নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • দ্বিতীয়নাম
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • নুর নবী দুলাল
  • মিশু মিলন
  • পৃথু স্যন্যাল
  • সাইয়িদ রফিকুল হক

নতুন যাত্রী

  • জোসেফ হ্যারিসন
  • সাতাল
  • যাযাবর বুর্জোয়া
  • মিঠুন সিকদার শুভম
  • এম এম এইচ ভূঁইয়া
  • খাঁচা বন্দি পাখি
  • প্রসেনজিৎ কোনার
  • পৃথিবীর নাগরিক
  • এস এম এইচ রহমান
  • শুভম সরকার

আপনি এখানে

অপ্রিয় কথা এর ব্লগ

ইসলাম অবমাননার নামে টিটু রায়কে গ্রেপ্তারঃ এটা সরকার-প্রশাসনের নির্লজ্জতাই ফুটে উঠে!


আওয়ামিলীগ সরকার (ও তার প্রশাসন) মুসলমানের সমর্থনের জন্য এতোটা নগ্ন ও নির্লজ্জ হয়েছে যে, তাদের এই নির্লজ্জতা ঠিক কোন ভাষায়, কোন শব্দ দিয়ে ব্যাখ্যা করবো, সেইটুকু ভাষা ও শব্দ আমার জ্ঞাণ ভাণ্ডারে নেই। রংপুরের ঠাকুর পাড়ার টিটু রায়কে ঠিক কোন অপরাধে গ্রেপ্তার করলো আওয়ামিলীগ সরকারের প্রশাসন? আমি বুঝে উঠতে পারছি না টিটু রায়ের অপরাধটা কি? যে ছেলেটা ফেইসবুকের 'ফ' ও বুঝেনা, সেই ছেলে কি করে ইসলাম ও নবী অবমাননা করবে?

স্বাধীন হয়ে এদেশ ৪৬ বছর ধরে পাকিস্তান থেকে পাকিস্তানতর হয়েছে!


সময় জিনিসটা আমার কাছে খুব অল্পই। নিজেকে দেবার মতো সময় বের করতে পারিনা। নিজেকে সময় দেয়া বলতে নিজের লেখালেখিতে অন্তর্মুখী হয়ে ডুব দেয়া। অনেক অনেক দিন হয়ে যাচ্ছে কোন একটা বিষয়ের উপর ভালো করে বিশ্লেষণ করে বড় আকারে লেখা লিখছি না। যে দুচার লাইন লিখি, এই যেন লেখালেখির অভ্যাসটা ধরে রাখা। যাদের লেখার অভ্যাস আছে, তারাই জানেন লিখতে না পারার কষ্ট ঠিক কতখানি। আর সময়ের লেখা সময়ে না লিখলে, পরে লিখলে তাতে প্রতিবাদের ভাষায় ভাটা পড়ে, বারুদের ভাষা ফুরিয়ে যায়। কিছু কিছু রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্ত দেখে শরীরের রক্তে আগুন জ্বলে! প্রতিবাদ যে করবো, লিখতেই তো পারিনা। সময় কোথায়?

আমাদের শেখ হাসিনার হাত ধরে মানবতার জম্ম!!!


--আলফ্রেড নোবেল মানুষের মরণাস্ত্র ডিনামাইট আবিস্কার করে যখন অনুশোচনায় ভুগছিলেন, তখন তিনি তার প্রতিদান স্বরুপ ডিনামাইট আবিস্কারের বিপক্ষে দাঁড়িয়ে আবার আবিস্কার করেন শান্তিতে নোবেল পুরস্কার। মৃত্যুর আগে তিনি তার সমস্ত সম্পদ নোবেল পুরস্কারের নামে উইল করে যান। একদিকে তার আবিষ্কৃত ডিনামাইট মানুষের ক্ষতি করবে। আরেকদিকে পৃথিবীতে শান্তিতে যারা অবদান রাখবেন তাঁদেরকে তাঁর সঞ্চিত অর্থ দিয়ে শান্তিতে নোবেল পুরস্কারে ভুষিত করা হবে। তখনো কিন্তু মানবতার জম্ম হয়নি!

পৃথিবী সর্বশেষ্ঠ গ্রন্থ কোরাণ ও আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে জগণ্য সাম্প্রদায়িক শিক্ষানীতি!


(১)
রোহিংগা মুসলমানদের উপর মায়ানমারের সেনাবাহিনী এবং "বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা" কবে হামলা করেছিল?

(২)
পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ গ্রন্থ কোনটি?
(ক) পবিত্র কোরান শরীফ (খ) পবিত্র ইঞ্জিল শরীফ (গ) গীতা (ঘ) পবিত্র বাইবেল।

এই দুটি প্রশ্ন যুক্ত করা হয়েছে গতকাল অনুষ্ঠেয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে। ১ম টি ৪১ নম্বর, ২য় টি ৭৬ নং প্রশ্নে করা হয়েছে। আচ্ছা এগুলি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থা নাকি সাম্প্রদায়িক ছাগল উৎপাদনের কারখানা? চারুকলা বিভাগের প্রশ্নপত্রে এসব অপ্রাসঙ্গিক প্রশ্ন যায় কি? যদি যায়, তাহলে এমন প্রশ্নও তো করা যায়.....

প্রধান বিচারপতি এস কে সিংহার বিদায়, তবে কি আওয়ামিলীগ নৈতিকভাবে পরাজিত?


বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে সভ্য ও সুস্থ পার্লামেন্ট হচ্ছে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট। যেখানে সংবিধান, গনতন্ত্র ও ব্রিটিশ-জনগনের কিভাবে সর্বোচ্চ মৌলিক অধিকার রক্ষা করা যায়, তার জন্য সাংসদরা নতুন নতুন আইন পাশ করেন। ব্রিটিশ সাংসদীয় ব্যবস্থা এতো আধুনিক ও সংস্কারময় যে, তারা ৫০-১০০ বছরের পুরোনো আইন বহাল (যদি উপযোগী হয় তাহলে অন্য কথা) রাখেন না। তারা জনগনের অধিকার তথা গনতন্ত্রকে সমুন্নত রাখার জন্য সংসদীয় ব্যবস্থা সবসময় সচল রাখেন। এই জন্য ব্রিটিশের পার্লামেন্টকে বিচার বিভাগের চেয়েও জৈষ্ঠ আদালত হিসেবে ধরা হয়।

অভিজিৎ-অনন্তের মেধা বুঝলো না অসভ্য বাংলাদেশ, ধর্ষিতা-মৃত নিথর অনিকার মতো শুয়ে আছে আমার স্বদেশ!


১৯৭১ সালে ঘৃন্য পাকিস্তানী শাসন থেকে সদ্য স্বাধীন হওয়া বাংলাদেশটার লক্ষ্য কিন্তু এরূপ ছিল না। লক্ষ্য ছিল কিন্তু ভিন্ন। স্বাধীন দেশটার নীতি থাকবে অসাম্প্রদায়িক। ধর্ম যার যার রাষ্ট সবার। সংখ্যালঘুরা রাষ্টের বৈষম্যের (পাকিস্তান আমলে হিন্দু সংখ্যালঘু ছিল ২১%, এখন ৮%। তো বোঝেন অবস্থা!) শিকার হবে না। বাক স্বাধীনতার গুরুত্ব থাকবে। সবাইকে সাথে নিয়ে একযোগে দেশটা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ায় স্বপ্ন দেখেছিলেন বঙ্গবন্ধু। সেজন্য তিনি বাকশাল (আচ্ছা বাকশালের উদ্দেশ্য নৈতিক ছিল তো? অনেকে বলে কিন্তু একনায়কতন্ত্র। দ্বন্ধে আছি। এই নিয়ে একটু তথ্য জানাবেন প্লীজ) গঠন করেন। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর (যেহেতু তাঁর ডাকে সকল বাঙালী একাত্ন হয়েছিল, সেহেতু তাঁকে বঙ্গবন্ধু বলাই যায়) মৃত্যুর পর তাঁর স্বপ্নের চীর ধরে। ক্ষমতালোভীরা ক্ষমতার জন্য সংবিধানে জুড়ে দিতে থাকে একেকটি ভয়ংকর সব সাম্প্রদায়িক নীতি। ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য যে যার খুশিমতো পরোলৌকিক মুলো ঝুলিয়ে দেয়। কেউ বিছমিল্লাহ, কেউ রাষ্টধর্ম ইসলাম। কোন রাষ্ট চালক কে কতো বেশি ইসলামিষ্ট এই প্রতিযোগীতায় তারা সদা ব্যস্ত ছিল। ঐ দিকে ৩০ লক্ষ শহীদদের যে দেশটাকে নিয়ে স্বপ্ন ছিল, কি লক্ষ্য ছিল, তা তারা ভুলে যায়। ৯০% মুসলিমকে বোকা বানিয়ে তারা গ্রহন করতে থাকে ক্ষমতার নীতি। এ দল বলে আমরা বেশি ইসলামিষ্ট, ঐ দল প্রমাণ করে আমরা বেশি ইসলামিষ্ট। কি সামরিক শাসন, কি গনতান্ত্রিক ব্যবস্থা, সব শালারা ক্ষমতার লোভে একই নীতি গ্রহন করেছে!

বাংলাস্তান তুমি দীর্ঘজীবী হও! লক্ষ লক্ষ সংখ্যালঘুর দেশত্যাগ তোমার ইতিহাসে লজ্জা হয়ে থাকুক...


রসরাজের পরিবার নাকি এদেশ ছেড়ে চলে গেছে ভারতে। শেষ জম্মভুমির ভিটে বাড়ি ছেড়ে চলে গেছে তারা। শেষ অস্তিত্ব বিলীন হয়ে গেছে রসরাজদের। এদিকে রসরাজের জামিন হয়নি। হয়তো ছেলেটা দিনের পর দিন জেলে পঁচে মরবে। তারা যাবার সময় হয়তো কিছু স্নৃতি মনে করে হাতড়ে হাতড়ে বেড়াবে। পেছনের দিকে বার বার ফিরে দেখবে। চোখের জল মুছবে। শৈশবের বেড়ে উঠার স্নৃতি মনে পড়ে পড়ে হয়তো হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হবে।

ধর্ষণের জন্য লিঙ্গ কর্তন করলেই কি অপরাধ প্রবণতা কমে যাবে? আমাদের ঘাটতি টা কোথায়?


চুরির জন্য হাত কর্তন, ধর্ষণের জন্য লিঙ্গ কর্তন করলেই কি অপরাধ প্রবণতা কমে যাবে? এসব ভয়ভীতি দেখালেই কি অপরাধীর সংখ্যা আস্তে আস্তে বিলুপ্ত হবে? আমার উত্তর না। আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা এতোটা অপরিপক্ক ও ভঙ্গুর যে, যেখান থেকে প্রতি বছর বের হয় হাজার হাজার অসুস্থ প্রতিদ্বন্দ্বী শিক্ষার্থী। উচ্চ নম্বর পাওয়ার জন্য, একটি সার্টিফিকেট অর্জন করার জন্য রাত-দিন জেগে পড়াশুনা করা ছাড়া আর কিই বা ঢুকানো হয় আমাদের শিক্ষার্থীদের মননে?

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

অপ্রিয় কথা
অপ্রিয় কথা এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 3 ঘন্টা ago
Joined: শনিবার, ডিসেম্বর 24, 2016 - 2:15পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর