নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

There is currently 1 user online.

  • ড. লজিক্যাল বাঙালি

নতুন যাত্রী

  • আরিফ হাসান
  • সত্যন্মোচক
  • আহসান হাবীব তছলিম
  • মাহমুদুল হাসান সৌরভ
  • অনিরুদ্ধ আলম
  • মন্জুরুল
  • ইমরানkhan
  • মোঃ মনিরুজ্জামান
  • আশরাফ আল মিনার
  • সাইয়েদ৯৫১

আপনি এখানে

মানিরুজ্জামান এর ব্লগ

কলকাতার স্কুলে চার বছরের শিশুকে ধর্ষন প্রসঙ্গে


মানুষের মতই দেখতে বুঝলেন! নাক, কান, চোখ, হাত, পা একদম মানুষেরই মত। দেখে আলাদা কিচ্ছু বোঝার জো নেই। অভিষেক রায়ের কথা বলছি। ফেসবুক প্রোফাইল দেখলাম ওর। স্ত্রীকে নিয়ে ছবি পোস্ট করা। স্বাভাবিক ফ্যামিলি ম্যান। আরেকজন মফিজুদ্দিন, সে বোধয় ফেসবুকে নেই। কিন্তু তাকে দেখেও মানুষ বলেই মনে হবে নিশ্চয়! নাক, কান, চোখ....। যারা জানেন না এরা কারা, তাদের বলি, এই দুজন একটা চারবছরের বাচ্চাকে ধর্ষনের অভিযোগে অভিযুক্ত। চার বছর! ওইটুকু বাচ্চাকে দেখেও কারো কাম জাগতে পারে!

ভারতে খুন হিন্দুত্ববাদের সমালোচকঃ গৌরি লংকেশ


নাৎসিরা সে সময় সব ইহুদিদের ধরে ধরে কনসেনট্রেশন নিয়ে যাচ্ছে আর গ্যস শুঁকিয়ে মেরে ফেলছে। অনেক সময় এরকম হত যে, বড়দের ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হত আর বাচ্চারা অনাথ হয়ে রাস্তায় রাস্তায় ভিক্ষে করে বেড়াত। একদিন এক জার্মান গৃহবধূ রাস্তায় এরকম তিনটে বাচ্চাকে ভিক্ষে করতে দেখেন-রুগ্ন, নোংরা ইহুদি বাচ্চা। তিনি সেসময় তার ছেলেমেয়েদের স্কুল থেকে আনতে যাচ্ছিলেন, তো তিনি তাদেরও তুলে নেন। সবাইকে নিয়ে উনি ঘরে ফেরেন, তাদের হাত মুখ ধুইয়ে দেন। সবার জন্য খাবার গরম করেন। ওই ইহুদি বাচ্চাগুলোর প্লেটে যত্ন করে বিষ মেশান। ক্ষুধার্ত বাচ্চাগুলোকে ছেলে মেয়েদের সামনেই উনি মেরে ফেলেন। তাদের দেহগুলোকে টেনে টেনে বাড়ির পেছনে নিয়ে গিয়ে পুঁতে দেন।

প্রসঙ্গ : কুরবানি


উত্তরপ্রদেশের মহেশ্বর প্রসাদ পেশায় ছিলেন স্বর্ণকার। অনেকদিন ধরেই তার ব্যবসায় মন্দা যাচ্ছিল। প্রসাদবাবু বুঝে উঠতে পারছিলেন না কিভাবে তার সমস্যা মিটবে। সমস্যার সমাধান নিয়ে আসে তাদের ড্রাইভার কৃষ্ণ শর্মা। কৃষ্ণ তাদের বলে, তাদের ১৫ বছরের মেয়েকে ঈশ্বরের কাছে বলি দিলে সব সমস্যা দূর হয়ে যাবে। মহেশ্বর প্রসাদ এবং তার স্ত্রী এই প্রস্তাবে রাজি হন। নির্দিষ্ট দিনে তারা মাদক খাইয়ে মেয়েকে মন্দিরে নিয়ে যান। সেখানে কৃষ্ণ তাকে গলায় ফাঁস লাগিয়ে খুন করে। খুন করার পর সে মেয়েটির গলা কেটে রক্ত সংগ্রহ করে দেবির উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করার জন্য।

বন্দেমাতরম না বললে কি দেশদ্রোহী


১।হামিদ আনসারি মিথ্যেবাদী, দেশদ্রোহী।

বোর্ডিং কার্ড

মানিরুজ্জামান
মানিরুজ্জামান এর ছবি
Offline
Last seen: 2 months 2 weeks ago
Joined: মঙ্গলবার, আগস্ট 15, 2017 - 10:21অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর