নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • শাম্মী হক
  • সলিম সাহা
  • নুর নবী দুলাল
  • মারুফুর রহমান খান
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

মিশু মিলন এর ব্লগ

গাওয়াল (উপন্যাস: পর্ব-চৌদ্দ)



শোভনের দেওয়া একটি ম্যাগাজিন উল্টে-পাল্টে দেখছে নীলু। বিভিন্ন দেশের ভাস্কর্য এবং চিত্রকর্ম বিষয়ে ইংরেজি ভাষার বেশ মোটা একটি ম্যাগাজিন। শোভন নীলুকে ম্যাগাজিনটা দিয়েছে পড়ার উদ্দেশে নয়, ছবি দেখার জন্য, যাতে ভাস্কর্য বিষয়ে নীলুর জ্ঞান আরো বিস্তৃত হয়। অসংখ্য ভাস্কর্য এবং চিত্রকর্মের ছবি আছে ম্যাগাজিনটাতে। নীলু পাতা উল্টে-পাল্টে ছবি দেখছে আর ভেতরের লেখা পড়ার চেষ্টাও করছে, কিন্তু শক্ত শক্ত ইংরেজির মানে বুঝতে পারছে না সে। তার ইংরেজির দৌড় খুব বেশি দূর নয়। এই ইংরেজির জন্যই তো সে মাধ্যমিক পাশ করতে পারেনি!

গাওয়াল (উপন্যাস: পর্ব-আট)



নবদ্বীপ গোঁসাইয়ের সাথে ভারতের উদ্দেশে রওনা হলো নীলু। এই প্রথম তার দেশের বাইরে যাওয়া। তাই সে বেশ উত্তেজনা বোধ করছে। সীমান্ত পার হওয়ার সময় তার ভেতরটা হাহাকার করে উঠলো। একই মানুষ, একই ভাষা, একই আকাশ, একই বাতাস। কতো কাছাকাছি, রাতে এপারের ঝিঁঝিঁর ডাক ওপারে শোনা যায়। ওপারের মেঘ এপারে বৃষ্টি হয়ে ঝরে পড়ে। এপারের পাখি উড়ে গিয়ে বসে ওপারের গাছে। অথচ মাঝখানে কাঁটাতার দিয়ে কতো দূরত্ব তৈরি করে রেখেছে দু-পারের মানুষের মধ্যে, যে দূরত্ব কেবল মানুষের ভেতর হাহাকার জাগায়!

গাওয়াল (উপন্যাস: পর্ব-সাত)



নীলুর দোহার হওয়ার খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়তে সময় লাগলো না। উচ্চ বর্ণের কেউ কেউ নবদ্বীপ গোঁসাইয়ের কাণ্ডজ্ঞান নিয়ে প্রশ্ন তুললো, বিরক্তও হলো। নীলুর নিজের সম্প্রদায়ের কেউ কেউ বললো, ‘যাক নীলু, এতোদিনে তোর এট্টা গতি অলো।’ কেউ পিঠ চাপড়ে বললো, ‘লাগে থাক, লাগে থাক।’ আবার তাকে নিয়ে নতুন করে ঠাট্টা মশকরা করার লোকেরও অভাব হলো না।

গাওয়াল (উপন্যাস: পর্ব-পাঁচ)



ঘরের মেঝেতে বসে চকিতে পিঠ ঠেকিয়ে ছড়ানো বেতো ফোলা পা একটা আরেকটার ওপর তুলে জাঁতি দিয়ে সুপারি কাটছে ভানুমতি। সাতসকালে উঠেই পান মুখে না দিলে তার চলে না। তার মুখের মজা সুপারির গন্ধ আশপাশে যারা থাকে তাদের ঘ্রাণেন্দ্রিয় অতিষ্ট করে ছাড়ে। অভাবের সংসার, পুরো একটা পান খাওয়া বিলাসিতার মতো মনে হয়। তাই একটা পান মাঝখান থেকে ছিঁড়ে অর্ধেক খায়, বাকি অর্ধেক রেখে দেয় পরে খাবার জন্য। তার এমন পান খাওয়া দেখে সুবোধ প্রায়ই বলে, ‘শুরু অইছে জাবর কাটা!’

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

মিশু মিলন
মিশু মিলন এর ছবি
Offline
Last seen: 19 ঘন্টা 53 min ago
Joined: সোমবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2017 - 9:06অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর