নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মলি
  • পৃথ্বীরাজ চৌহান
  • দ্বিতীয়নাম
  • নীল কষ্ট
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • কুমার শাহিন মন্ডল
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • অনন্ত দেব দত্ত

নতুন যাত্রী

  • মাষ্টার মশাই
  • লিটন
  • অনন্ত দেব দত্ত
  • ইকরামুল হক
  • আবিদা সুলতানা
  • ইবনে মুর্তাজা
  • কুমার শাহিন মন্ডল
  • ঝিলাম নদী
  • কিশোর ফয়সাল
  • উসাইন অং

আপনি এখানে

মলি এর ব্লগ

ভেহিকেল মাউন্টেড ডাটা ইন্টারসেপ্টর


সুদূরপ্রসারী ভাবনা উজ্জীবিত বর্তমান সরকার অনেক আগেই ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের ঘোষণা দিয়েছে। তবে জবাবদিহিতায় বিশ্বাসী এই সরকার শুধু কথায় নয়, কাজেও বিশ্বাসী। বর্তমানে ক্রমঅগ্রসারমান সভ্যতার সাথে তালমিলিয়ে চলতে গেলে প্রযুক্তি সক্ষমতার উন্নয়নের কোনো বিকল্প নেই। তাই বিশ্বের তথ্য প্রযুক্তির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এবার রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে একটি অত্যাধুনিক যন্ত্র সংযোজনের উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে সরকার। এই যন্ত্রটি একদিকে যেমন বেশ কিছু বিষয়ে আগাম তথ্যের পূর্বাভাস দেবে, তেমনি দেবে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিরাপত্তা জোরদার করার ব্যাপারে সক্রিয় সহযোগিতা। অত্যাধুনিক এই যন্ত্রটি হচ

রেলের কক্সবাজার যাত্রা


অবকাঠামো উন্নয়নে গৃহিত বর্তমান সরকারের একেক পর এক মেগাপ্রকল্পের জোয়ারে বিগত কয়েক বছরে দেশের সার্বিক চিত্র ক্রমশঃ যেভাবে বদলে যাচ্ছে তাতে সেদিন খুব দূরে নয় যখন বাংলাদেশ হয়ে উঠবে পৃথিবীর অন্যতম সমৃদ্ধ অবকাঠামোর রাষ্ট্র। এরই ধারাবাহিকতায় অন্যান্য মেগাপ্রকল্পের পাশাপাশি জোরেশোরে চলছে কক্সবাজার পর্যন্ত রেললাইনে সম্প্রসারণের কাজ। এপ্রিল ২০১৭ থেকে শুরু হয়ে ২০১৮ সালের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে দোহাজারী থেকে পর্যটন নগরী কক্সবাজার পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণের কাজ। বস্তুত রেলের উন্নয়ন মানে রাষ্ট্রের উন্নয়ন, রাষ্ট্রের মানুষের উন্নয়ন। দেশের বৃহৎ জনগোষ্ঠির যোগাযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা সম্ভব একমাত্র রেলের ম

কমছে পেনশন ও আনুতোষিক উত্তোলনে হয়রানি


অবসরপ্রাপ্ত সরকারি চাকরিজীবীদের হয়রানি কমাতে এখন থেকে ‘৬৩০০-অবসর ভাতা ও আনুতোষিক’ খাতের বরাদ্দ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের পরিবর্তে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের বাজেটে স্থানান্তর করা হয়েছে। এর ফলে পেনশন ও আনুতোষিক উত্তোলনে হয়রানি কমছে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং এর অধীনস্ত দফতরসমূহের অবসর ভাতা ও আনুতোষিকসহ সংশ্লিষ্ট ভাতা, যেমন- উৎসব ভাতা, মহার্ঘ্য ভাতা, বাংলা নববর্ষ ভাতা, চিকিৎসা সুবিধা বর্তমানে নিজ নিজ মন্ত্রণালয়ের বিপরীতে বরাদ্দ ও হিসাবায়ন করা হচ্ছে। সরকারি পেনশন পদ্ধতি সংস্কারের অংশ হিসেবে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট থেকে এ ব্যবস্থার পরিবর্তন আনা হয়েছে। একজন সরকারি চাকরিজীবী অব

স্বীকৃতি পাচ্ছেন অনন্য অবদানের


বাংলাদেশে নারীরা কর্মক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে।যে যার অবস্থান থেকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে এবং তার পুরুস্কারও পাচ্ছে। শুধু শিক্ষাক্ষেত্রে নয়, প্রশাসনিক ক্ষেত্রে কিংবা সামরিক বাহিনীতেও তারা কাজ করে সফলতা অর্জন করেছে। বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতেও তারা সৎ ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। তাদের মেধা ও মননশীলতা দিয়ে অর্জন করছেন অনেক খেতাব, তারই ধারাবাহিকতায় কর্মক্ষেত্রে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে‘বাংলাদেশ পুলিশ উইমেন অ্যাওয়ার্ড-২০১৭’পাচ্ছেন ২১ নারী পুলিশ সদস্য ও দুটি প্রতিষ্ঠান। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মিরপুরে পুলিশ স্টাফ কলেজের কনভেনশন হলে এক অনুষ্ঠানে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। আন্তর

বিদ্যুৎ প্রকল্পে বিনিয়োগ ১০০ কোটি ডলার


দেশের উন্নয়নে বিদ্যুতের প্রয়োজনীয়তা অপরিহার্য। বিদ্যুৎ ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। বিদ্যুতের উন্নয়নে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় ভুটানে জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে ১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগে সম্মতি দিয়েছে বাংলাদেশ। ভারতকে সঙ্গে নিয়ে ত্রিপক্ষীয় ওই প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশ আগামীতে ভুটান থেকে প্রায় এক হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়ার আশা করছে। ২০২১ সালের মধ্যে সারা দেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দিতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। বর্তমানে বিদ্যুৎ উৎপাদন ১৪ হাজার মেগাওয়াট ছাড়িয়ে গেছে। সরকার ২৫ হাজার মেগাওয়াট উৎপাদন টার্গেট নিয়ে কাজ করছে। দেশের অর্থনীতি দ্রুত এগিয়ে য

সহযোগিতার নতুন দিগন্ত উন্মোচিত


বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সহযোগিতার নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে। ২২টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। বহুল আলোচিত প্রতিরক্ষা সহযোগিতাবিষয়ক তিনটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এছাড়া প্রতিরক্ষা ঋণ সহায়তাবিষয়ক একটি সমঝোতা স্মারকও স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ নিয়ে প্রতিরক্ষাবিষয়ক সমঝোতা স্মারকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চারটি। এছাড়া আর যেসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে তার মধ্যে মহাকাশের শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, আণবিক শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, পরমাণু নিরাপত্তা, পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র, তথ্যপ্রযুক্তি, যোগাযোগ প্রযুক্তি, বিচারিত ক্ষেত্রে সহযোগিতা ও বিচ

ফেসবুক থাকবে ......


দুনিয়ায় কোনো কিছুর প্রতি অতিরিক্ত আসক্তিকে নেশা বলা হয়। বস্তুত কোনো নেশাই ভালো নয়। যদি কোনো ভালো কিছুর প্রতিও নেশা হয়, তাও ভালো নয়। কারণ অতিরিক্ত আসক্তি স্বাভাবিক জীবন ব্যাহত করে। পরিবার ও সমাজে অশান্তি সৃষ্টি হয়। বর্তমানে এদেশে টিভি সিরিয়াল দেখার নেশার পাশাপাশি যে নেশাটি ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে তা হচ্ছে ফেসবুকে আসক্তি। তবে শুধু আমাদের দেশেই নয়, এই নেশার আগ্রাসন এখন বিশ্বব্যাপী চরম আকার ধারণ করেছে। আধুনিক জীবনের সাথে সম্পৃক্ত অধিকাংশ মানুষই তাদের দৈনন্দিন জীবনের একটি উল্লেখযোগ্য সময় এখন ফেসবুকে ব্যয় করে। অথচ যাপিত জীবনে সময় যে কত মূল্যবান তা আমাদের বোঝা উচিত। দুনিয়ার সব কিছু ফেরত পাওয়া গেলেও

এশিয়ার নতুন বাঘ


উন্নয়নের পথে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার প্রশংসা চলছে গত এক দশক ধরেই। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের এক প্রতিবেদন বলছে, অর্থনীতিতে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত যা করেছে, তা কিছুই না। আগামীতে এশিয়াতে বাংলার অর্থনীতি হবে আরও শক্তিশালী, আরও সমৃদ্ধ। তারা বলছে, এশিয়ার বাঘ হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। গত এক দশকে গড়ে ছয় শতাংশের থেকে বেশি বার্ষিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতি এশিয়াতে উদীয়মান শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। বাংলাদেশের এই প্রবৃদ্ধির অন্যতম একটি অংশ এসেছে তৈরি পোশাক রপ্তানি থেকে। সিআইএ ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুক এর তথ্যমতে যা দেশের মোট রপ্তানির আশি শতাংশেরও বেশি।খারাপ অবকাঠামো সারাদেশে পণ্য বহনে বা

অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য পথপ্রদর্শক হবে বিইউপি


২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) জাতীয় গণ্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন একটি বিশ্ববিদ্যালয় হবে। সেই লক্ষ্যে সশস্ত্র বাহিনীর অফিসার ও বেসামরিক শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। বিইউপির শিক্ষা ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য ‘বিইউপি রূপকল্প ২০৩০’ প্রণয়ন করা হয়েছে, যার বাস্তবায়ন ৩টি পর্যায়ে প্রক্রিয়াধীন। ১ম পর্যায় ২০১৫ হতে ২০২০ সাল পর্যন্ত, ২য় পর্যায় ২০২০ সাল হতে ২০২৫ পর্যন্ত এবং ৩য় পর্যায়ের ব্যাপ্তি ২০২৫ হতে ২০৩০ সাল পর্যন্ত। মহামান্য প্রেসিডেন্ট ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী এ রূপকল্প নেয়া হয়েছে। বিইউপি দেশের উচ্চশিক্ষায় এমনভাবে

বৈশাখে বর্ষবরনের পথ চলা


জাতিসংঘ শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা (ইউনেস্কো) -এর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে বাংলা নববর্ষের অন্যতম অনুষঙ্গ ‘মঙ্গল শোভাযাত্রা’। ইউনেস্কোর নির্বাচিত ‘ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ অব হিউম্যানিটি’ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এই শোভাযাত্রা। বিশ্বের ঐতিহ্য রক্ষায় আন্তঃদেশীয় কমিটির একাদশ বৈঠকে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করে ইউনেস্কো। মঙ্গল শোভাযাত্রা ‘রিপ্রেজেন্টেটিভ লিস্ট অব ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ অব হিউম্যানিটিস’-এর অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। ১৯৮৯ সালে শুরু হওয়ার সময় অবশ্য এর নাম ছিল আনন্দ শোভাযাত্রা, পরবর্তীতে ১৯৯৬ সাল থেকে চারুকলার এই আনন্দ শোভাযাত্রা ‘মঙ্গল শোভাযাত্রা’হিসেবে নাম লা

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

মলি
মলি এর ছবি
Online
Last seen: 8 min 7 sec ago
Joined: সোমবার, অক্টোবর 17, 2016 - 4:53অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর