নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 2 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মারুফুর রহমান খান
  • মিঠুন বিশ্বাস

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

রাজর্ষি ব্যনার্জী এর ব্লগ

শান্তিপূর্ণ সুফিবাদ ও ইসলামী কাশ্মীর :১


আজাদ কাশ্মীরের আন্দোলনকারী শান্তিকামী মুসলমানদের জন্য বিশ্বব্যাপী মডারেটদের হৃদয় ভেঙে যায়, চোখ ভিজে ওঠে জলে! আদৌ কি মুসলমানরা কাশ্মীরের ভূমিপুত্র? ইতিহাস কি বলে? সাদাকে সাদা আর কালকে কালো বলতে বা দেখতে বাঁধা কোথায়? কাশ্মীরে ইসলাম এলো কিভাবে ? যথারীতি বিশ্বব্যাপী মডারেটদের সেই এক দাবি: 'সূফীদের শান্তিপূর্ণ সহনশীল প্রচারের মাধ্যমে কাশ্মীরে ইসলাম এসেছিল।' তার সাথে অবশ্যই পৃথিবী ব্যাপী শান্তিপূর্ণভাবে ইসলাম প্রচারের জন্য সর্বজনীনভাবে সূফীদেরকে কৃতিত্ব দেওয়া !

ভারতীয় উপমহাদেশে ইসলামে ধর্মান্তর:৭


উপমহাদেশে ইসলামের বিস্তারে অমুসলিমদের উপর অর্থনৈতিক বোঝা চাপিয়ে দেওয়া ও তার ফলে ধর্মান্তকরণ (৩):

ভারতীয় উপমহাদেশে ইসলামে ধর্মান্তর:৬


উপমহাদেশে ইসলামের বিস্তারে ধর্মান্তকরণে অমুসলিমদের উপর অর্থনৈতিক বোঝা চাপিয়ে দেওয়ার ভুমিকা(২):

ইসলামের দ্বিতীয় খলীফা ওমরের চুক্তি: ইসলামের শাফী আইনশাস্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা ইমাম শাফীর ‘কিতাব-উল-উম্ম’ বলা আছে। আরবদের সিরিয়া দখলের পর খলীফা ওমরের নির্দেশে সিরিয়ার খ্রীষ্টানদের প্রধান ও খলীফার মাঝে এই চুক্তি হয়। সামাজিক-রাজনৈতিক ক্ষেত্রে বিভিন্ন বিষয়ে মর্যাদাহানিকর ও অমানবিক অক্ষমতার শর্ত যুক্ত হয়েছে এ চুক্তিতে। খলীফা ওমর সিরিয়ার খ্রীষ্টান প্রধানকে ইসলামের কাছে তাদের আনুগত্য মেনে নিতে এই চুক্তিটা পাঠায়। চুক্তির প্রধান শর্তগুলো হলো(Triton, p. 12-24):

বাংলা:দাঙ্গায় নাঙ্গা-শেষ)


সিলেটে হিন্দু হত্যা,ধর্ষণ,লুটপাট,অগ্নিসংযোগ দীর্ঘস্থায়ী হয়েছিল।২০৩ টা হিন্দু গ্রাম সম্পূর্ণ নিশ্চিহ্ন করা হয়েছিল।ধামাই,বারাধামি,পুবঘাট,বরইতলি গ্রামের মনিপুরিরাও বাদ যায়নি!। গণভোটের সময় থেকে সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ ছড়ানো হয়েছিল:হিন্দুরা যেহেতু পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে তাই তারা পাকিস্তানের শত্রু। সিলেটের মুসলিমরা আশা করেছিল আসামের করিমগঞ্জ পাকিস্তানের অংশ হবে কিন্তু সেটা ভারতেই রয়ে গেল! এরপর শুরু হলো হুমকি। ১০ই ফেব্রুয়ারি তারিখে মুসলিমরা সিলেটের প্রাণকেন্দ্র বন্দর বাজারে বিশাল একটা পোস্টার টানায়-লাঠি এবং অস্ত্র হাতে হিন্দুরা একজন মুসলিমের গলায় রশি বেঁধে টেনে নিয়ে যাচ্ছে,

বাঙাল এলো দেশে ২


১৯৭৮-এর নভেম্বর মাস নাগাদ ২৪পরগণার পুলিশ সামন্ততান্ত্রিক ব্যারিকেড তৈরি করল। মরিচঝাঁপির মানুষজন বাগনা, কুমিরমারি ইত্যাদি অঞ্চল থেকে পানীয় জল আর খাদ্যসংগ্রহ যাতে না করতে পারে। হাইকোর্ট মানবাধিকার রক্ষার জন্য পুলিশের এই বেআইনি কাজের বিরুদ্ধে রায় দিল। এবার অন্য উপায়ে খাদ্য-পানীয় সংগ্রহের দেরি ঘটিয়ে আস্তে আস্তে মানুষগুলোকে নিস্পৃহ করে দেওয়া হলো!

ভারতীয় উপমহাদেশে ইসলামে ধর্মান্তর ৫


আওরঙ্গজেব (১৬৫৮-১৭০৭) রাষ্ট্রীয় নীতির অঙ্গ হিসেবে দাসকরণ ও জোরপূর্বক ধর্মান্তরকরণকে আবার পুরো মাত্রায় ফিরিয়ে এনেছিল। নবাব সিরাজের পতনের পরেও ১৭৫৭ সালে ব্রিটিশদের বাংলা দখলের পর সমগ্র ভারতে মুসলিম শাসকদের দাসকরণ চলতে থাকে। ‘সিয়ার-উল-মুতাখিরিন’ বইটি বলছে: ' ১৭৬১ সালে পানি পথের তৃতীয় যুদ্ধে আহমদ শাহ আবদালীর বিজয়ের পর খাদ্য ও পানীয়ের অভাবে কাতর মৃতপ্রায় বন্দীদেরকে দীর্ঘ সারি বেধে কুচকাওয়াজে বাধ্য করে অবশেষে শিরশ্ছেদ করা হয়। এরপর বন্দীকৃত তাদের ২২ হাজার নারী ও সন্তানদেরকে দাসরূপে নিয়ে যাওয়া হয়, যাদের মধ্যে অনেকেই ছিল দেশের সর্বোচ্চ মর্যাদাশীল শ্রেণীর।'(Lal 91994, p. 155)। এর দু দশক আগে (১৭৩৮) ইরানের নাদির শাহ ভারত আক্রমণ করেছিল। ভয়াবহ ধ্বংসলীলা, স্বেচ্ছাচারিতা ও লুটতরাজের পর হাজার হাজার লোককে দাস বানিয়ে বিপুল ধন্তসম্পদ নিয়ে সে দেশে ফিরে যায়। নাদির শাহ তার অভিযানে প্রায় ২০০,০০০ ভারতীয়কে হত্যা করেছিল।

বাঙাল এলো দেশে : ১


কাদামাটি আর সমুদ্রের নোনা জলের গন্ধ-মেশা হোগলা বনের দ্বীপ, মরিচঝাঁপি । আজ থেকে প্রায় চল্লিশ বছর বছর আগে মরিচঝাঁপির অলস শান্ত দ্বীপে গোলাগুলি চলেছিল। মনে পরছে ? নাকি আত্মবিস্মৃত বাঙালি ভুলে গেছে?

ভারতীয় উপমহাদেশে ইসলামে ধর্মান্তর ৪


এই উপমহাদেশে ইসলাম বিস্তার লাভের এক প্রধান কারণ হলো ধর্মান্তকরণ এবং শত চেষ্টাতেও তা অস্বীকার করার উপায় নেই! এর অঙ্গ হিসেবে ক্রীতদাস নারীকে ব্যবহার করে অতি কৌশলে বংশবৃদ্ধির মাধ্যমে বিস্তার লাভ করেছিল ইসলাম | পর্ব ৩ এ এই নিয়ে লিখেছি | এবার আরো বিস্তারিত দেখা যাক এই প্রক্রিয়ার সম্মন্ধে।

ভারতীয় উপমহাদেশে ইসলামে ধর্মান্তর ৩


ইসলামে ক্রীতদাসকরণ বহুল প্রচলিত প্রক্রিয়া| এই প্রক্রিয়ার এক বিশাল ভুমিকা আছে উপমহাদেশে ইসলামের বিস্তারের| আসুন জেনে নি এই ব্যাপারে|

ভারতীয় উপমহাদেশে ইসলামে ধর্মান্তর ২


তলোয়ার দ্বারা ধর্মান্তর(শেষ):
-------------------------------------
অগণিত হিন্দুরা ইসলাম গ্রহণে অস্বীকার করলে পরে এতগুলো মানুষকে তলোয়ারের তলায় ফেলা কঠিন হয়ে গেল! তার বদলে তাদেরকে বাচিয়ে রেখে কর আদায় ছিল লাভজনক বিকল্প। কাসিম অনুমতি চেয়ে হাজ্জাজকে চিঠি লিখল আর তার উত্তর এলো :

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

রাজর্ষি ব্যনার্জী
রাজর্ষি ব্যনার্জী এর ছবি
Offline
Last seen: 14 ঘন্টা 27 min ago
Joined: সোমবার, অক্টোবর 17, 2016 - 1:03অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর