নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • বাপ্পার কাব্য
  • নীল কষ্ট
  • মুফতি মাসুদ
  • অনন্য আজাদ
  • নরসুন্দর মানুষ
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ
  • সংশপ্তক শুভ

নতুন যাত্রী

  • আদি মানব
  • নগরবালক
  • মানিকুজ্জামান
  • একরামুল হক
  • আব্দুর রহমান ইমন
  • ইমরান হোসেন মনা
  • আবু উষা
  • জনৈক জুম্ম
  • ফরিদ আলম
  • নিহত নক্ষত্র

আপনি এখানে

কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ এর ব্লগ

নিম্ন আদালতের বিচারকদের শৃঙ্খলা বিধির গেজেট প্রসঙ্গে


গতকাল সরকার বহুল প্রতীক্ষিত নিম্ন আদালতের বিচারকদের শৃঙ্খলা বিধির গেজেট প্রকাশ করেছে। এই গেজেট প্রকাশ নিয়ে গত দুই বছর ধরে কালক্ষেপণ করেছে সরকার। সেই কালক্ষেপণের কারণ একজন সুরেন্দ্র কুমার সিনহা প্রধান বিচারপতির আসনে ছিলেন। এই কথাটা আইনমন্ত্রীর কথাতেও স্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে। সরকারের ইচ্ছামতো গেজেট প্রকাশের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন একজন সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। সেই সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে সরিয়ে দেয়ার একমাস সময়ের মধ্যেই, দুই বছর গলায় আটকে থাকা কাঁটা সরকার বের করে আনলো!

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলাচিঠি


মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
আমার শুভেচ্ছা গ্রহণ করুন। আশা করি ভালো আছেন। আপনাকে কিছু কথা বলবো বলে অনেকদিন ধরে কথাগুলো বুকের মাঝে জমিয়ে রেখেছি। আজ সেই জমে থাকা কথাগুলো প্রকাশ করছি। এই কথাগুলো আপনার কাছে পৌঁছাবে কিনা জানি না, তবুও লিখছি।

মুসলিমের হিন্দুয়ানী নাম ব্যবহারঃ নাসিরনগরের ধারাবাহিকতায় ঠাকুরপাড়ায় সাম্প্রদায়িক হামলা


রংপুরের টিটু রায় যে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম অবমাননা করে কোন পোস্ট দেয়নি, সেটা আপাতত নিশ্চিত হওয়া গেছে। ১২ নভেম্বর ২০১৭, দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকার তথ্য অনুযায়ী মাওলানা হামিদী নামক একজন মুসলিম ঐ পোস্ট করেছিলেন!
আমার প্রশ্ন হচ্ছে, একজন মুসলমানকে কোন নও মুসলিমের নাম ব্যবহার করার অনুমতি ইসলাম দেয় কিনা? সেটা যদি হয় অপরাধমূলক কাজ, ইসলাম অবমাননার কাজ? মানে মাওলানা হামিদী কিংবা নাসিরনগরের জাহাঙ্গীর আলম, টিটু রায় কিংবা রসরাজ দাসের নাম ব্যবহার করে যে আকাম করেছে, ইসলাম কি সেটাকে অনুমোদন দেয়? আমার জানা মতে দেয় না!

মগবাজার - মৌচাক ফ্লাইওভারঃ রাষ্ট্রের ১২শ কোটি টাকার অপচয়


গত ২৬ অক্টোবর মগবাজার – মৌচাক ফ্লাইওভারের আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন করা হয়েছে। সেই সাথে ফ্লাইওভার সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষদের গত কয়েক বছরের দূর্ভোগ কিছুটা লাঘব হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। এর আগে দুই দফায় সাতরাস্তা, হলি ফ্যামিলি ও বাংলা মোটর অংশের ফ্লাইওভার যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়েছিলো। ২৬ অক্টোবর সম্পূর্ণ ফ্লাইওভার যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়। কিন্তু মূল প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, এই ফ্লাইওভার যে সমস্যা সমাধানের জন্য নির্মিত হয়েছে, সেই যানজট সমস্যা কতটা নিরসন হবে?

রাষ্ট্রের মৌলবাদীনীতিঃ মুক্তিযুদ্ধের চেতনার উল্টো পথে বাংলাদেশ


জঙ্গিবাদ আর মৌলবাদী রাজনীতি মোকাবেলায় সাংস্কৃতিক বিকাশের বিকল্প নেই। অথচ আমরা দেখছি তার উল্টো!

প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার সাথে সরকারের দ্বন্দ্বের নেপথ্যে


মাননীয় প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার উপর কি কারণে সরকার ক্ষিপ্ত হয়েছে বলে আপনি মনে করেন? ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় কিংবা এর পর্যবেক্ষনণকে কি আপনি এর জন্য দায়ী করবেন? যদি করেন, তবে আমি মনে করি আপনি ভুল ভাবছেন! ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় ও পর্যবেক্ষণ উসিলা মাত্র! কেননা, আওয়ামীলীগের বিজ্ঞ আইনজ্ঞরাও জানতেন, ষোড়শ সংশোধনী বাতিল হবেই। এই আওয়ামীলীগই সংবিধানের বেশ কয়েকটি অনুচ্ছেদকে সংবিধানের মৌলিক কাঠামোর অংশ (অসংশোধনীয়) বলে সংসদে পাস করেছে। সেই হিসেব মতে ষোড়শ সংশোধনী বাতিল ছিল অনিবার্য!

সস্তায় ডিম কিনতে নয়, নিত্যপণ্যের দাম কমানোর দাবি নিয়ে ভিড় জমান



বাজারে সকল নিত্যপণ্য বিক্রি হচ্ছে চওড়া দামে। তাই ডিম দিবসে সস্তায় ডিম পাওয়ার আশায় হাজারো মানুষের ভিড়। এই মানুষদের অধিকাংশই ঢাকা শহরের ব্যাচেলর ছাত্র আর নিম্ন আয়ের মানুষ। খাদ্য সামগ্রির দাম বাড়লে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েন এই শ্রেণীর মানুষগুলোই। তাই তিন টাকা পিসের ডিম কিনতে এই মানুষদের ভিড়কে আমি খারাপ চোখে দেখি না।

রোহিঙ্গা সংকটঃ সমাধান কোন পথে?


দেরিতে হলেও মিয়ানমার থেকে প্রাণ বাঁচাতে ছুটে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে, এটা একটা ভালো উদ্যোগ। তবে যতটুকু বুঝতে পারছি বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করা হবে এই দফায় আগত প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ রোহিঙ্গার। তাহলে বিগত ত্রিশ বছর ধরে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া প্রায় ৬ লক্ষ রোহিঙ্গার কি হবে?

শোক দিবসের ভোজন উৎসব এবং আওয়ামীলীগে মুস্তাকপন্থীদের দ্বৈরথ


গতকাল দেশব্যাপী মহাসমারোহে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে! ‘মহাসমারোহ' শব্দটি ব্যবহারের জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। কিন্তু জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে দেশব্যাপী আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা যেভাবে ভোজনে মেতেছে, তাতে মহাসমারোহ শব্দটার বিকল্প খুঁজে পাইনি। শোক দিবসটাও এখন লীগারদের কাছে একটা উৎসব, ভোজন বিলাসের উৎসব! সফেদ পাঞ্জাবী, মুজিব কোট আর কালোব্যাজ পড়ে শোক প্রকাশের যে বাহ্যিক রুপ দেখানোর হিড়িক পড়ে, আমার কাছে সেটা কে ‘ভোজন উৎসবের জন্য বেশ ধারন করা’ বলে মনে হয়! শোক দিবসকে উপলক্ষ্য করে যারা এমন মাতম করতে পারে, যারা শোক দিবসের খাবারের ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে মারামারিতে লিপ্ত হতে পারে, তারা কোন পক্ষের আওয়ামীলীগ?

পক্ষে গেলে মানি, পক্ষে না গেলে চুতমারানিঃ প্রসঙ্গ সংবিধানের সংশোধনী


আওয়ামীলীগের নেতারা মনে হয় এটা ভুলে গেছে যে, সংসদ কেবল সংবিধান প্রণয়ন করতে পারে, সংবিধানের সংরক্ষণের দায়িত্ব সংসদের নয়, আদালতের। আদালত হচ্ছে সংবিধানের হেফাজতকারী।

সংসদে কিছু অরাজনৈতিক ব্যবসায়ীক লোক জনপ্রতিনিধিরূপে ঘাপটি মেরা বসেছে, যাদের রাজনৈতিক জ্ঞান নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। যাদের কাজ হচ্ছে প্রভুভক্ত প্রাণীর মতো মনিবের নির্দেশ পালন করা। এই জনপ্রতিনিধিরা(!) সংসদে নিজের দলের আনীত বিলের উপর বিরোধী মত প্রকাশে অক্ষম! তাই দুই - তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে, এই প্রাণীগুলোকে ব্যবহার করে যে কোন সরকারই সংবিধানে পরিবর্তন আনতে পারে।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ
কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ এর ছবি
Online
Last seen: 1 ঘন্টা 18 min ago
Joined: রবিবার, মে 8, 2016 - 11:31পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর