ধরে;
    জানালার পাশে তোমার স্মৃতির
    মিনারে দাড়িয়ে|
    আর ভাবছি তো - মা - র কথা....
    অতীত স্মৃতিগুলি চারপাশ ঘিরে বিব্রত

    পৃষ্ঠাসমূহ

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর