নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 2 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • নুর নবী দুলাল
    • সংবাদ পর্যবেক্ষক

    নতুন যাত্রী

    • নওসাদ
    • ফুয়াদ হাসান
    • নাসিম হোসেন
    • নেকো
    • সোহম কর
    • অজিতেশ মণ্ডল
    • আতিকুর রহমান স্বপ্ন
    • অ্যালেক্স
    • মিশু মিলন
    • আগন্তুক মিত্র

    গান্ধী জিন্নাহর ফাঁকা বুলি (পর্ব ০২)


    গান্ধীবুড়োর ভারতে আগমনের আগে পর্যন্ত জিন্নাহ জাতীয়তাবাদী রাজনীতির প্রতি জিন্নাহ একনিষ্ঠ কিন্তু গান্ধীর রাজনৈতিক কর্মসূচি ও খেলাফত আন্দোলনে সে মোটেও আগ্রহ দেখায় নি। ১৯৩৪ শে দেশফেরত জিন্নাহকে মুসলিম রাজনীতির হাল ধরতে বিশেষভাবে প্রভাবিত করে কবি ইকবাল! মুসলিম প্রধান প্রদেশগুলো নিয়ে আলাদা রাষ্ট্র গঠন ও তার নামকরণ 'পাকিস্তান' এর পেছনে ইকবালের বিরাট ভূমিকা ছিল পরবর্তীতে যা 'লাহোর প্রস্তাব' হিসেবে বহির্প্রকাশ করে। আর এই ১৯৩৪ শেই গান্ধি কংগ্রেসের ভার তুলে দিলো লম্পটশ্রী নেহেরুর হাতে আর নেহেরু নিলো মুসলিম লীগের দায়িত্ব । শুরু হলো নেহেরু-জিন্নাহর দ্বৈরথ!

    ভালোবাসা দিবসের ইতিহাস ও বিকৃত উৎযাপন !!


    আসছে ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালবাসা দিবস। এ দিনটিকে বিশেষভাবে উপভোগ করতে প্রেমিক প্রেমিকাদের নানা প্লান প্রোগ্রামের শেষ নেই। কেউ কেউ প্রেমিকা নিয়ে নির্জন পথে লং ড্রাইভে , কেউ কেউ চন্দ্রিমা উদ্যানের মত কোন পার্কের কোণে কিংবা কেউ আবার সুসজ্জিত হোটেল রুমে ভালবাসা দিবস পালনে ব্যাস্ত হয়ে পড়বে। অথচ বাংলাদেশের বেশীরভাগ প্রেমিক প্রেমিকাই ভালোবাসা দিবসের উৎপত্তি ইতিহাস সম্পর্কে জানে না। না জেনে অজ্ঞের মত তারা এই দিনটিকে বেছে নেয় ভোগ আর নস্টামি করতে। তবে ভালবাসা দিবসের ইতিহাস জানার পরও তারা এ দিনে নস্টামি বন্ধ করবে কিনা তা নিয়েও যথেষ্ট সন্দেহ আছে। কারণ আধুনিক প্রেমিক প্রেমিকাদের তো নস্টামি করতে শুধু দ

    কখনো জোর খাটাতে যাবেন না!!


    সময়ের সাথে অনেক কিছুর পরিবর্তন হয়। শরীর স্বাস্থ্য থেকে শুরু করে মন অব্দি! মানসিক অবস্থার পরিবর্তন। এক সময় দেখা যায় যে, কথা গুলো শুধু কানে বাজে।

    বৃদ্ধ বয়সে এক সাথে থাকার স্বপ্ন শ'তে পাঁচটা বাস্তবায়িত হয়। বাকিগুলো অকালে ঝরে যায়। কখনো কখনো অপাত্রে।

    একজন কে ভালো লাগা মানে এই না যে আপনি তাকে চান। একজনকে ভালোবাসা মানে এই না যে আপনি তার সাথে বৃদ্ধ বয়স পর্যন্ত কাটাতে চান।

    আপনি একজন কে পছন্দ করেন আর ভালো ও বাসেন তার মানে এই না যে, যে কোন মূল্যে তাকে আপনার চাই।

    কাহলিল জিবরান থেকে ০১ঃ প্রেমের গান


    একবার এক কবি মনোহর একটা প্রেমের গান লিখলো। অনেকগুলো কপি করলো সে গানটার; তারপর তার বন্ধু বান্ধবী, পরিচিত সব নারী পুরুষের কাছে পাঠিয়ে দিল; এমনকি দূর পাহাড়ের পিছনে যে উর্বশী রমনী বাস করতো - যার সাথে কবির কেবল একবারই দেখা হয়েছিল - তার কাছেও পাঠালো।

    তারপর একদিন সেই সুন্দরী যুবতীর কাছ থেকে দুজন বার্তাবাহক একটা চিঠি নিয়ে এলো। চিঠিতে লেখা ছিল : 'আপনি যে প্রেমের গান লিখে আমাকে পাঠিয়েছেন তা আমার মন ছুঁয়ে গেছে। আমি আপনার জন্য আকুল হয়েছি। এখন আসেন, আমার মা বাবার সাথে কথা বলেন, যাতে আমরা আমাদের বাসর রচনা করতে পারি। '

    কিছু প্রত্যাহার, অনেকের জন্য শুভ!


    আমাদের গ্রামটি তিনটি মহল্লায় বিভক্ত। সঠিক ভাবে বললে ঠিক তিনটি মহল্লা নয়, আসলে তিনটি সারিতে বেশ কয়েকটি মহল্লায় ভিভক্ত। দক্ষিণের সারিতে আছে চারটি চারটি মহল্লা। মাঝের সারিতে আছে চারটি মহল্লা। আর উত্তরের সারিটি একটি লম্বা বেশ বড় মহল্লা। এ যেন কোন টিলার ভিত্তিমূল এটি। গ্রামটিকে যদি আড়াআড়ি ভাবে একটির উপর অপরটিকে রাখা হয় তবে উত্তরের মহল্লাটিকে আবশ্যই ভিত্তিমূলে রাখতে হবে। এর উপরই যেন দাঁড়িয়ে আছে অপর দু'টি মহল্লার সারি। শুষ্ক মৌসুমে তিনটি স্বতন্ত্র মহল্লা মনে হলেও বর্ষা মৌসুমের চিত্র সম্পূর্ন ভিন্ন। বর্ষায় বন্যার সময় কিছুটা উঁচু থেকে বা একটু দূরে থেকে দেখলে মনে হতো নয়টি কচুরী পানার ঝো

    গ্রীক দেবীর মূর্তি ও রাষ্ট্রীয় প্রধানমন্ত্রী


    জঙ্গি ও মৌলবাদী সংগঠন হেফাজতে ইসলাম সুপ্রিমকোর্ট এর সামনে থেকে গ্রীক দেবীর মূর্তী সরিয়ে ফেলতে বর্তমান সরকারকে হুমকি দিয়েছে। হ্যা দিবেই তো! কেন দিবে না? সরকারী আমলারা স্বীকার করেছে পাঠ্য বইয়ের পরিবর্তন করা হয়েছে হেফাজতের নির্ধারিত সিডিউল মতো। বাহ্ হেফাজতে ইসলাম সত্যি সত্যি ইসলাম রক্ষায় লুঙ্গি বেধে নেমেছে! তবে এইবার হেফাজত চক্র নেমেছে সুপ্রিমকোর্টের মূর্তি সরাতে, আর সেটাও বাস্তবায়ন হবে কোন সন্দেহ নেই।

    তবে হেফাজতকে যেভাবে আশকারা দেওয়া হচ্ছে, আমলা-কামলা স্বয়ং মন্ত্রীরাও তাদের তোষামোদ করে।

    আমার ও আমাদের মানসিকতা: এক প্রাকঃসন্ধ্যাকালীন ঘটনা


    আমাদের দেশে নারী নির্যাতনের সবচেয়ে বড় কারণ নারী নিজেই। ছোটবেলায় যখন, বাবার স্নেহছায়ায় থাকে, তখন মেনে চলে তার সব কথা অক্ষরে অক্ষরে। ধর্মগ্রন্থের মত। কোন আদেশ অন্যায় হলেও প্রতিবাদ করতে পারে না। পারে না এই মেনে নেয়ার মানসিকতার কারণেই- আদেশ মান্য করার অভ্যাসের কারণেই।

    চরিত্রহীন


    ভালোবাসি তোমায় অনেক বেশি ভালোবাসি, আরে আমরা তো বিয়ে করবোই। এখন এগুলা করলে কিছু হবে না, আর তুমি তো শুধু আমারই, সহজ সরল সাদা সিধে মেয়ে এই কথা গুলো বিশ্বাস করে যদি নিজের সব কিছু বিলিয়ে দেয় বিয়ের আগেই, সেই মেয়েই নিজের সব কিছু হারিয়ে ফেললো। অতঃপর বর্ত্তমান যুগের প্রেমিক তার প্রেমিকা কে গ্রাস করতে একটুও দেরি করলো না। কিছুদিন পর নানা অজুহাত দেখিয়ে প্রেমিক তার প্রেমিকার কাছ থেকে বিদায় নিয়ে প্রেমিকা কে চরিত্রহীন বানিয়ে দিলো। কি আজব এই দুনিয়া !! তারপর লোকে বলতে লাগলো ঐ মেয়ের বিয়ে হবে না ঐ মেয়ের চরিত্র ভালো না ঐ মেয়ে চরিত্রহীন। কে বলে এইসব? যে তার প্রেমিকার সবকিছু কেড়ে নিয়েছে সেই বলে এইসব!

    পৃষ্ঠাসমূহ

    Facebook comments

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর