নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 9 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • পৃথু স্যন্যাল
  • শ্যাম পুলক
  • ইকারাস
  • চূড়ান্ত
  • তায়্যিব
  • মোঃ মেজবাহ উদ্দিন
  • রাফিন জয়
  • নীল জোনাকি
  • জীহান রানা

নতুন যাত্রী

  • ষঢ়ঋতু
  • এনেক্স
  • আরিফ ইউডি
  • গলা বাজ
  • হুসাইন
  • তারুবীর
  • অন্তরা ফেরদৌস
  • শেখ সাকিব ফেরদৌস
  • প্রাণ
  • ফেরদৌস সজীব

আপনি এখানে

শ্যাম পুলক এর ব্লগ

ধর্ষকের মনস্তত্ত্ব


প্রথমতঃ
আমি জানতাম আমার কিছু হবে না; পৃথিবীতে এমন কেউ নেই যে আমার কিছু করবে।

অতঃপর
যখন মামলা হয়েও হলো না, হাজার হাজার মানুষ পথে নেমেও সরে গেলো, কিছু করতে চেয়েও করলো না, তখন দিনভর আয়না দেখা ছাড়া আমার কিছুই করার রইলো না। নিজেকে দেখে যতোটা আমোদ পেলাম তা কোনোভাবেই পেতাম না।

পূর্বকথা
ইতিহাসটা আমার খুব ভালোভাবেই জানা আছে। জানতাম মনে কোন বোধটা ধরে রাখতে হবে। কারণ পৃথিবীতে ঠিক যখনই আমার মত মানুষের সংখ্যা বেশি ছিল তারা সবাই এই বোধটা ধারণ করেছিল। যখন যুদ্ধ লেগে যায়, তখন যে নিজেকে রাজা বলতে পারে সেই রাজা। সে যা ইচ্ছে তাই করতে পারে।

ব্যথিত খুনির প্রতি, সাইকিক প্রতিকার; সুইসাইড ফ্যাক্ট


যেটা তুমি করতে পারো, তা হল একটা চরিত্র সৃষ্টি করলে আর তাকে দিয়েই খুনটা করালে। খুনের পর তুমি নিজেই খুনিকে ফাঁসি দিয়ে দিলে। প্রতিটা খুনের আগে একটি করে চরিত্র সৃষ্টি করলে, নিজের ভিতরেই, আর খুনের পর তাকে ফাঁসি দিলে।

পেশা হিসেবে নেয়াটা একটা সহজ প্রথা; এটা সহজেই ভাবতে পারো, টিকে থাকার জন্য মানুষ যেকোন কিছু করতে পারে, করেও;

সংবিধানতত্ত্ব; একবিংশ সংশোধনী(আধিপত্যবাদ)


আমি তোমাকে স্বাধীনতা দিতে চাই, সেটা অবশ্যই আমার মত করে। তোমার প্রতিটা পদক্ষেপের ডিজাইন আমি করবো। আর আমি চাই তোমার মত প্রকাশের অধিকার থাক, সেটা যেভাবে আমি ভেবেছি, নতুন কিছু নয়।
মানুষ যখন কথা বলার অধিকার পর্যন্ত পায় না, আমার খুব খারাপ লাগে। তুমি যা বলতে চাও বলে ফেলো, তুমি তো জানোই আমি কি পছন্দ করি না, আর কি শুনলে আমার বিরক্ত লাগে, রাগ হই।
তুমি কীভাবে চলছো, কি পড়ছো, তা একান্তই তোমার ব্যাক্তিগত ব্যাপার, তুমি তো তোমার আভিজাত্য বজায় রাখবে, কি বলো? দেখেছোই তো ওরা কি বিশ্রীভাবে চলে। সম্মান দেখানোটা কিন্তু খারাপ কিছু না!

শিরোনামহীন


অতঃপর তার সাথে যা করা হবে, সবাই বিভিন্নভাবে বলবে, তারা ওকে কতো বেশি ভালোবাসে! সেটা বুঝাতেও চেষ্টা করবে। আর, সে যেহেতু জন্মেছে এবং সে জীবিত, ভালোবাসা তার খুব দরকার; হয়তো খাবার থেকেও বেশি দরকার- এটা সবাই মানে। এ কারণে একটা বয়স পর্যন্ত তাকে যা বলা হবে সে তাই করতে বাধ্য থাকবে; তবে এই বয়সটা কেউ নির্দিষ্ট করে দেবে না। এটা এমন যে, সবকিছু মেনে নিতে নিতে একটা সময় সে বোর হয়ে যাবে; ফলে সে কোনভাবেই আর তা মানতে চাবে না, নতুন কিছু করতে চাবে, হয়তো বিপরীত কিছুই। সবাই তাকে বুঝাতে চাইবে, রাগবে, ভয় দেখাবে; শেষে যখন কিছুতেই কিছু হবে না, তারা দ্বিতীয় অধ্যায় শুরু করবে;

বোর্ডিং কার্ড

শ্যাম পুলক
শ্যাম পুলক এর ছবি
Online
Last seen: 5 min 22 sec ago
Joined: বুধবার, অক্টোবর 19, 2016 - 11:24পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর