নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 2 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • মৃত কালপুরুষ

নতুন যাত্রী

  • মিঠুন সিকদার শুভম
  • এম এম এইচ ভূঁইয়া
  • খাঁচা বন্দি পাখি
  • প্রসেনজিৎ কোনার
  • পৃথিবীর নাগরিক
  • এস এম এইচ রহমান
  • শুভম সরকার
  • আব্রাহাম তামিম
  • মোঃ মনজুরুল ইসলাম
  • এলিজা আকবর

আপনি এখানে

আব্দুর রহিম রানা এর ব্লগ

শাকিলরা মারা গেলে আর মোমবাতি প্রজ্জ্বলন নয়


Shakil Mahmood আমি তাকে রুদ্র বলে'ই ডাকি। রুদ্র ডাকার মূল কারণটাই হচ্ছে, সে রুদ্র মুহাম্মদ শহিদুল্লার মতই কবিতা লেখে! তার কবিতার লাইনগুলো মাঝে মাঝে এক একটি পারমাণবিক বোমায় পরিণত হয়, তা মৌলবাদের অনুভুতি নেড়ে দেয়ার মতোই শক্তিশালী হয়। আবার কখনো কখনো কবিতার হাতুড়ি দিয়ে ঈশ্বরের হাড়-পাঁজড় ভাঙ্গে! আবার কখনো প্রেমিকার ঠোটে-ঠোট রেখে একা'ই পাড়ি জমায় বিপ্লবের সর্বোচ্চ চূড়ায়। ভালো লাগে রুদ্রকে ভালো লাগে তার কবিতাকে।

আমি নাস্তিক, তাতে আপনাদের সমস্যা কোথায়?


আমি নাস্তিক, তাতে আপনাদের সমস্যা কী?
কে ধর্ম পালন করলো না বা কে করলো সেটা তো আপনাদের দেখার বিষয় না। যার ধর্ম পালন করতে মন চাইবে সে করবে, যার করবে না সে করবে না। এখানে জোরজবরদস্তি করে, ভয় দেখিয়ে ও মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে মানুষকে ধর্ম পালন করানো কেমন লজ্জাজনক মনে হয়।

আপনাদের ধর্ম যদি ভালো কিছু বয়ে আনে, তাতে আমার আপনাদের ধর্ম পালন করতে সমস্যা নেই। এখন আপনাদের ধর্ম যেখানে মানুষকে নিজেদের মধ্যে বিভক্ত করে রেখেছে, সেই ধর্ম আমি কেন পালন করতে যাবো?

আপনাদের যে ধর্ম, পৃথিবীতে গরিব হত দরিদ্র মানুষের মূখে দু'বেলা ভাত তুলে দিতে পারে না। সেই ধর্ম আমি কেন মানতে যাবো?

প্যাঁচাল-৩


শেষ পর্ব

কান্ট যুক্তিবাদের আদর্শের নীতিকে গড়ে তোলবার বিশেষ চেষ্টা করেন। কিন্তু তার অনুমানিক স্থির সিদ্ধান্তের সঙ্গে প্লেটোর মতের মূলত কোনো প্রভেদ নেই। 'সত্যম্ শিবম্ সুন্দরম্' এর চিরন্তন আদর্শের উপর প্লেটোর দর্শন প্রতিষ্ঠিত, এর মধ্যে সত্যম্ এবং সুন্দরম্ পার্থিব জগতের স্থান-কাল-পাত্র জনিত সীমার অতীত ভূমা বিশেষ। কিন্তু নৈতিক স্বাধীনতা ভাবপ্রকাশের ক্ষমতা এই জগতেরই ব্যাপার-অসীমের নয়। সেই জন্যই পার্থিব সংজ্ঞার প্রয়োজন এবং কান্টের মতানুবর্তী দার্শনিকেরা তা উপলব্ধি করেছিলেন।

প্যাঁচাল-২


মূলত ভূমার অনুভূতির উপরই চিরাচরিত নৈতিক দর্শন প্রতিষ্ঠিত; তারই উপর এই দর্শনের ন্যায়-অন্যায়, দোষ-গুন, ভালো-মন্দ এইসবের ধারনা নির্ভর করে। এইসব আদর্শই মানুষের ব্যবহারিক জীবনের একমাত্র পাথেয়।

প্যাঁচাল-১


পাশ্চাত্যের নৈতিক আদর্শ প্রাচীণ প্রকৃতিবাদ ধর্মের ভিত্তিতে গড়ে ওঠে। আধুনিক নীতিশাস্ত্রও কোনো বিশেষ ধর্মের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত নয়। পাশ্চাত্য নৈতিক আদর্শের প্রবর্তক সক্রেটিস প্রকৃতিবাদ ধর্মের ঐশ্বরিক কল্পনায় বিশ্বাস না করার জন্য খুন হয়েছিলেন। মধ্যযুগের শেষভাগে মনুষ্যবাদ এবং যুক্তিপূর্ণ পরমার্থবাদ ধর্মের গোঁড়ামী এবং ঐশ্বরিক মোহের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালায়। প্রাচীণকালের এবং আধুনিক নীতিশাস্ত্রের অপরিবর্তনীয় এবং একনিষ্ট আদর্শ মূলত অন্ধবিশ্বাস। এই বিশ্বাস মানুষের স্বভাবজাত এবং একেই মানুষের শ্রেষ্ঠ নৈতিক আদর্শ হিসেবে মেনে নেওয়া হয়। কিন্তু দার্শনিক চিন্তাধারা হিসেবে এটা অত্যন্ত ক্ষতিকর। সুতরাং পরোক্ষ

একটি তেঁতুল গল্প!


দীর্ঘদিন ইস্টিশন ব্লগ থেকে দূরে ছিলাম। আমার একটি লিখা মুমিনদের অনুভুতি ছিদ্র করে সাত আসমানে আল্লাহর কাছে জিব্রাঈল পৌছে দিয়েছে!! আল্লাহ্ এখনো আমায় তার চরণের তলে ডাকে নাই, ডাকিলে বেক্কেরে জানাইবো। "সেসব কথা থাক"

কিছুদিন আগে সিলেটের এক চায়ের দোকানে বসে সিগারেট খাচ্ছিলাম, পাশেই বসা ছিলো এক মুরব্বী টাইপের সাদা "দড়ি" থুক্কু দাড়ি, পরনে সাদা পাঞ্জাবী ও পায়জামা, আর আমার সামনে মধ্য বয়স্ক দুই ব্যাক্তি আর আমার ডান পাশে বৃদ্ধ চা বিক্রেতা।

আলোচনার ট্রফিক ছিলো "আল্লামা শফি"

গ্রীক দেবীর মূর্তি ও রাষ্ট্রীয় প্রধানমন্ত্রী


জঙ্গি ও মৌলবাদী সংগঠন হেফাজতে ইসলাম সুপ্রিমকোর্ট এর সামনে থেকে গ্রীক দেবীর মূর্তী সরিয়ে ফেলতে বর্তমান সরকারকে হুমকি দিয়েছে। হ্যা দিবেই তো! কেন দিবে না? সরকারী আমলারা স্বীকার করেছে পাঠ্য বইয়ের পরিবর্তন করা হয়েছে হেফাজতের নির্ধারিত সিডিউল মতো। বাহ্ হেফাজতে ইসলাম সত্যি সত্যি ইসলাম রক্ষায় লুঙ্গি বেধে নেমেছে! তবে এইবার হেফাজত চক্র নেমেছে সুপ্রিমকোর্টের মূর্তি সরাতে, আর সেটাও বাস্তবায়ন হবে কোন সন্দেহ নেই।

তবে হেফাজতকে যেভাবে আশকারা দেওয়া হচ্ছে, আমলা-কামলা স্বয়ং মন্ত্রীরাও তাদের তোষামোদ করে।

কোরআনের উপর প্রশ্রাব ও আসাদ নুরের উগ্রতা!


বেশ কিছু দিন ধরে ফেসবুক সহ বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমে আসাদ নুর নামের এক নাস্তিক কে নিয়ে চলছে সমালোচনা। বাংলাদেশের কয়েকটি অনলাইন ও জাতীয় পত্রিকায় ঠাই পেয়েছে আসাদ নুরের নিউজ! এবং আসাদ নুরকে ধরিয়ে দিতে পারলে দুই লাখ টাকা দিবে এমন একটি ভিডিও দেখে আশ্চর্য হয়েছি, আবার রাষ্ট্র প্রভুদের এক আন্ডা বাচ্চাও নাকি তার ফাঁসি চেয়েছে। সার্কাস মার্কা দেশ! নতুন করে কিছু বলার নেই....

যে দিকেই যাই আসাদ নুরকে নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা। কেউ তার সাহসীকতা ও উগ্রতাকে প্রশ্রয় দিেচ্ছ এবং আরেক পক্ষ গালি দিয়ে আসাদ নুরের চৌদ্দগোষ্ঠি উদ্ধার করছে।

আমি নিজেকে কখনো কমিউনিস্ট বলে দাবি রাখি না......


আমি কখনো নিজেকে কমিউনিস্ট দাবি করিনি কারন আমি জন্মগত ভাবেই কমিউনিস্ট, জন্মের পর থেকেই সর্বহারা। আমার জন্মের কিছু বছর পর যখন আমি বুঝতে শুরু করি সমাজে তিন শ্রেণীর মানুষ বসবাস করে- উচ্চবিত্ত শ্রেণী, মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত শ্রেণীর। আমি জানতে শুরু করি কেউ বড় লোক আর কেউ ছোট লোক। আমার চারপাশে কেউ পেট ভরে খায় আর কেউ না খেয়ে মরে। আমি আমার পরিবার থেকেই জানতে শুরু করি, উপোস থাকা আমাদের ফ্যাশন আর রোজা রাখা ধর্মের কাজ! কত ভঙ্গির বড়লোকই না দেখলাম, তবে কেউই মনের দিক থেকে নয়! সেই উচ্চবিত্ত জ্ঞানপাপীরা যদি বড় মনের হতো আজ রাস্তায় মানুষ ঘুমোতো না আজ কেউ না খেয়ে মরতো না।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

আব্দুর রহিম রানা
আব্দুর রহিম রানা এর ছবি
Offline
Last seen: 2 দিন 17 ঘন্টা ago
Joined: রবিবার, ডিসেম্বর 18, 2016 - 12:55পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর