নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • জীহান রানা
  • দীব্বেন্দু দীপ
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • জয়বাংলা ১৯৭১

নতুন যাত্রী

  • বিদ্রোহী মুসাফির
  • টি রহমান বর্ণিল
  • আজহরুল ইসলাম
  • রইসউদ্দিন গায়েন
  • উৎসব
  • সাদমান ফেরদৌস
  • বিপ্লব দাস
  • আফিজের রহমান
  • হুসাইন মাহমুদ
  • অচিন-পাখী

আপনি এখানে

রুদ্র মাহমুদ এর ব্লগ

পুরুষ বিদ্বেষী না হলে পুরুষতন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়াই করা যায় না।


কোন কিছু নিয়ে আজকাল লিখছি না। লিখছি না অবশ্য তা নয় বরং অনেক কিছু লিখতে চাইলেও সময়ের অভাবে লিখতে পারছি না। অনেক কথা-ই মস্তিস্কে ঘুরপাক খাচ্ছে। তবুও আজ খানিকটা সময় পেলাম বলে লিখতে বসলাম। সমসাময়িক নানা বিষয় আছে, অনেকে তুমুলভাবে লিখছেও বটে। তাই আমার মত মামুলি লোকজন তা নিয়ে না লিখলেই বোধ করি ভাল হয়।
যা হোক, আসল কথায় আসি।
গত কয়েক দিন যাবত বেশ দৌড়াদৌড়িতে আছি।

বিশ্বাস, আস্থা ও ধর্ম ; আমার দৃষ্টিভঙ্গিমূলক আলোচনা।



মানুষ একটা সময় অসভ্য ছিলো। আকাশ হতে বজ্রপাত বর্ষিত হলে ভয় পেতো। এবং ভাবতো উপর হতে যেতে বর্ষিত হলো তবে নিশ্চই ওপরে কেউ আছে! ঠিক সে মূহুর্তের জন্য ঈশ্বর চিন্তা আসে মানুষের মানসে।

যৌনতা প্রয়োজন নাকি গুরুত্বপূর্ণ?


গুরুত্বপূর্ণ আর প্রয়োজন নিয়ে মানুষের অজ্ঞতা দেখে হাসবো না কাঁদবো ঠিক বুঝি না। এরা প্রয়োজন আর গুরুত্বপূর্ণকে এতটা মাখিয়ে ফেলে যে প্রয়োজনটা গুরুত্বপূর্ণ না হলেই নয়।

এরা বুঝতেই চায় না সব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় প্রয়োজন কিন্তু সব প্রয়োজন গুরুত্বপূর্ণ নয়। ঠিক বুঝি না কি কারণে তারা এরূপ হ-য-ব-র-ল ভাবে প্রয়োজন আর গুরুত্বপূর্ণকে এক করে ফেলে।
প্রয়োজন আর গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আসুন একটু ক্লিয়ার হই।

মা, আমায় ক্ষমা করো!


বাবার হাতে মা নির্যাতিত হচ্ছে। প্রতিদিন, প্রতি রাতে। কোন না কোন কারণে বাবা সন্তানের চোখের সামনে মা'কে মারছে। সন্তানের বয়স তখন কত? ৮/১০ বছর বয়স। এই কচি বয়সে একটা ভয়ার্ত রূপ, বাবাকে সে দেখছে ভয়ে চুপসে যাওয়া তার মা'কে। প্রতিদিন, প্রতি রাতে তার মা ভয়ে চুপসে যায়। অথচ তার বাবা! ভয়ংকর সব অপরাধ করেও দানবের মত হুংকার ছেড়ে (শুওরের বাচ্চা, কুত্তার বাচ্চা) পিটাচ্ছে, থাপড়াচ্ছে কখনও বা চুল ধরে ধাক্কা কিংবা লাথি দিয়ে মাটিতে ফেলে দিচ্ছে।
সন্তানটি দেখে যাচ্ছে। চোখ বন্ধ করে রাখছে, যাতে দেখতে না হয় পিতার ভয়ংকর রূপ না দেখতে হয় মাতার ভয়ে চুপসে যাওয়া মুখ।

ঘুষ দেয়া-নেয়া অপরাধ; রম্য নাটক মঞ্চস্থ হলো নারায়ণগঞ্জে।


"

ঘুষ দেয়া ও নেয়া উভয়ই সমান অপরাধ" বিজ্ঞাপনে দেখে থাকি, ঘুষ দিলে ও নিলে পুলিশ উভয়কেই গ্রেফতার করে। কেননা উভয়ই সমান অপরাধে অপরাধী। কিন্তু আমার বিবেচনায় যে ঘুষ দেয় সে সব চেয়ে বড় অপরাধী। কেননা যে ঘুষ দিলো সে যদি ঘুষ না দিয়ে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতো তবে ঘুষ যে নিলো সে নেয়ার কোন সুযোগ পেতো না। বরং আপনি প্রতিবাদ না করে ঘুষ দিয়ে তাকে উৎসাহী করলেন। সুতরাং যে ঘুষ নিলো তার থেকে যে ঘুষ দিলো সে বেশি অপরাধী।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

রুদ্র মাহমুদ
রুদ্র মাহমুদ এর ছবি
Offline
Last seen: 1 month 1 ঘন্টা ago
Joined: মঙ্গলবার, নভেম্বর 29, 2016 - 1:57অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর