নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • দীপ্ত সুন্দ অসুর
    • কান্ডারী হুশিয়ার
    • দীব্বেন্দু দীপ
    • আলমগীর কবির
    • গোলাম সারওয়ার

    নতুন যাত্রী

    • সুক্ন্ত মিত্র
    • কাজী আহসান
    • তা ন ভী র .
    • কেএম শাওন
    • নুসরাত প্রিয়া
    • তথাগত
    • জুনায়েদ সিদ্দিক...
    • হান্টার দীপ
    • সাধু বাবা
    • বেকার_মানুষ

    চাকসু নির্বাচন


    চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (চাকসু)। চা পান, নাস্তা ও দুপুরে খিচুড়ী খাওয়ার অন্তরালে ঢেকে আছে ছাত্র-ছাত্রীদের অধিকার আদায়ের কেন্দ্রস্থলটি। ১৯৬৬ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের শিক্ষার মান, নাগরিক জীবনে সত্যিকারের নেতৃত্ব প্রদান ও অধিকার সম্পর্কে মতামত প্রকাশের জন্য গণতাণ্ত্রিক পদ্ধতিতে গঠিত হয়েছিল চাকসু। সকলের সমান অধিকার সুনিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রত্যক্ষ ভোটাধিকারের মাধ্যমে একটি কার্যকরী কমিটি নির্বাচিত করে ছাত্রছাত্রীরা। এই কার্যকরী কমিটি শিক্ষার্থীদের মৌলিক অধিকার আদায়ে সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে সিনেট বৈঠকে মিলিত হয়ে দাবিগুলো

    শ্বাশত প্রেমের কবিতা ও গানের রচয়িতা কাজী নজরুলের ১১৩ তম জন্ম বার্ষিকির শুভেচ্ছা


    শ্বাশত প্রেমের কবিতা ও গানের রচয়িতা কাজী নজরুলের ১১৩ তম জন্ম বার্ষিকির শুভেচ্ছা সবাইকে। :ফুল: :ফুল: :ফুল: :ফুল: কাউকে প্রেমের গান শোনাতে হলে নজরুলের গানের বিকল্প হিসেবে কিছুই চোখে পরে না আমার। বিশেষ করে এই একটি গান। যতবারই শুনি, মন ভরে যায়। এই গান কারো শোনা বাকী থাকলে তার সম্পর্কে মন্তব্য করার মতন কিছুই আমি খুজে পাচ্ছিনা আপাতত।

    নবনীতার কাছে শেষ চিঠি


    প্রিয় নবনীতা,
    “ভালো আছো” কিনা জিজ্ঞেস করলাম না। এসব ফর্মাল কোয়েশ্চেন করার আসলে কোন মানে হয় না। উত্তর টা সব সময় জানা থাকে। তবুও “ভালো আছ” ধরে নিয়ে শুরু করলাম। ব্লকড হওয়া সত্ত্বেও গত পরশুদিনের “তব্দা খাওয়া” স্ট্যাটাস টা দেখেছি। নতুন টিউশনি পেয়েছো শুনলাম, ছাত্রটাও চরম পাজি। প্রথম দিনেই টিচারকে বলে কিনা “টিচার আপনি তো আমার চেয়ে ছোট Blum 3 “। নতুন বয়ফ্রেন্ডের সাথে তোলা ছবিটা খুব ভালো হয়েছে। তবে কপালে একটা লাল টিপ থাকলে তোমাকে আরো গর্জিয়াস দেখাতো। ভাবছো, এসব অনধিকার চর্চা কেন করছি? আসলেই তো??? আসলে তোমাকে কখনো অন্য কারো মত ভাবি নি। নিজ সত্ত্বার ভিন্ন একটি রূপ হিসেবেই দেখেছি। সম্ভবত ভালোবাসলে যা হয় আর কি!!

    আমরা তীর্থের কাক


    আপনারা সমাজে প্রগতি দেখতে চান, আপনাদের সুশীলতা তখন বাদল দিনের প্রথম কদম ফুলের মত বিকশিত হয় মধ্যরাতের টক - মিষ্টি অনুষ্ঠানে। আপনারা মধ্যযুগীয় বর্বরতার অবসান চান, ভালো, কিন্তু উপায় হিসেবে আপনারা ৩০০ বছরের পুরনো লাল কিতাবের কথাই বলেন। আপনারা সমাজে সাম্যবাদ প্রতিষ্ঠার কথা বলেন, ভালো, কিন্তু আপনাদের ঘরে সাম্যবাদ কতটুকু আছে তা গবেষণার বিষয়।

    আপনারা শ্রমিক অধিকার নিয়ে কথা বলেন, ভালো, আজ পর্যন্ত কয়জন শ্রমিককে সাহায্য করেছেন? দুর্ঘটনা ঘটলে সবার আগে লাল হয়ে, ব্যানারে, পতাকায়, ফেস্টুনে দৌড় দেন। ভালো। তবে কয়জন ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকের পাশে দাঁড়িয়েছেন আজ পর্যন্ত?

    সাম্যবাদী কবি বিদ্রোহী কবি - হে কবি আজ তোমার ১১৪ তম জন্মদিন !


    সাম্যবাদী কবি বিদ্রোহী কবি - হে কবি আজ তোমার ১১৪ তম জন্মদিন !
    তোমার জন্মদিনে নতুন প্রজন্ম হয়ে উঠুক নতুন আলোয় উদ্ভাসিত;হয়ে উঠোক বিদ্রোহী !
    মানবতার তরে মানুষের তরে জেগে উঠোক তারুন্যের মনুষত্ব !!

    লাখো বিনম্র শ্রদধা জানাই কবি তোমায় -।

    বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের সংক্ষিপ্ত জীবনী-

    রয়ে যায় স্মৃতি, জ্বালায় অনুভূতি... (গল্প)


    "নিশাদ উঠো ...প্লীজ একটু উঠো...নিশাদ ..."
    টিএসসিতে বন্ধুদের সাথে বসে গীটার হাতে গান আর আড্ডা দিচ্ছিল নিশাদ।রাত তখন ৩টা ।
    এতো রাতে মেয়েলি ভয়েস শুনে অবাক হল সে। আওয়াজটা ক্রমশ তীব্র আর কর্কশ হচ্ছে...

    "নিশাদ আমি এক থেকে পাঁচ পর্যন্ত গুনবো।এর মধ্যে না উঠলে বেডশুদ্ধ তোমাকে নিচে ফেলে দেবো।।উফ উঠো না জান ..."
    নিশাদ ঝাকুনিতে কেঁপে উঠলো। গলার স্বর চিনতে আর দেরী হল না। তার স্ত্রী লীন ডাকছে তাকে।
    বুঝতে বাকি রইল না এতক্ষন স্বপ্ন দেখছিল সে।
    -উফফ কালকে অফিস আছে , এখন ডাকাডাকি করছ কেন?
    -দ্যাখো! আমার সাথে রাগারাগি করবা না।
    -আচ্ছা ঠিক আছে বাবা,কিন্তু এতো রাতে তুমি ঘুমাওনি কেন?

    অন্তর্দহন


    টিউশনী থেকে ফিরছে মতিউর। আজ পড়ানো হয়নি কিছুই। সারাক্ষণ ফেসবুকে মতিউরের ফেইক আইডিটি নিয়ে কথা হয়েছে। খালেদ যে কথা শুনিয়েছে তা বেশ ভয়ংকর। একটা মহল ফেইক আইডিটিকে পুজি করে মতিউরকে নিয়ে শহরে দাঙ্গা লাগাতে চায়। তারা এই অভিযোগ করবে যে, মতিউর জামাত নেতার ছেলে হয়ে হিন্দু আইডি দিয়ে দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগাতে চায়, অথচ মতিউর জানে যে সে নাস্তিক। নাস্তিকতা চর্চার জন্য বছর তিনেক আগে এই ফেইক আইডি খুলেছিল। এদেশে মুসলমান হয়ে মুক্তচিন্তা করাটা কেউ মেনে নেয় না, রীতিমত ভয়ংকর কাজ।

    ফুটানির কবিত্ব শিকেয় থাকুক।


    ছ্যাকা খাইলে এবং প্রেমে পড়লে বাঙ্গালী কবি হইয়া যায়। সেই কবির কবিতার ধরণ দেখলে মনে হয় শেলী, কিটস কোনহানকার কেডা? এই ডি ওয়াই কে সামচু ভাইয়ের কাছে দুনিয়ার তাবত কবি ন্যাদা বাচ্চা। নামের বাহার দেখলে মনে হইবো, যাই একটু চটকানা দিয়া আসি। হালার একখানা কবিতাও কোনদিন কোথাও ছাপা হয় না। দাত কেলিয়ে পরে থাকে বিছানার চিপায়। কবি সাব কিন্তু ঠিকই ভাব লইবো চল্লিশ সেরের সমান। পাড়া-মহল্লায় নাম ডাক পইড়া যাইবো। তিনি লম্বা লম্বা চুল, একচল্লিশ দিন না ধোয়া পাঞ্জাবি পইরা চেগায়া খারায়ে থাকবেন চায়ের দোকানে আর গার্লস স্কুলের কোনায়। আপনে যদি কোন দিন কইছেন, ভাই আপনার কবিতা খানা তো জোস!

    অনলাইনে আস্তিক-নাস্তিক বিভাজন এবং এর পটভূমি


    অনলাইনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির মধ্যে যে বিভাজন স্পষ্ট হয়ে উঠেছে এর মূলে রয়েছে আস্তিকতা নাস্তিকতা ইস্যু। এর শুরুটা কোথায়?একটু পিছনে তাকান যাক। রাজীব ভাই খুন হয়ে যাওয়ার পর তার জানাজায় যখন তাকে দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের প্রথম শহীদ হিসেবে ঘোষণা করা হয় গণজাগরণ মঞ্চ থেকে,আন্দোলন নতুন মাত্রা পায়। পর যখন ইনকিলাব ও আমারদেশ চক্রান্ত করে রাজীবের নামে ভূয়া ব্লগ প্রকাশ করে নাস্তিক হিসেবে জনগণের সামনে তুলে ধরেন,তখন গণজাগরণ মঞ্চ প্রতিক্রিয়াশীলদের প্রতিহত না করে উল্টা নিজেরা প্রতিক্রিয়াশীলদের পাতা ফাঁদে পা দিয়ে নিজেদের আস্তিক এবং গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনকে আস্তিকদের আন্দোলন প্রমানের প্রাণান্ত চেষ্টা করে। ফল

    নৌকাডুবি (২০১১) {একটি বাস্তবিক সিনামার কাল্পনিক বিশ্লেষণ}


    একখানা বিশেষ ফান পোস্ট…
    দয়া করিয়া মুখ সরাইয়া লইবেন না।

    আল্লাহ রে !!! ইহা আমি কি দেখিলাম!!! এর বউ তাহার কাছে। এর বউয়ের আশায় ঘুম আসিতেছে না। তার প্রেমিকা চিপায় পড়িয়া এর কাছে সাময়িক ফস্টিনষ্টী রত। অতঃপর আবার তারে পাইয়া উনি “অতঃপর আমি ইহাকে পাইলাম টাইপ…” … মধ্যিখান হইতে মাথায় বাঁশের বাড়ি পরল এর। আর তাহার কথা কি বলিব।

    অতঃপর তাহারা সুখে শান্তিতে বসবাস করিতে লগিল।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর