নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মাইকেল অপু মন্ডল
  • মৃত কালপুরুষ
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • সুবর্ণ জলের মাছ
  • দ্বিতীয়নাম

নতুন যাত্রী

  • অনুপম অমি
  • নভো নীল
  • মুমিন
  • মোঃ সোহেল রানা
  • উথোয়াই মারমা জয়
  • শাহনেওয়াজ রহমানী
  • জিহাতুল
  • আজহারুল ইসলাম
  • মোস্তাফিজুর রহম...
  • রিশাদ হাসান

আপনি এখানে

তানিয়া ফারাজী এর ব্লগ

প্রেম


প্রেম
বন্ধু তোমার চিঠি হয়ে যায় কবিতা,
অথবা কবিতা হয়ে যায় চিঠি
কখনও জীবন হয় নিরস এমন,
হয়না সব মনের মত পরিপাটি।
সংসারের ঘোরপ্যাঁচে তোমার হলনা হওয়া
পৃথিবী ছোট্ট অতি, ছোট্ট পরিসর,
পদ্ম হয়ে ফুটে আছি যুগ যুগ
চেয়ে দেখ তোমার মনের সরোবর।
হাসিখেলায় মেতে থাকা মন
ভুলে ছিলাম অতীতের ব্যথা সকল,
আজ প্রভাতে তোমার কবিতার বানী
যেন কোন প্রেমে আনল চোখে জল।
যা হলনা তা-ভাবনা থেকে থাক দূর
কাছে যাকে পেলে সে থাক কাছে,
মিলনে ভালবাসা হয় কিছু ক্ষয়
মনে রাখ তারে, মনে যে আছে।
ফুল, পাখি, গান হয়ে তোমার মনে আছি

আস্তিক নাস্তিক একসাথে বসবাসে সমস্যা কোথায়?


আস্তিক নাস্তিক একসাথে বসবাসে সমস্যা কোথায়?
আমার নিজ দেশ বাংলাদেশে আস্তিক নাস্তিক নিয়ে অনেক সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে এবং হচ্ছে। ইতিমধ্যে আস্তিকরা বিজ্ঞানমনস্ক কিছু মানুষকে হত্যাও করেছে যার এখনও ভাল কোনো বিচার হয়নি। বাংলাদেশ একটি স্বাধীন দেশ। কট্টর ইসলামপন্থী, উচ্ছৃঙ্খল দেশ পাকিস্তানের দ্বারা ধর্ষিত, নির্যাতিত, শোষিত হয়ে অনেক মূল্য দিয়ে যুদ্ধ করে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে।

সমাজতন্ত্র নিয়ে বর্তমান ভাবনা


সমাজতন্ত্র নিয়ে বর্তমান ভাবনা

মতের স্বাধীনতা চাই স্বাধীন বাংলায়-


বাংলাদেশের ৫৭ ধারার কবলে পড়ে মুক্তমনা বন্ধুরা সব বিড়ম্বনার মধ্যে আছে এবং আমাকে সবাই সতর্ক করে যাচ্ছে- ইচ্ছেমত মতামত প্রকাশ না করার জন্য। ধন্যবাদ আমার শুভাকাঙ্ক্ষী,বন্ধুরা। কত সস্তা কথা এই সময়ে এসে শুনতে হচ্ছে, বন্ধুরা। সকাল থেকে ঘুমোনোর সময় পর্যন্ত অনেক কাজ করি- (সামাজিকতা, স্কুলে বাচ্চা পড়ানো, ব্যবসার খোঁজ খবর, টাকার ব্যবস্থা করা, পরিবারের লোকদের মন মানসিকতা ভাল রাখার ব্যবস্থা করা, বন্ধু বান্ধবদের খোঁজ নেওয়া, লেখালেখি করা, গান চর্চা, প্রতিবেশীর খোঁজ নেওয়া, সমাজের মানুষের সাথে মিষ্টি করে হেসে খোঁজ খবর নেওয়া, নারী উন্নয়ন সংস্থার সাথে থাকা)। এত কাজের মধ্যে কেউ আজ পর্যন্ত বলেনি যে, তানিয়া খারা

নারীদের উপর চাপানো অমানবিক সব আইন দূর হোক---


নারীদের উপর চাপানো অমানবিক সব আইন দূর হোক--

অং সান সুচির অমানবিক রাজনীতি এবং হিংসা-


অং সান সুচির অমানবিক রাজনীতি এবং হিংসা-
মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের অত্যাচার করা হচ্ছে এবং সেদেশ থেকে রোহিঙ্গারা পালিয়ে বাংলাদেশে ঠাঁই নিয়েছে অনেকে। রোহিঙ্গারা মানুষ। তাই তাদের ঠাঁই দিয়ে ভাল করেছে বাংলাদেশ সরকার। কিন্তু নিজ দেশের লোকদের মানুষ করতে পারুক আর না পারুক তাদের তাড়িয়ে দেয়ার কোনো অধিকার আজকের পৃথিবীতে থাকতে পারেনা কারও।

জঘন্য মানুষের মূর্খতার বলি


বর্তমানকালের একটি কুত্তার ছাও-ও যে সত্য জানে-- সেই সত্য বলার জন্য বিজ্ঞানী ব্রুণোকে একদিন পুড়িয়ে মারা হয়েছিল----------
১৫৪৮ থেকে ১৬০০ সাল। মানুষ তখনও বিজ্ঞানের আলোয় আলোকিত ছিলনা। ধর্মযাজকরা তখনও মানুষকে অন্ধকারে রাখার ষড়যন্ত্র করত।
বিজ্ঞানী জিওর্দানো ব্রুনো সেসময় বিশ্বজগত সম্পর্কে বেশকিছু সত্য আবিষ্কার করেন এবং বই প্রকাশ করেন। তিনি বলেছিলেন- "পৃথিবী গোল এবং পৃথিবী সূর্যের চারদিকে ঘুরে।" তখনকার শয়তান সমাজশাসকরা এবং জনগণ বলত- পৃথিবী চ্যাপ্টা এবং সূর্য পৃথিবীর চারদিকে ঘুরে।

যুক্তিতর্ক, মতের স্বাধীনতা, বাক স্বাধীনতা জরুরী


যুক্তি তর্ক, মতের স্বাধীনতা, বাক স্বাধীনতা জরুরী--
যারা সতীদাহ প্রথা চালু করেছিল এবং এই অমানবিক প্রথা সমাজে চালু রেখেছিল তাদের ফাঁসি দেওয়ার জন্য পরে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। প্রতিটি অমানবিক কুসংস্কার এভাবেই রাজত্ব করে যায় একসময়। অনেক মানুষ সেসব কুসংস্কারের বলি হয়। যখন কুসংস্কার দূর হয় তখন যেসব জানোয়ারগুলো কুসংস্কার বজায় রাখতে সমাজে লড়াই করেছিল তারা তাদের ভোগ, অন্যায় অত্যাচার শেষ করে মরা শেষ।
এইজন্য শিক্ষিত মানুষদের যুক্তি, মতের স্বাধীনতার বিষয়টিকে সমর্থন করা জরুরী। যুক্তি তর্কের মধ্য দিয়ে মানবিক আইন প্রতিষ্ঠিত হয়। তা না হলে অগণিত মানুষ কোটি কোটি যুগ ধরে অমানবিকতার বলি হয়।

পর্নোগ্রাফি বন্ধ করা হোক, যৌনজীবনে সুস্থ রুচি গড়ে উঠুক


আমরা টয়লেটে বসি গোপনে, সভ্য জগতে প্রকাশ্যে টয়লেটে বসা অসভ্যতা এবং লজ্জার। সেরকম প্রকাশ্য সেক্সুয়াল কাজে অংশ নেওয়া এবং সেক্সুয়াল কাজের জন্য আহ্বান করা অসভ্যতা এবং লজ্জার নয় কি? তাহলে এখন বেশীরভাগ দেশে প্রকাশ্যে নারীদের অর্ধনগ্ন বা সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে পুরুষদের সাথে সেক্সুয়াল কাজে অংশ নেওয়া এবং পুরুষদের উত্তেজিত করা অপরাধ নয় কি? এসব নিয়ে কেউ কোন কথা বলেনা।
ধার্মিকরা তসলিমা নাসরিনকে দেশ থেকে দূর করে দিল সে ধার্মিক নয় বলে,কিন্তু ধার্মিকরা বিশ্বে সুন্দরী প্রতিযোগিতা বন্ধের জন্য কি কোন উদ্যোগ নিয়েছে কখনও? - যে প্রতিযোগিতা নারীদের জন্য, মানুষের সমাজের জন্য চরম অপমানজনক।

বিজয়


বিজয় বলল, ''মে হিন্দু হু, লেকেন মে কিয়া ইনসান নেহি হু ? " আমি বললাম, এহি বাত হামারা সোসাইটি নেহি মানতিহে।"

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

তানিয়া ফারাজী
তানিয়া ফারাজী এর ছবি
Offline
Last seen: 5 দিন 1 ঘন্টা ago
Joined: বুধবার, সেপ্টেম্বর 14, 2016 - 11:11অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর