নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 2 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • কাঙালী ফকির চাষী

নতুন যাত্রী

  • সুশান্ত কুমার
  • আলমামুন শাওন
  • সমুদ্র শাঁচি
  • অরুপ কুমার দেবনাথ
  • তাপস ভৌমিক
  • ইউসুফ শেখ
  • আনোয়ার আলী
  • সৌগত চর্বাক
  • সৌগত চার্বাক
  • মোঃ আব্দুল বারিক

আপনি এখানে

আরণ্যক এর ব্লগ

শত ফুল ফুটতে দিন


১.আমাদের দেশের বামপন্থী দলগুলোর সহযোগী বিভিন্ন সংগঠনের মধ্যে ছাত্র সংগঠনগুলোর গুরুত্ব অন্যান্য যেকোন সহযোগী সংগঠন থেকে বেশি।ছাত্র সংগঠন থেকেই ভবিষ্যৎ সক্রিয় এবং সার্বক্ষণিক নেতৃত্ব উঠে আসে।প্রত্যেকটা বাম ছাত্র সংগঠন দলীয় আদর্শের ভাবধারানুযায়ী তাদের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে।তবে ঐতিহ্যময় ছাত্র ইউনিয়ন তাদের স্বাধীন গণসংগঠন বলে পরিচিত করতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে।একারনে অনেক উদারপন্থী ছাত্র এই সংগঠনে যুক্ত হতে পারে।ছাত্র ইউনিয়নের রিক্রুটমেন্ট অন্যান্য সংগঠনের থেকে অনেক বেশি।তবে কর্মীর মানের ক্ষেত্রে ছাত্র ইউনিয়ন অতটা কড়াকড়ি নয় যতটা অন্যান্য দলীয় বাম ছাত্র সংগঠনগুলো বজায় রেখে সদস্যপদ দেয়।বামছাত্র সং

ইউটোপিয়া: কম্বোডিয়ায় কসাই পল পট


কমরেড পল পট।কম্যুনিস্ট খেমাররুজ নেতা এবং কম্বোডিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী (১৯৭৫-১৯৭৯)। ইতিহাসের জঘন্যতম গণহত্যা সংঘটনকারী ঘৃণিত শাসক।চীনপন্থি কম্যুনিস্ট'রা পল পট প্রসঙ্গ উঠলেই মুখে তালা মেরে বসেন।চীনের সমাজতান্ত্রিক লাইনের পল পট ছিল সোভিয়েত রাশিয়া বিরোধী সঙ্গতকারনে ভিয়েতনামকে প্রধান শত্রু হিসেবে গণ্য করে।

অনুদানের ছবি ইমপ্রেসের ছবি হয় কি করে?!একটি ব্যবচ্ছেদ


বাংলাদেশের সুস্থধারার (তথাকথিত সুশীল সিনেমায়)চলচ্চিত্রে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম একক শক্তিধর। ইমপ্রেসের বাইরে গিয়ে যারা কাজ করার চেষ্টা করেছেন তারা বাধ্য হয়েছেন ইমপ্রেসের কাছে নিজের পশ্চাতদেশ বিকিয়ে দিতে।অনেক তরুণ নির্মাতা সারাজীবন হ্যান কারেঙ্গা, ত্যান কারেঙ্গা,সিনেমার ভাষা পালটে দিব,সকালে ঘুমেত্তে উঠে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের মায়েরে বাপ,আবার বিকেলে এফডিসির পিণ্ডি চটকান করে করে সরকারি অনুদান ম্যানেজ করে স্বাধীন সিনেমায় হাতেখড়ি।উল্লেখ্য যে সরকার যে পরিমাণ বড়ছোট ছবির জন্য অনুদান দেয়,সেই পরিমাণ উপযুক্ত চিত্রনাট্য না পড়ার কারনে অনেক আনাড়ি লোকজন ফান্ড পেয়ে যায়।এরপর শুরু মিডিয়াপনা!যে মেইনস্ট্রিম মিডিয়ারে রা

আমনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল :মিথ্যাভাষণ


এমেনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল নামক একটি মানবাধিকার সংস্থা তাদের বাংলাদেশ বিষয়ক সর্বশেষ প্রতিবেদন এ উল্লেখ করেছে যে,
" At least 27 people have died during clashes between government and opposition supporters, arson attacks, or from shooting by security forces. At least two people were reported killed on 7 January when police opened fire on BNP supporters in the southern district of Noakhali. "

মৌসুমী ফলে ফরমালিন


আমরা সমাজের মানুষগুলো দিন দিন মনুষ্যত্ব হারিয়ে ফেলেছি।আজ একটা রিপোর্ট
দেখে আঁতকে উঠেছি,প্রায় ৯৬ভাগ আমে ফরমালিন,লিচু ও জামে ১০০ভাগ ফরমালিন পাওয়া গেছে ঢাকা শহরে।
আপেল,আঙুরে র কথা নতুন করে বলার কিছু নেই।আপেল গরম পানিতে সেদ্ধ করে খেতে হয় ইদানিং।এই হচ্ছে অবস্থা!

আম,লিচু,জাম মৌসুমী ফল এগুলো অল্প সময় বাজারে থাকে।একটুও
যাতে পঁচে গলে না নষ্ট হয়,রংয়ের
ঔজ্বল্য অটুট রাখতে,লাভের অংক শতভাগ বজায় থাকে এজন্য এগুলোতে ফরমালিন নামক বিষ মিশিয়ে ক্রেতাদের হাতে তুলে দিচ্ছে কিছু খুনি পিশাচরুপী ব্যবসায়ী।হয়তো একজন
রোগী আরোগ্যলাভের জন্য ফলাহার করেন কিন্তু নিজের অজান্তে এই ফরমালিনযুক্ত ফল

অনলাইনে আওয়ামী প্রতিক্রিয়াশীল চক্রের ষড়যন্ত্র


আওয়ামীলীগে একটা বিরাট ঝড়যন্ত্রের আশঙ্কা দেখছি।আওয়ামীলীগের নিজস্ব
ধর্মনিরপেক্ষতার নীতির নূন্যতম
যদি তারা বজায় রাখতে চায়
তাহলে সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম
ইসলাম ও বিসমিল্লাহ অবশ্যই বাদ
দিতে হবে।আর আওয়ামীলীগের
রক্ষণশীল ঘরণার আধামোল্লা টাইপের নেতারা আওয়ামীলীগের
ধর্মনিরপেক্ষতা নীতিকে গলার
কাঁটা মনে করে আসছে এবং এই
পন্থীরা মনে করে ইসলাম ও
মুসলমানিত্বের রাজনীতি অনেক
সুবিধাজনক।এদের সাথে অনেক তরুণ চৌকস নেতা হিসেবে পরিচিতি পাওয়া একটা অংশ
আছে যারা টিভি টকশোগুলোতে নিয়মিত নিজেদের খেমা প্রদর্শন করে আসছে।অপরদিকে

ঋতুপর্ণ ঘোষঃ তুমি রবে নীরবে


মেঘ পিয়নের ব্যাগের ভিতর
মন খারাপের দিস্তা
মন খারাপ হলে কুয়াশা হয়
ব্যকুল হলে তিস্তা

ঋতুপর্ণ ঘোষের 'তিতলি' ছবির এ গানটি বৃষ্টিমেদুর দিনে এক মেঘ বৃষ্টি আর কুয়াশা ঘেরা পাহাড়ের অন্য জগতে নিয়ে নিয়ে যায়। 'তিতলি'ই বলতে গেলে সচেতনভাবে ঋতুপর্ণ ঘোষের শিল্পসৃষ্টির সাথে প্রথম পরিচয়।

অনলাইনে আস্তিক-নাস্তিক বিভাজন এবং এর পটভূমি


অনলাইনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির মধ্যে যে বিভাজন স্পষ্ট হয়ে উঠেছে এর মূলে রয়েছে আস্তিকতা নাস্তিকতা ইস্যু। এর শুরুটা কোথায়?একটু পিছনে তাকান যাক। রাজীব ভাই খুন হয়ে যাওয়ার পর তার জানাজায় যখন তাকে দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের প্রথম শহীদ হিসেবে ঘোষণা করা হয় গণজাগরণ মঞ্চ থেকে,আন্দোলন নতুন মাত্রা পায়। পর যখন ইনকিলাব ও আমারদেশ চক্রান্ত করে রাজীবের নামে ভূয়া ব্লগ প্রকাশ করে নাস্তিক হিসেবে জনগণের সামনে তুলে ধরেন,তখন গণজাগরণ মঞ্চ প্রতিক্রিয়াশীলদের প্রতিহত না করে উল্টা নিজেরা প্রতিক্রিয়াশীলদের পাতা ফাঁদে পা দিয়ে নিজেদের আস্তিক এবং গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনকে আস্তিকদের আন্দোলন প্রমানের প্রাণান্ত চেষ্টা করে। ফল

এরা মলে কি!আর বাঁচলে কি!!


আমাদের দেশে কি নাই?সবই আছে।সরকারআছে,মন্ত্রী আছে,আমলা আছে,রাজনীতিবিদ
আছে,গরীব মাইনষ্যের শ্রম
শুষে কোটিপতি বনে যাওয়া কয়েকহাজার গার্মেন্টস মালীক আছে।আরওআছে কবি-সাহিত্যিক,বুদ্ধিজীবী,ডাক্ত­
ার,ইন্জিনিয়র,ব্যারিষ্টার,বগ্লার সহকত চীজ।আরও আছে একদল আধুনিক সমরাস্ত্রে সজ্জিত সেনাবাহিনী,যাদের ­পিছনে এই গরীবদেশের সর্বোচ্চ
বাজেট যায়।যাক সমস্যা নাই,দেশটাতো নিরাপদে আছে।

গত কয়েকবছরে যে পরিমাণ ভবনধ্বস,আর গার্মেন্টেসে আগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে সেখানে সর্বোচ্চ প্রাণহানির শিকার
হয়েছে গার্মেন্টস শ্রমিকরা।তাই
সরকার মহাশয় আর মালীকপক্ষ লাশের বিপরীতে ক্ষতিপূরণ আর আহতদের চিকিত্সা দিয়ে খালাস।

ফটিকছড়ি ম্যাসাকারঃসরকার,মিডিয়া ও সুশীল সমাজ


ফটিকছড়িতে হেফাজত জামাত মিলে যে ম্যাসাকার চালিয়েছে তা এখনও মানতে চাচ্ছেনা অনেকে।অনেক বাম
বন্ধু আওয়ামী দালাল ট্যাগ দিয়েছে।সমস্যা নাই।মাথা কারো কাছে বিকিয়ে দেইনি।

বিশ্বজিত্‍ মারা যাওয়ার পরপরই ঐ সময় নাগুতে একটা পোস্ট দিয়েছিলাম। বিশ্বজিত্ ইস্যুতে সুশীল ও বামরা মিলে যেভাবে লীগের চৌদ্দগুষ্ঠি উদ্ধার করেছে,ফটিকছড়ির তান্ডবে তারা চেপে যাচ্ছে। কোন সহানুভূতিমূলক স্ট্যাটাসও তারা দিতে চাচ্ছেনা। সরকার,মিডিয়া যেভাবে স্বার্থগত কারনে বিষয়টা চেপে গেছে,সুশীল সরকারবিরোধীরাও মুখে কুলুপ

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

আরণ্যক
আরণ্যক এর ছবি
Offline
Last seen: 1 month 2 দিন ago
Joined: সোমবার, ফেব্রুয়ারী 4, 2013 - 8:59অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর