নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • নাসিম হোসেন
  • মিঠুন সি দাস
  • সংবাদ পর্যবেক্ষক

নতুন যাত্রী

  • নওসাদ
  • ফুয়াদ হাসান
  • নাসিম হোসেন
  • নেকো
  • সোহম কর
  • অজিতেশ মণ্ডল
  • আতিকুর রহমান স্বপ্ন
  • অ্যালেক্স
  • মিশু মিলন
  • আগন্তুক মিত্র

আপনি এখানে

মলি এর ব্লগ

জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষার পথে বাংলাভাষা


বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করার চেষ্টা চলছে। বাংলাকে জাতিসংঘ দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে যাতে গ্রহণ করে এরজন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বাংলা ভাষা ব্যবহারে সকলকে বিশেষ করে নতুন প্রজন্মকে বাংলা শব্দের বানান ও উচ্চারণ সর্ম্পকে আরো সতর্ক হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, ইদানিং বাংলা বলতে গিয়ে ইংরেজি বলার একটা বিচিত্র প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। জানি না, অনেক ছেলে-মেয়ের মাঝে এখন এটা সংক্রামক ব্যাধির মতো ছড়িয়ে গেছে। এভাবে কথা না বললে যেন তাদের মর্যাদাই থাকে না, এমন একটা ভাব। তিনি বলেন, এই জায়গা থেকে আমাদের ছেলে-মেয়েদের বেরিয়ে আসতে হবে। যখন যেটা বলবে সঠিকভাবেই উচ্চারণ করবে এবং বলবে। তিনি ভাষা আন্

অস্থির মাংসের বাজার


অস্থির হয়ে উঠেছে মাংসের বাজার। মাংসের দাম বাড়ার নেপথ্যে যেসব কারণ রয়েছে তা খতিয়ে দেখা দরকার। পর্যালোচনা করলে দেখা যায় গাবতলী গরুর হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায় বন্ধ, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তাকে অপসারণসহ চার দফা দাবিতে গত সপ্তাহে মাংস বিক্রেতাদের ছয় দিনের ধর্মঘট শুরু হয়। এই ধর্মঘটের কারণে ঢাকার বিভিন্ন কাঁচাবাজারের মাংসের দোকানগুলো বন্ধ থাকে। দেশের মানুষের আমিষের চাহিদা মিটাতে বিদেশ থেকে গরু আমদানি করতে হয়। এই আমদানির ক্ষেত্রে অনেক সময় বৈধ পথ অনুসরণ করা হয় না। ফলে ঘাটে ঘাটে চাঁদাবাজি আর দুর্নীতির শিকার হতে হয় ব্যবসায়ীদের। এতে ব্যবসায়ীর খরচ

হচ্ছে উন্নতি বাড়ছে ভাবমূর্তি ও সন্মান


বাংলাদেশ এখন দিনে দিনে উন্নতির দিকে যাচ্ছে। দেশের অর্থনীতির থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রে শুধু উন্নয়ন আর উন্নয়ন। বর্তমান সরকার পরিবেশ রক্ষায় সচেতন। সরকার পরিবেশের উন্নয়নে সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে এবং নিচ্ছেন। পূর্বে দেশের উন্নয়নে কোন কাজ করতে গেলে অর্থায়নে সব সময় অন্য দেশের উপর নির্ভর করতে হত কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশের উন্নয়নে অন্য কোনো দেশের সহায়তার প্রয়োজন নেই। এখন নিজেদের অর্থায়নে সব উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন হচ্ছে। পরিবেশ উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন বিদেশি সহায়তা নিচ্ছে না। এটা আমাদের জন্য গর্বের একটি বিষয়। পরিবেশ রক্ষায় সরকারের উদ্যোগে বাংলাদেশ একটি ফান্ড গঠন করেছে। চুক্তি অনুযায়ী সেই ফান্ডে প্র

বহু চ্যালেঞ্জেও এগিয়ে যাচ্ছে দেশ


২০১৬ সালে চালু হয়েছিল এসডিজি বা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা। শুরু হয়ে গেছে প্রতিযোগিতার ঘোড়দৌড়। এমডিজি বাস্তবায়নে ব্যাপক সাফল্যের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ এ দৌড়ে সামনের সারিতে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তির আগেই যে বাংলাদেশ মধ্য আয়ের দেশ হওয়ার আকাঙ্ক্ষা ব্যক্ত করেছে সরকার সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। দক্ষিণ বিশ্ব ও বিশেষত মুসলিম প্রধান দেশগুলোর মধ্যে যে কারণে বাংলাদেশ আলাদা, তা হলো বারবার এ দেশের সরকার পরিবর্তন হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ একটি দরিদ্র ও নারীবান্ধব নীতি অনুসরণ করে এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা এবং বেসরকারি ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন অংশীদারদের সঙ্গে সহযোগিতামূলক সম্পর্ক বজায় রাখা। বাংলাদেশই সম্

সত্য চাপা থাকেনা, বেরিয়ে আসবেই


সৎ মানুষ যেমন শেষ অবধি বিজয়ী হন, সৎ রাজনীতি যেমন শেষ পর্যন্ত জয়ী হয়, মিডিয়ার সঠিক অংশকেই শেষ অবধি মনে রাখে মানুষ। যেমন আজ আমেরিকায় মিডিয়ার যে অংশ রেসিইজমের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে তারাই কিন্তু ইতিহাসে টিকে থাকবে। ইতিহাসের যে কোন ওলট পালট সাময়িক, সত্যই শেষ ঠিকানা। যেমন পাঁচ বছর না যেতেই কানাডার আদালত বাংলাদেশের এক শ্রেণীর মুখে চুনকালি দিয়ে উন্মোচন করল সত্য। কানাডার আদালতে পদ্মা সেতুর কথিত দুর্নীতি মামলা খারিজ হওয়ার ভেতর দিয়ে অনেক দিক সামনে এলো। বাংলাদেশ ও বর্তমান সরকার একটি মিথ্যা দুর্নীতির অপবাদ থেকে মুক্তি পেল। জাতি হিসেবে বাঙালী সম্মানিত হলো, অন্তত বিশ্বের কাছে প্রথমবারের মতো প্রমাণিত হলো

অবসর যাপনের নতুন স্থান


অবসর যাপনের জন্য খোঁজ পাওয়া গেছে নতুন এক ঝর্ণার। নাম তার তোজেংমা। আর দে-ছুটের ভ্রমণ পাগলারা নতুন কোন প্রকৃতির টানেই ঘর ছাড়তে পছন্দ করে যারা। যেতে হবে ঢাকা থেকে প্রকৃতির রাজা খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা। কি ভাবে যাবেন, ঢাকার গাবতলী-ফকিরাপুল-সায়েদাবাদ হতে দিনে রাতে প্রতিদিন খাগড়াছড়ি ও দীঘিনালা বিভিন্ন পরিবহনের এসি/নন এসি বাস ছেড়ে যায়। ভাড়া ৫২০-৫৮০ টাকা, এসি ৯০০ টাকা মাত্র। দীঘিনালা হতে মোটরবাইকে আলমগীর টিলা। ভাড়া জনপ্রতি ৫০ টাকা। যাওয়ার সময়ই ফেরার বিষয়টা মোটর বাইক চালকের সঙ্গে ঠিক করে রাখুন নতুবা গাড়ি পেতে ঝামেলা হবে। কোথায় থাকবেন, দীঘিনালা বাজারে বিভিন্ন গেস্ট হাউস রয়েছে। ভাড়া ৫০০ টাকা হতে ১৫০০

ভারত-বাংলাদেশ যৌথ আয়োজনে উচ্চক্ষমতার টার্মিনাল হচ্ছে আশুগঞ্জে


সারা বিশ্ব এখন মুক্তবাজার অর্থনীতিতে বিশ্বাসী। এক দেশের বন্দর আরেক দেশের ব্যবহার করা অতি স্বাভাবিক। আমাদের চট্টগ্রাম নৌবন্দর ব্যবহার করছে অন্য দেশ। আর আমরাও ব্যবহার করছি অন্য দেশের নৌবন্দর। আঞ্চলিক বাণিজ্য সহযোগিতার দিক দিয়ে এ কনটেইনার টার্মিনাল হবে কেন্দ্রবিন্দু। টার্মিনালটির সঙ্গে সরাসরি মেঘনা নদীপথে মংলা ও চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর যুক্ত থাকবে। যুক্ত থাকবে আশুগঞ্জ-আখাউড়া ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক এবং ভৈরব রেলস্টেশন। দেশের গুরুত্বপূর্ণ নৌবন্দর ও বাণিজ্যিক এলাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ। এখানে গড়ে উঠেছে দেশের বৃহত্তম বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র। গড়ে উঠেছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সার কারখানা, বৃহত্তম গ্

কৃষি পণ্য রফতানিতে বাংলাদেশের সাফল্য


কৃষিই কৃষ্টি। এ দেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি। কৃষিতে উন্নতির কারণে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। কৃষিকে এগিয়ে নিতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে একাধিক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠান। বর্তমানে বাংলাদেশের উৎপাদিত কৃষি পণ্য দেশের অর্থনীতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখছে। ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম ৭ মাসে কৃষি পণ্য রফতানিতে আয় হয়েছে ৩০ কোটি ৮১ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার বা

কিশোর অপরাধ


ইদানীং আশঙ্কাজনক হারে কিশোরদের সম্পৃক্ততা বাড়ছে ভয়ংকর সব অপরাধে। দেশজুড়ে হত্যা, ধর্ষণ, যৌন হয়রানি, চাঁদাবাজিসহ নানা অপরাধে জড়াচ্ছে উঠতি বয়সীরা। এ জন্য তথ্য-প্রযুক্তির অপব্যবহার ও মা-বাবার অসচেতনতাকেই সবার আগে দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের হিসেবে ছোটবেলা থেকে শিশুদের সঠিক পরিচর্যা, ভালোভাবে বেড়ে উঠতে উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করা, পারিবারিকভাবে তাদের সামনে উন্নত আদর্শ তুলে ধরা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করা এবং তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করে এসব অপরাধ থেকে কিশোরদের বিরত রাখা সম্ভব। পাশাপাশি সামাজিকভাবে সচেতনতা বৃদ্ধি ও শিশু-সংক্রান্ত আইনগুলোর যথাযথ বাস্তবায়নের মাধ্যমেও এ ধর

নতুন প্রজন্মে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ


স্বাধীনতার এতটা বছর পরও স্বাধীনতা বিরোধীরা থেমে থাকেনি। বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৪৪ বছর পরেও এসে স্বাধীনতা বিরোধীরা স্বাধীনতার বিরুদ্ধে, শহীদের রক্তের বিরুদ্ধে, বাংলাদেশের স্থপতির বিরুদ্ধে দম্ভোক্তি করে কথা বলার সাহস পায়। কারণ এটা ৭৫ এর ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকাণ্ডের কুফল। সেইদিন যারা হত্যার মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে সেই সেনাশাসক অবৈধ সৈরাশাসক ও তাদের স্বাধীনতা বিরোধী কর্মকাণ্ডের সুবিধা ভোগি রাজনৈতিক দল রাজাকার আলবদর আলসাম তথা স্বাধীনতা বিরোধী বাংলাদেশে নিষিদ্ধ জামাত ইসলামিকে প্রতিষ্ঠিত করা এবং ৩৩ বছর এই অবৈধ ভাবে জন্ম নেওয়া রাজনৈনিতক দলের কর্মের চরম কুফল, আর এই কুফলের কারনে গত ৩৩ বছর শাসনে একটি প

পৃষ্ঠাসমূহ

Facebook comments

বোর্ডিং কার্ড

মলি
মলি এর ছবি
Offline
Last seen: 14 ঘন্টা 12 sec ago
Joined: সোমবার, অক্টোবর 17, 2016 - 10:53পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর