নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • নাসিম হোসেন
  • মিঠুন সি দাস
  • সংবাদ পর্যবেক্ষক

নতুন যাত্রী

  • নওসাদ
  • ফুয়াদ হাসান
  • নাসিম হোসেন
  • নেকো
  • সোহম কর
  • অজিতেশ মণ্ডল
  • আতিকুর রহমান স্বপ্ন
  • অ্যালেক্স
  • মিশু মিলন
  • আগন্তুক মিত্র

আপনি এখানে

নির্বাণ রায় এর ব্লগ

""রাষ্ট্রভাষা আরবি চাই""


এবারে অমর ২১ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে একুশের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে রাষ্ট্রের কাছে দাবি---
""রাষ্ট্রভাষা আরবি চাই"".....
আমি একটি ধর্মভিত্তিক রাষ্টের সন্তান। সরকার আমাদের রাষ্ট্র তথা আমাদের ধর্ম ঠিক করে দিয়েছেন--সেটা হল 'ইসলাম'। তাই বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত ধর্মবলে বলীয়ান হয়ে ৯০%মুসলিমের প্রতিনিধি হয়ে আমদের এই দাবি টা করা কি খুব অন্যায় ---
""রাষ্ট্রভাষা আরবি চাই....""

নারীর পর্দা,সংযম ও ধর্মীয় কিংবদন্তিদের অবস্থান


প্রত্যেক ধর্মেই কমবেশি আছে নারীদের পর্দার কথা।এটা হল ধর্মগুরুদের নিজেদের হীন স্বার্থ চরিতার্থ করার গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

নিজেদের অপরিসীম যৌনতার লাগাম পুরুষদের নিজেদের হাতে নেই, সেই লাগাম তারা তুলে দিয়েছেন নারীদের হাতে। নিজেদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না,তাই নারীদের পর্দা করতে বাধ্য করেন।আবার তারাই বড় বড় বক্তৃতা দেন সংযমের পক্ষে।এই আপনাদের সংযম, একজন নারীকে বিকিনি তে দেখলেই তা উবে যায়।আপনাদের চেয়ে তাহলে তো বলতে হয় ঐ ইউরোপ আমেরিকার নাস্তিক,অজ্ঞেয়বাদী,আস্তিক (ধর্মে বিশ্বাসী নয়) পুরুষ গুলো বেশি সংযমী।

আপনারা সংযম বলতে কি বুঝেন জানি না।

আল্লামা শফীর বিরল 'ইমান, আকিদা ও ঐতিহ্য '- সম্ভ্রম


আমাদের উত্তর বঙ্গের একটি বিখ্যাত প্রবাদ--"পাইতে পাইতে ফকির ভিতর বাড়ি ঢুকে বা পাবলিককে বসতে দিলে খাইতে চায় আর খাইতে দিলে শুতে চায়।"

এই হল বর্তমান হেফাজতে ইসলামের অবস্থা।তারা কিছু দিন আগে গান ধরেছিল পাঠ্যক্রম থেকে হিন্দুয়ানি ও নাস্তিকতা সমৃদ্ধ লেখা সরাতে হবে, সেটা পূরণ হয়েছে এখন লেগেছে সুপ্রিম কোর্টে স্থাপিত ভাস্কর্যের পিছনে। এটা নাকি তাদের ইমান,আকিদা,ঐতিহ্য বিরোধী।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত অনেক কিছুরই প্রথমতম ও একমাত্র নায়ক


সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বাংলাদেশর অনেক ইতিহাসের প্রথমতম এবং একমাত্র নায়ক।
এখন একটু পিছনে যাই, ১৯৭২ সালের সংবিধান যে কমিটি আওতায় লেখা হয়ছিল, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত সেই কমিটির একজন সম্মানিত সদস্য। কিন্তু বিষ্ময়কর ব্যাপার হল সেই কমিটির তিনি মনে হয় একমাত্র সদস্য যিনি আমাদের সংবিধানে সাক্ষার করেননি।সংবিধানের নিরপেক্ষতার প্রশ্নে তিনি ছিলেন অনড়। হয়তবা এই কমিটির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার মত ক্ষমতা তার ছিল না কিন্তু যে সময়টাতে পুরো বাঙালি জাতি সংবিধান সাক্ষারে মত্ত ছিল তখন তিনি সংবিধান রচনা কমিটির সদস্য হয়েও ১৯৭২ সংবিধানে সাক্ষার না করে তার মৌন প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন পুরো জাতিকে।

"ধর্মে মানবিকতা" ও "সঞ্জয়লীলা বানসালির গালে মানবিকতার কষাঘাত"


একই সঞ্জয়লীলা বানসালির "বাজিরাও মাস্তানি" তে এক মুসলিম রাজকুমারীর সাথে হিন্দু রাজার প্রেম দেখে হিন্দুরা চুটিয়ে মজা নিল, কিন্তু তারই (সঞ্জয়) আর এক মুভি "পদ্মাবতী" তে হিন্দু রাণীর সাথে মুসলিম রাজার প্রেম দেখে ভারতীয় হিন্দুদের ফেটে গেল।
মূর্খগুলো ভালবাসা নামক পৃথিবীর সর্বোত্তম অনুভূতিটাকে ও সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্পে নীল করে দিল।
আর সকল ধার্মিক ও ধর্মের মুখেই ফুটে কিনা ভালবাসার করুণাধারার গল্প।

কোরানে মূত্রত্যাগ প্রসঙ্গে আসিফ মহিউদ্দীনের বক্তব্য,মুসলিমদের গালিগালাজ ও নাস্তিকতা


গতকাল খ্যাতনামা ব্লগার আসিফ মহিউদ্দীনের --"কোরানে মূত্রত্যাগ প্রসঙ্গে" শিরোনামে একটি ব্লগ পড়লাম। আসিফ সাহেবের ব্লগ ও তার সাথে সম্পর্কিত আর কয়েকটি বিষয়ে একটু আলোকপাত করলাম ---

সৌমিত্র শেখরের "সৃজনশীল শিক্ষাব্যবস্থা"র সমালোচনার বিপরীতে আমার কিছু কথা


গত ২২/০১/১৭ তারিখের 'দৈনিক প্রথম আলো' পত্রিকায় স্যার সৌমিত্র শেখরের 'সৃজনশীল শিক্ষা পদ্ধতির' সমালোচনা করে লেখা একটি সম্পাদকীয় পড়ে মনে হল কিছু লেখা উচিত, সেই তাগিদ থেকেই এই ব্লগ।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নজরুল-অধ্যাপক উপাধিতে ভূষিত শ্রদ্ধেয় শিক্ষক সৌমিত্র শেখরের মতামতের সমালোচনা করার কোন যোগ্যতা বা অধিকার কোনটাই আমার নেই।শুধু স্যারের সাথে আমার দৃষ্টিভঙ্গির পার্থক্য তুলে ধরছি।স্যার আমাদের 'সৃজনশীল শিক্ষা পদ্ধতি' কে 'সৃষ্টিছাড়া সৃজনশীলতা'য় অভিহিত করে সমালোচনা করেছেন।তিনি এটির সমালোচনা করেছেন কারণ এতে প্রশ্নের উত্তর লেখার ক্ষেত্রে কিছুটা নির্দিষ্ট সীমা আছে এবং কবিতা তারা যেটা প্রায়শই মুখে আওড়াতে পার

'হেফাজতে ইসলাম' ও চরমোনাই পীর সাহেবের বিশ্বাসের লালপট্টি


আমাদের 'হেফাজতে ইসলাম' এর হুজুর-রা ও চরমোনাই পীর সাহেব সমস্যার মূলোৎপাটন না করে ডালপালা কাটা শুরু করেছেন। হুজুরা আমাদের পাঠক্রমের অন্তর্ভুক্ত যা ইসলাম বিরোধী তাই নিষিদ্ধের জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন।

তারা হুমায়ুন আজাদের 'বই' কবিতাটি নিষিদ্ধ করেছেন কারণ ঐ কবিতায় কোন বইকে অন্ধ ভাবে বিশ্বাস করতে নিষেধ করেছে। এই বই শিশুদের কোরান কে অন্ধভাবে বিশ্বাসে প্রতিবন্ধক তাই ইহা নিষিদ্ধ। তাদের যুক্তি ও বুদ্ধি দুটোই অসাধারণ।

ধার্মিকদের বিজ্ঞান চর্চা কি নিজের সাথেই প্রতারণা নয়???


গতকাল আমার এক ডাক্তারি পড়ুয়া বন্ধুর সাথে কথা হচ্ছিল।যাই হউক কথা প্রসঙ্গে সে বলল, মৃতদেহ খুব আস্তে রাখা উচিত। আমি জিজ্ঞাস করলাম কেন?সে বলল তাতে মৃতের আত্না ও দেহ কম কষ্ট পায়, জীবিত অবস্থায় ব্যথা পেলে তো তাও লোকটি বলতে পারত কিন্তু মৃতের পক্ষে তো তা সম্ভব নয়, পোস্টমর্টেমে মৃতদেহ কাটাকাটিতে নাকি মৃত দেহের অনেক কষ্ট হয়, তাই পোস্টমর্টেম এড়াতে সে যথাসম্ভব আত্নাহত্যা পরিহার করতে বলল।

আমি স্তব্ধ হয়ে কিছুক্ষণ তাকিয়ে রইলাম ও ভাবলাম এই আমাদের ডাক্তারদের অবস্থা!!!!

মহান চরমনোই পীর সাহেবের ইতিহাস বিকৃতি করা মিথ্যাচার ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা


বরিশালের চরমোনাই পীর সাহেব মাওলানা সাইয়েদ মুহাম্মদ রেজাউল করীম তার ভক্তানুসারীদের উদ্দেশ্য একটি বক্তৃতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিন্দু,নাস্তিক,খ্রিষ্টানদের বের করে দিতে বলেছেন।এই বক্তৃতায় তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্ম নিয়ে যে বিষ্ময়কর মিথ্যাচার করেছেন তা বর্ণনাতীত।নিম্নে তার বক্তৃতার মিথ্যাচারসমূহ উপযুক্ত তথ্য দিয়ে প্রমাণ দিচ্ছি-

পৃষ্ঠাসমূহ

Facebook comments

বোর্ডিং কার্ড

নির্বাণ রায়
নির্বাণ রায় এর ছবি
Offline
Last seen: 2 দিন 10 ঘন্টা ago
Joined: সোমবার, ডিসেম্বর 26, 2016 - 10:58অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর