নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • সাইয়িদ রফিকুল হক
    • সাহাবউদ্দিন মাহমুদ
    • কিন্তু
    • পৃথু স্যন্যাল
    • তানভীর আহমেদ মিরাজ
    • নুর নবী দুলাল
    • সাজ্জাদুল হক
    • বেহুলার ভেলা

    নতুন যাত্রী

    • কথা নীল
    • নীল পত্র
    • দুর্জয় দাশ গুপ্ত
    • ফিরোজ মাহমুদ
    • মানিরুজ্জামান
    • সুবর্না ব্যানার্জী
    • রুম্মান তার্শফিক
    • মুফতি বিশ্বাস মন্ডল
    • হাসান নাজমুল
    • নরমপন্থী

    আজব এক জাতি, আজব তার চলন!


    নির্বাচন যেহেতু ক্রিকেট খেলা না তাই ১০টার সময় (এই পোস্ট লেখার সময়কাল) বলে দেয়া যাচ্ছে চার সিটি তে কারা জয়লাভ করবে। আমি জানি এই নির্বাচনে কোন কারচুপি হয় নাই আর যেহেতু আঠেরো দলের সমর্থিত লোকজন জিততে যাচ্ছে তাই কারচুপির কোন অভিযোগ ও উঠবেনা। ফলাফল নিয়ে মন্তব্য হবে “নির্ভেজাল, জনগনের রায়, সরকার কে দাত ভাঙ্গা জবাব” এর মত আরও কিছু দাত ভাঙ্গা শব্দ। কিন্তু গভিরে ভাবতে গেলে তো ব্যাপার টা উল্টা হয়ে ধরা দেয়। আমি সিলেটের ছেলে, বরিশালের তৃনমূল কিছু নেতার সঙ্গে দন্ধুত্তের খাতিরে আর নিজের চোখে দেখে আমার উপলব্ধি টা অন্নরকম। আমি বাকি দুই সিটি নিয়ে ওতটা ভাবি নাই বা জানতে আগ্রহি হই নাই বলে শুধু সিলেট আর বরিশা

    কবি


    প্রায়শই লোকমুখে আমরা একটা কথা শুনি- “বাংলাদেশে কাকের চেয়ে কবির সংখ্যা বেশি।”
    কবিদের সম্পর্কে এরূপ সংকীর্ণ মনভাব সম্পন্ন একটি মন্তব্যের স্বপক্ষে বিজ্ঞজনদের যুক্তি হল- “বাঙালীরা সবাই কবি। জীবনে অন্তত দুইটা কবিতা তারা লিখবেই। একটা, প্রথম প্রেমে পড়ার পর। আরেকটা, প্রেমে ছ্যাঁকা খাওয়ার পর।”
    উল্লেখ্য, উক্ত যুক্তিতে বাঙালী বলতে বিশেষতঃ বাঙালী পুরুষদেরকেই বুঝানো হয়। সুতরাং একটা দেশের সব পুরুষই যদি কবি হয়ে যায় তাহলে (মহিলা কবিদের কথা বাদ দিলেও) সে দেশে কাকের চেয়ে কবির সংখ্যা বেশি হওয়াটা অসম্ভব নয়। অন্ততঃ কথার কথা বলার জন্য তো নয়ই।

    নির্বাচন এবং মালাউন


    মনে করেন এক এলাকায় হিন্দু প্রার্থী দাড়াইসে, আর একজন মুসলিম প্রার্থী। যদি হিন্দু প্রার্থী জিতে যায় তাহলে মুসলিম প্রার্থীর মন্তব্য-" মালাউনের বাচ্চারা বেঈমানি করসে, তাই হারলাম"
    আর যদি মুসলিম প্রার্থী জিতে যায়, তাইলে সকল মালাউনের দিকে সন্দেহজনক দৃষ্টিতে তাকায়-"এইটা কি আমারে ভোট দিসে না দেয়নাই? "

    পড়ে ঠেকায় মালাউনরা ভোট দিলেও খারাপ, না দিলে তো বেশি খারাপ।

    আওয়ামীলীগ বিএনপি নিয়ে সেম কেস হয়...বিএনপি হারলে একই কথা বলে-"মালাউনেরা বেঈমানি করলো", আওয়ামীলীগ হারলেও বলে মালাউনেরা বেঈমানি করলো...আমি কই-"

    মাদ্রাসা শিক্ষা সমাচার। পর্ব-২


    অষ্টম শতাব্দী থেকেই ভারত, আফগান, ইরান, আরব, মধ্য এশিয় অঞ্চল থেকে মুসলিম বনিক, ধর্ম প্রচারক, আক্রমণকারী সেনাপতি-শাসকদের মাধ্যমে ধর্মশিক্ষার সূত্রপাত ঘটে। এই শিক্ষা ছিলো মূলতঃ ইসলাম ধর্মমূলক আচার-অনুষ্ঠান ও ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত করার মূলনীতি মধ্যে সীমিত । ধীরে ধীরে মক্তব ও মাদ্রাসা গড়ে উঠতে থাকে। এগুলি ছিলো মূলতঃ মসজিদ কিংবা মসজদসংলগ্ন। বাস্তবে স্থায়ী মুসলিম রাজত্বের সূচনা হয় ১১৭৪ সালে মুহাম্মদ ঘোরীর রাজত্বকাল থেকে এবং সর্বশেষ মুঘলদের মাধ্যমে এই রাজত্ব টিকে ছিলো ১৭৫৭ সাল পর্যন্ত। এ সময়কালে পার্শী ও আরবি ভাসায় ধর্ম শিক্ষা দেওয়া হতো। ধর্ম শিক্ষার সাথে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মাত্রায় গণিত, ব্যাকারন,

    মামানি!


    আমার ৫ টা মামা। বড় হওয়ার পর থেকেই দুইটা মামিকে দেখে আসছি । নানার বাড়ির সাথে আমার বাসার অল্প একটু ব্যবধান মাত্র । তবু নানা বাড়িতে গেলে মামির খুশির শেষ থাকত না ।

    আমি যখন ক্লাস ৫/৬ এর ছাত্র তখন বাড়িতে ৩ নাম্বার মামানি আসল । তখন নানা বাড়িতে কেউ নায় । অন্য সবাই ইতালি , আরেক জোড় দেশে থেকেও নেয়।নতুন মামি বাড়িতে আসল । সাড়াদিন একা একা থাকে । মামা দেশে নাই বিয়ে হয়েছে ফোনের মাধ্যমে। বাড়িতে টিভি নাই , নানা হাজী মানুষ(!) নানী আছে পরিবারের কাজ কর্মে ব্যাস্ত। আমি সাপ্তাহে ২ দিনই নানু বাড়ি যেতাম , মামির সাথে গল্প করতাম ।

    যে কারণে জিতলো বিএনপি, কেন হারলে আওয়ামী লীগ?


    কী হবে চার সিটি নির্বাচনের ফলাফল, তাই নিয়ে চিন্তার অন্ত ছিল না দেশের আপামর মানুষের। প্রার্থীদের অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগের কারণে সুষ্ঠভাবে নির্বাচন হওয়া নিয়েও চিল আশঙ্কা। কিন্তু সব আশঙ্কাকে দুরে ঠেলে, নির্বাচন হয়েছে এবং সব কয়টি সিটিতেই জিতেছে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা।
    কিন্তু সিটি নির্বাচনে কেন আওয়ামী লীগের এভাবে ভরাডুবি হলো এবং কেনই বা জিতে গেল বিএনপি। এই নির্বাচনের ফলাফল দেখে যে কোন ব্যক্তিই বলতে পারেন, বিএনপির জনপ্রিয়তা বৃদ্ধিই এই জয়ের একমাত্র কারণ।

    বৃষ্টিবেসে চলে যাওয়া


    সেইদিন বৃষ্টি হচ্ছিল।
    আমি জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে ছিলাম।
    তুমি মনের আনন্দে ভিজছিলে।
    নূপুর পায়ে তুমি মাটিতে বৃত্ত আঁকছিলে।
    জিহ্বা বের করে বৃষ্টি সুধা পান করছিলে চোখ বন্ধ করে।
    আমি শুধু চেয়ে চেয়েছিলাম।

    একটা ধর্ষন,বন্ধুত্ব ও আমি - দ্বিতীয় পর্ব


    কিছু ক্ষন পর অমৃত বেরিয়ে এল পুরো শরীরে খামচি,কামড়,রক্তাক্ত ক্ষত,জমাট বাঁধা রক্তের কালচে আভা।আমার দিকে শার্ট পরতে পরতে আসছে,ঠোঁটের কোনে এক চিলতে হাসি,বলতে যাচ্ছিল কিছু।দিলাম কষে চড়,আমার দিকে একবার তাকাল নিচে নেমে চলে গেল।আমি ল্যাবের ভিতরে যাব কিনা ভাবছি।প্রিলা কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে এল ওর তেমন কিছু হয়নি দেখে আমি নিশ্চিন্ত হলাম।প্রিলা আমাকে বল্লো একটু ওকে পৌঁছে দিতে।আমি প্রিলাকে বাসায় পৌঁছে দিয়ে একটা রিক্সা নিয়ে বাসায় এলাম।ভাবছি এবার কি হবে,কি হয়েছে এসব,প্রিলা কিভাবে বিষয়টা নিল।প্রিলা পরদিন এলো না,অমৃতা ও আসেনি।এভাবে এক সপ্তাহ চলে গেল।প্রিলা বিকেলে ফোন করলো ধরতেই প্রিলা বল্লো আজ বিকেলে দেখা করত

    আপনি কোন জাতি?


    তর্কটা শুরু হয়েছিল অন্য একটা প্রসংগে। কিন্তু সেটা গিয়ে শেষ পর্যন্ত গড়ালো "জাতির পিতায়"! ওনার বক্তব্য- মুসলমানদের জাতির পিতা ইব্রাহিম (আঃ), যারা বলে শেখ মুজিব- তারা কাফের!
    আমি বললামঃ কে কবে দাবী করলো শেখ মুজিব মুসলমান জাতির পিতা?
    তাহলে ওনাকে জাতির পিতা বলে কেন?
    আশ্চর্য! ওনাকে বলা হয় বাঙ্গালী জাতির পিতা। বাঙ্গালী কি শুধু মুসলমানই নাকি, আর কোন ধর্মের লোক নাই? বাঙ্গালী জাতির পিতা শেখ মুজিব, আর মুসলমান জাতির পিতা ইব্রাহিম (আঃ), ঠিকই তো আছে! এখানে কাফের হওয়ার কি হলো?
    ওনার সোজা কথা- জাতির পিতা একজনই হবে; দুইজন না! পিতা আবার কয়জন হয়?

    তানিয়া, চে গুয়েভারা'র প্রণয়িনী


    Haydée Tamara Bunke Bider এর জন্ম ১৯ নভেম্বর ১৯৩৭ সালে। তিনি বেশী পরিচিত ছিলেন তানিয়া অথবা গেরিলা তানিয়া নামে। তিনি ছিলেন আর্জেন্টাইন বংশোদ্ভুত পুর্ব জার্মান কমিউনিস্ট বিপ্লবী এবং গোয়েন্দা। কিউবা বিপ্লবের পরে কিউবান সরকারে এবং ল্যাতিন আমেরিকার বেশ কিছু বিপ্লবে তিনি বিশিষ্ট ভুমিকা রাখেন। বলিভিয়ান বিপ্লবের(১৯৬৬-৬৭) সময় তানিয়াই একমাত্র নারী যিনি চে গুয়েভারার নেতৃত্বে মার্ক্সিস্ট বিপ্লবীদের সাথে বলিভিয়ান সরকারের বিরুদ্ধে বিপ্লব করেছিলেন। সেই বিপ্লবের সময়ই ৩১শে আগস্ট সিআইএ’র পরিচালিত বলিভিয়ান আর্মি রেঞ্জারস এর এক অ্যামবুশে তানিয়া মারা যান।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর