নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • লিটমাইসোলজিক
    • সাইয়িদ রফিকুল হক
    • কাঠমোল্লা
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী
    • জহিরুল ইসলাম
    • নুর নবী দুলাল

    নতুন যাত্রী

    • আদি মানব
    • নগরবালক
    • মানিকুজ্জামান
    • একরামুল হক
    • আব্দুর রহমান ইমন
    • ইমরান হোসেন মনা
    • আবু উষা
    • জনৈক জুম্ম
    • ফরিদ আলম
    • নিহত নক্ষত্র

    সূর্যাস্ত


    কাশেম স্যারের ক্লাস চলছে। কিন্তু দেখে বোঝার উপায় নেই কাশেম স্যারের ক্লাস । থমথমে একটা পরিবেশ। মনে হচ্ছে এই বুঝি কেউ হু হু করে কেঁদে উঠবে। আজ আর ক্লাস হবে না , ভালো থেকো তোমরা বলে স্যার ক্লাস থেকে বেরিয়ে গেলেন। বাহিরে তাকালাম কংক্রিটের দেয়ালে একটা কাক বসে আছে। একেবারে নির্জীব মনে হয় ঝিমুচ্ছে। চলে যাবার আগে আজ রাতটায় এখানে আমার শেষরাত। এটাই শেষ ক্লাস। আর কোনদিন এই ক্লাসরুমে ফিরব না আমি। । ইতু আমার স্টাডি পার্টনার ।আজই শেষ সুযোগ ইতু কে জিজ্ঞেস করার । আমি তা করছি না কারণ আমাদের ইতিমধ্যে বিদায়পর্ব শেষ হয়েছে। একটা প্লান অবশ্য ছিল কংক্রিটের দেয়ালে বসে সূর্যাস্ত টা দেখে হোষ্টেলে ফেরা।

    'পোস্ত' গড়পড়তা মেলোড্রামা ছাড়া কিছুই নেই!


    শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায় পরিচালকদ্বয় মিলে বেশ ক'টি সিনেমা নির্মাণ করেছেন। তাঁদের পরিচালিত সিনেমাগুলি বেশ প্রশংসিত হয়েছে। এই পরিচালকদ্বয়ের প্রায় প্রতিটি সিনেমা-ই ব্যবসা সফল। কলকাতার বাংলা সিনেমা যখন নানান ধরণের সমস্যা মোকাবেলা করে তাঁদের পুঁজি তুলে আনা বেশ কষ্টকর হয়ে দাঁড়ায় তখন একই সাথে হিন্দি ও দক্ষিণি সিনেমাকে মোকাবেলা করে তাঁদের টিকে থাকতেও হয়। সিনেমা তো শুধু বুদ্ধিবৃত্তিক, রাজনৈতিক কিংবা নান্দনিকতা-ই না তা একই সাথে পুঁজিকে আগলে রেখে চলে। পুঁজির হিসেব নিকেশেই সিনেমার নানান ধরণের বিনির্মাণ চলে। সেই হিসেবে পরিচালক হিসেবে জুটি বেঁধে কাজ করলে তা নানাভাবেই ভালো ফল মিলে। গল্প বিন্যাস

    পৃথিবীতে কেবল একটাই ক্ষুধার্ত কবর আছে


    আমি ভুলে যাব; কে ছিল- আমি।
    কি ছিল- আমার নাম।
    আমি ভুলে যাব যে শহরে আমি থাকতাম
    সে শহরের মাননীয় মেয়র একবার
    দেয়াল ভাঙ্গার নামে ভেঙে দিয়েছিল শহরের শেষ মৃত পাখিটির উড়ন্ত এপিটাফ!
    আমি ভুলে যাব সারি সারি বৈদ্যুতিক তার।
    যে তারে তোলা হয়েছিল ইন্টারন্যাশনাল এক্সিবিশনের জীবন্ত ফটোগ্রাফ।
    একটি পদক ঝুলেছিল একযুগ রাষ্ট্রীয় গোডাউনে
    যেভাবে ঝুলেছিল তার।
    আমি ভুলে যাব একটা পাহাড়
    আমার সামনে নেতিয়ে পড়েছিল কারণ আমি পাহাড়টাকে বলেছিলাম,
    একটা তারা যদি মুখ থুবড়ে পড়ে একাকী
    নিঃসঙ্গ

    ★★নারীমুক্তি নাকি যৌনমুক্তি.....?!★★


    বাংলাদেশের বিচারপতি মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান এক প্রবন্ধে লিখেছেন, “সাম্যবাদ সূচনালগ্ন থেকে নারীমুক্তির কথা বলে আসছে এবং সে সঙ্গে এও বলেছে যে, পুঁজিবাদী সমাজ নির্মূল না হলে নারী-অধস্তনতা দূর করা যাবে না। নারীবাদ ও সাম্যবাদের মধ্যে কিছু সাদৃশ্য থাকলেও দুই মতবাদের বিশ্বধারণা দুই রকম। এ ক্ষেত্রে মানব সমাজ লিঙ্গভেদে স্বতন্ত্র ও পৃথক, অন্য ক্ষেত্রে পার্থক্য বৈষম্য সামাজিক শ্রেণিবন্ধতার কারনে। নারীবাদ তার আন্দোলন স্বতন্ত্র রাখতে চায়। তার আশঙ্কা সাম্যবাদ পুরুষতন্ত্রের আর-এক রূপ”।

    দেশ নাকি এগোচ্ছে....!

    কীভাবে এগোচ্ছে... ?

    কোথায় এগোলো ?

    যয়নব, মুহাম্মদ ও আল্লাহর নৈতিকতা (শেষ পর্ব):


    আল্লাহ যেন মুহাম্মদের স্ত্রীদের ঢাকার নির্দেশের অপেক্ষায় ছিল ! সঙ্গে সঙ্গে সে মুসলিম নারীদের জন্য ওহী নাজিল করল :

    কুকুরকে বুদ্ধিমান বানান যেতে পারে , কিন্তু মুসলমানকে মানুষ বানান সম্ভব না


    বেশ কিছু অভিজ্ঞতার পর আমার মনে হয়েছে , বরং কুকুরকে প্রশিক্ষন দিলে সে বুদ্ধিমান হতে পারে , কিন্তু কোনভাবেই মুসলমানদেরকে মানুষ বানান সম্ভব না।মানুষ তাকেই বলে যে যুক্তি ও প্রমানের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহন করে। সেই কারনেই মানুষকে বুদ্ধিমান জীব বলা হয়। কিন্তু দেখা যাচ্ছে , মুসলমানরা কোনভাবেই যুক্তি ও প্রমানের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহন করতে রাজী না। তার মানে তারা কোন ভাবেই মানুষ হতে রাজী না। দুই একটা ঘটনার প্রেক্ষিতে বিষয়টা ব্যখ্যা করব।

    শিশুরা জেগে থাকুক সবুজে


    আমার বাচ্চা খুব ভালো লাগে। শিশুরা এতটাই নিষ্পাপ হয় যে তাদের মুখের দিকে তাকালে দুঃখ, কষ্ট, যন্ত্রণা ভুলে থাকা যায়। ২০০৯ এর পূর্বে আমার কোন ধারণাই ছিল না যে বাচ্চারা বিভিন্ন পরিস্থিতিতে কী রকম অঙ্গভঙ্গি করে, ক্ষুধা পেলে কী করে, আপনজনকে দেখতে পেলে কী করে ইত্যাদি!

    বাঙালি নাস্তিক ব্লগারদের সাফল্য এবং ব্যর্থতা!!


    প্রিয় নাস্তিক মুক্তমনা ভাইরা, কখনো কি ভেবেছেন আপনি কেন ধর্ম নিয়ে এত লেখালেখি করেন?

    কখনো কি ধার্মিকদের এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন। আপনি কেন দিনরাত এক করে সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখালেখি করতেছেন? তাতে আপনার লাভ কি? কার ইন্ধনে আপনে এগুলো করতেছেন? লেখালেখির মাধ্যমে আপনি কি প্রমান করতে চাইতেছেন? অন্য আট দশজন ভালো নাস্তিকের মত চুপচাপ থাকুন। আর সেটাই হবে সমাজের জন্য মঙ্গল কর।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর