নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 9 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • নুরুন নেসা
    • সুজন আরাফাত
    • সংবাদ পর্যবেক্ষক
    • নাস্তিকের আত্মকথা
    • আবীর সমুদ্র
    • মূর্খ চাষা
    • নরসুন্দর মানুষ
    • দ্বিতীয়নাম
    • পৃথু স্যন্যাল

    নতুন যাত্রী

    • সোহম কর
    • অজিতেশ মণ্ডল
    • আতিকুর রহমান স্বপ্ন
    • অ্যালেক্স
    • মিশু মিলন
    • আগন্তুক মিত্র
    • গাজী নিষাদ
    • বেকার
    • আসিফ মহিউদ্দীন
    • সাধনা নস্কর

    দুশ্চিন্তায় আছি


    ফোন অপারেটর কোম্পানী ‍‍‍‌‌রবি-র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ROBI CIRCLE এ এমন কিছু SMS পাচ্ছি যেগুলো সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর জন্য যথেষ্ট। কাল রাতেও একটা আইডি থেকে SMS পেয়েছি যেটাতে লেখা ছিল "গোপন সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে আগামী ২৬ শে মার্চ রাত ১২টায় আল্লামা সাইদীর ফাঁসি দেয়া হবে। যদি তাই হয় তাহলে আগুব জ্বলবে।" রায় হয়েছে ২৮ ফেব্রুয়ারি। এর ১ মাসের মধ্যে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা যাবে এবং আপিলের ২ মাসের মধ্যে এর নিষ্পত্তি করতে হবে। সাইদীর আইনজীবী বলেছেন তারা ১ মাসের মধ্যেই আপিল করবেন। ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৬ মার্চ কতটুকু সময় যে এর মধ্যেই ফাঁসি কার্যকর করতে হবে?

    ছাগু তোরা মানুষ হও


    সে বলল, ওখানে যায় ডলাডলি করতে।
    সে বলে, ওখানে সবাই যুদ্ধাপরাধীদের ফাসির দাবিতে যায় নি। ১% মাত্র গেছে ওই চেতনা নিয়ে। বাকিরা লাইন মারতে গেছে।
    সে বলে, শাহবাগে লাখ মানুষ হয় নি।
    সে বলে, গাঞ্জা চলে, ডেটিং চলে।
    সে আরো বলে, এই ডলাডলি ক্যামেরাই আসছে না, কারণ লাখ মানুষের ভীড়ে ক্যামেরা এসব ধরতে পারছে না।

    সন্ত্রাসনামা


    জামায়াতে ইসলামী নামক দলটা গঠিত হয় ১৯৪১ সালে । গত ৭২ বছরে তাদের রাজনৈতিক ইতিহাস শুধুই ভন্ডামীর ইতিহাস । দলের প্রতিষ্ঠাতা সৈয়দ আবুল আলা মওদূদীর (জন্ম ভারতের আওরঙ্গবাদে, বর্তমান হায়দারাবাদ, মহারাষ্ট্র) ব্যাক্তিগত দর্শনই এই দলটার রাজনৈতিক দর্শন । এই লেখায় মওদূদীর তিনটা ফতোয়া ব্যাবহার করছি । দুইটা লেখার শুরুতে দিচ্ছি, অন্যটা একেবারে শেষে । মাঝখানে ইতিহাস ।

    "গণতন্ত্র বিষাক্ত দুধের মাখনের মত" মওদূদী, সিয়াসি কসমকস, তৃতীয় খন্ড, পৃঃ ১৭৭

    আবোল তাবোল


    ২০১০। এস এস সি পরীক্ষা শেষ, হাতে অফুরন্ত অবসর। আগে কখনো এত বড় ছুটি পাইনি, তাই পুরো দিশাহারা অবস্থা। সবেমাত্র কৈশোর পার করার উপক্রম করছি, কি হয়ে গেনুরে ভাব নিয়ে চলি। কি করে সময় কাটাব তার একটা রুটিন করে ফেললাম-বই পড়া, আড্ডা দেওয়া, তুমুল খেলাধুলা আর সব বন্ধুদের বাড়িতে বেড়ানো। কিন্তু দেখা গেল, আমরা কেউই রুটিন ঠিক রাখতে পারছি না। রুটিনের প্রথম কাজটি বাদে বাকি কাজগুলো প্রায় হচ্ছিলই না, তাই স্বাভাবিকভাবেই প্রথম কাজ, বই নিয়ে ডুবে রইলাম। একসময় দেখা গেল বাড়ীর সব বই-ই পড়ে ফেলেছি!

    আলো - ছায়া


    ঘুমভাঙ্গা সূর্যটা যখন
    ঝলমলে আলো ঝড়ায়
    শিশির ভেজা ঘাসে .....

    বিনিদ্র অন্য সুর্য তখন
    তোমার প্রহর গুনে গুনে
    ক্লান্ত ফ্যাকাসে !!
    - See more at: http://www.istishon.com/node/551#sthash.TFKWhlhG.dpuf

    আমি এবং আমরা !


    আজকেও গনজাগরন মন্ঞ্চের এক কর্মীকে হত্যা করা হয় !
    আরে আমি ঢাকা শাহাবাগের গনজাগরন মন্ঞ্চের কারো কথা বলছি না , ভয় পাবার কারন নেই ।সে তো ব্লগের বা ফেবুর জনপ্রিয় তারকা নয় !যে থাকে নিয়ে লিখা হবে ,প্রতিবাদে প্রতিবাদে ব্লগে বা ফেবুতে স্ট্যাটাস এর বন্যা হবে !
    সে বরিশাল জেলার গনজাগরন মন্ঞ্চের কর্মী । নাম 'জাহিদ হাসান জিতু' । তাকে হত্যা করে ড্রেনের পাশে ফেলে যায় । আচ্ছা আমরা একটু চিন্তা করি ,তাকে কে হত্যা করতে পারে ? জিতু স্বাধীনতা বিরোধী শত্রুর বিপক্ষে ছিল ,সে গনজাগরন মন্ঞ্চের কর্মী ছিল ,যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসি চেয়ছিল ।একটু চিন্তা করি !একটু বিবেকটা জাগায় ?
    আর কত লাশ পড়লে ?
    সরকার ঘুম থেকে জাগবে !

    দুইশো মাইল দূরে


    জানিনা তো কাছের মানুষ শেষ দেখেছি কবে,
    ফিরে যাওয়ার ক্লান্তি আমার সকল অনুভবে।
    অনেক দূরে গানের সুরে আছি মিছেমিছি,
    দুইশো মাইল দূরে বসেও সবার কাছাকাছি।

    আগের আমি আমায় খুঁজি নতুন আমার মাঝে,
    আবেগ যত আটকে থাকে ব্যস্ত আমার কাজে।
    দূরত্বকে সঙ্গী করে জীবন পথের দিক হারালে,
    দুইশো মাইল জড়িয়ে থাকে দুই জীবনের অন্তরালে।

    এইতো আমি! আর কিছুক্ষণ এলেই আমায় পাবে,
    অনেক আগের সেই আমাকেই হয়তো নতুন ভাবে।
    দূরত্বকে মিথ্যে ভেবে জড়িয়ে ভালোবাসা,
    দুইশো মাইলের রাস্তাও যায় এক পলকে আসা।

    কুচিন্তা ৩


    ঢাকার অধিকাংশ মহল্লায় সম্ভবত 'দিগন্ত' বেন খাইছে । বর্তমানে এটিএন-ও সেই পথে ।

    নাম প্রকাশ না করার শর্তে জনৈক পাতিছাগু জানান - গণতান্ত্রিক খবর দিগন্ত একাই দিবে, জিহাদের পথে একাই পুটুমারা খেয়ে যাবে আর বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর ...কির পোলায়ে আমীরদের অক্লান্ত শ্রমে তিলে তিলে গড়া ইসলামি বেনকের টেকায় এটিএন বেগানা ইভা রাহমানের গজলের প্রোগ্রাম করবে , তা হবেনা ।

    টেকাটুকা হালাল করতে হবে । জিহাদের মেহনত তাদেরও করতে হবে ।আমরা কুন অজুহাত শুনব না। ফেসিবাদ রুখতে শরিয়ৎ মুতাবেক ফলস নিউজ প্রচার করতে হবে ।

    হিজিবিজি-২ (শিবিরনামা)


    আমার এক ছোট ভাইয়ের একটা গল্প বলি তার ভাষায়-

    তালেবানী ইসলাম প্রনয়নে আলোর মশাল নিয়ে এসেছে জামায়াত ইসলাম


    জামায়াত শিবির এদেশের একমাত্র ইসলামের রক্ষক।তারা রগ কাটে,জবাই করে মানুষ হত্যা করে,কুপিয়ে হত্যা করে,গলা কাটে,তবে বুঝতে হবে এসবই ইসলামকে বাঁচাতে।এদেশের মহাসুশীল সমাজ এবং ধর্মপরায়ন সমাজ তাদেরকে সম্মান এবং শ্রদ্ধা করেন।কারন তারা এদেশে শান্তি কায়েম করতে চায়,ইসলাম কায়েম করতে চায়,তাই তারা চুপ থাকেন।তারা মসজিদে আগুন দেয়,মসজিদের ইমামকে গালাগালি করে তবে হ্যা বুঝতে হবে এসবই ইসলাম কে বাঁচাতে।তাই মহা সুশীল আর ধর্মপরায়ন রা তাদের শ্রদ্ধা করেন সম্মান করেন।তারা ইসলাম কে বাঁচিয়ে রাখছে এবং শান্তি কায়েমে তারা বদ্ধপরিকর।তারা মন্দির ভাঙ্গছে,হিন্দু বাড়িতে আগুন দিচ্ছে, মালাউন হত্যা করছে,ভালো করছে,মালাউনদের আবার দেশ

    পৃষ্ঠাসমূহ

    Facebook comments

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর