নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • জয়বাংলা ১৯৭১
  • মোগ্গালানা মাইকেল
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • সুবর্ণ জলের মাছ
  • দীব্বেন্দু দীপ

নতুন যাত্রী

  • বিদ্রোহী মুসাফির
  • টি রহমান বর্ণিল
  • আজহরুল ইসলাম
  • রইসউদ্দিন গায়েন
  • উৎসব
  • সাদমান ফেরদৌস
  • বিপ্লব দাস
  • আফিজের রহমান
  • হুসাইন মাহমুদ
  • অচিন-পাখী

আপনি এখানে

কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ এর ব্লগ

প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার সাথে সরকারের দ্বন্দ্বের নেপথ্যে


মাননীয় প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার উপর কি কারণে সরকার ক্ষিপ্ত হয়েছে বলে আপনি মনে করেন? ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় কিংবা এর পর্যবেক্ষনণকে কি আপনি এর জন্য দায়ী করবেন? যদি করেন, তবে আমি মনে করি আপনি ভুল ভাবছেন! ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় ও পর্যবেক্ষণ উসিলা মাত্র! কেননা, আওয়ামীলীগের বিজ্ঞ আইনজ্ঞরাও জানতেন, ষোড়শ সংশোধনী বাতিল হবেই। এই আওয়ামীলীগই সংবিধানের বেশ কয়েকটি অনুচ্ছেদকে সংবিধানের মৌলিক কাঠামোর অংশ (অসংশোধনীয়) বলে সংসদে পাস করেছে। সেই হিসেব মতে ষোড়শ সংশোধনী বাতিল ছিল অনিবার্য!

সস্তায় ডিম কিনতে নয়, নিত্যপণ্যের দাম কমানোর দাবি নিয়ে ভিড় জমান



বাজারে সকল নিত্যপণ্য বিক্রি হচ্ছে চওড়া দামে। তাই ডিম দিবসে সস্তায় ডিম পাওয়ার আশায় হাজারো মানুষের ভিড়। এই মানুষদের অধিকাংশই ঢাকা শহরের ব্যাচেলর ছাত্র আর নিম্ন আয়ের মানুষ। খাদ্য সামগ্রির দাম বাড়লে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েন এই শ্রেণীর মানুষগুলোই। তাই তিন টাকা পিসের ডিম কিনতে এই মানুষদের ভিড়কে আমি খারাপ চোখে দেখি না।

রোহিঙ্গা সংকটঃ সমাধান কোন পথে?


দেরিতে হলেও মিয়ানমার থেকে প্রাণ বাঁচাতে ছুটে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে, এটা একটা ভালো উদ্যোগ। তবে যতটুকু বুঝতে পারছি বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করা হবে এই দফায় আগত প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ রোহিঙ্গার। তাহলে বিগত ত্রিশ বছর ধরে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া প্রায় ৬ লক্ষ রোহিঙ্গার কি হবে?

শোক দিবসের ভোজন উৎসব এবং আওয়ামীলীগে মুস্তাকপন্থীদের দ্বৈরথ


গতকাল দেশব্যাপী মহাসমারোহে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে! ‘মহাসমারোহ' শব্দটি ব্যবহারের জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। কিন্তু জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে দেশব্যাপী আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা যেভাবে ভোজনে মেতেছে, তাতে মহাসমারোহ শব্দটার বিকল্প খুঁজে পাইনি। শোক দিবসটাও এখন লীগারদের কাছে একটা উৎসব, ভোজন বিলাসের উৎসব! সফেদ পাঞ্জাবী, মুজিব কোট আর কালোব্যাজ পড়ে শোক প্রকাশের যে বাহ্যিক রুপ দেখানোর হিড়িক পড়ে, আমার কাছে সেটা কে ‘ভোজন উৎসবের জন্য বেশ ধারন করা’ বলে মনে হয়! শোক দিবসকে উপলক্ষ্য করে যারা এমন মাতম করতে পারে, যারা শোক দিবসের খাবারের ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে মারামারিতে লিপ্ত হতে পারে, তারা কোন পক্ষের আওয়ামীলীগ?

পক্ষে গেলে মানি, পক্ষে না গেলে চুতমারানিঃ প্রসঙ্গ সংবিধানের সংশোধনী


আওয়ামীলীগের নেতারা মনে হয় এটা ভুলে গেছে যে, সংসদ কেবল সংবিধান প্রণয়ন করতে পারে, সংবিধানের সংরক্ষণের দায়িত্ব সংসদের নয়, আদালতের। আদালত হচ্ছে সংবিধানের হেফাজতকারী।

সংসদে কিছু অরাজনৈতিক ব্যবসায়ীক লোক জনপ্রতিনিধিরূপে ঘাপটি মেরা বসেছে, যাদের রাজনৈতিক জ্ঞান নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। যাদের কাজ হচ্ছে প্রভুভক্ত প্রাণীর মতো মনিবের নির্দেশ পালন করা। এই জনপ্রতিনিধিরা(!) সংসদে নিজের দলের আনীত বিলের উপর বিরোধী মত প্রকাশে অক্ষম! তাই দুই - তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে, এই প্রাণীগুলোকে ব্যবহার করে যে কোন সরকারই সংবিধানে পরিবর্তন আনতে পারে।

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে আইনমন্ত্রীর বক্তব্য ও আমার কিছু প্রশ্ন


সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায়ে প্রধান বিচারপতি বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা কোন একক ব্যক্তির কারণে হয়নি।
আমাদের আইনমন্ত্রী মশায় প্রধান বিচারপতির এই বক্তব্যে মর্মাহত হয়েছেন। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেছেন, ১৯৪৮ থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা লাভ করা পর্যন্ত যত আন্দোলন হয়েছে, সবগুলো বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে হয়েছে। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানের কারাগারে থাকলেও, তার নেতৃত্বে এবং তার আদর্শেই যুদ্ধ পরিচালিত হয়েছে।

বিশ্বজিৎ দাস হত্যা মামলায় হাইকোর্টের রায়ঃ বিচার না খেলা?


গতকাল উচ্চ আদালত বহুল আলোচিত বিশ্বজিৎ দাস হত্যাকান্ডের রায় ঘোষনা করেন। এই রায়ে দেশের বেশিরভাগ মানুষের মতো আমিও হতাশ এবং সংক্ষুব্ধ। এই রায়ে নিম্ন আদালতে ফাঁসির দন্ড পাওয়া ৮ আসামির মধ্যে দুজনের ফাঁসির দন্ড বহাল রাখা হয়। ফাঁসির দন্ড পাওয়া বাকি আসামিদের মধ্যে চারজনের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং অপর দুই আসামিকে খালাস দেয়া হয়! নিম্ন আদালতে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্ত ১৩ জনের মধ্যে যে দুজন আপিল করেছিলেন, উচ্চ আদালত তাদের খালাস প্রদান করেছে!

বাংলাদেশের কবিরা কবি হয়ে উঠুক


হুমায়ুন আজাদ স্যারের একটা প্রবচন আছে, কবিতা এখন দু-রকমঃ দালালী ও গালাগালি। দেশের বর্তমান অবস্থা দেখে তার কথা পুরোপুরি সত্য বলে মনে হচ্ছে। শুধু কবিতা নয়, শিল্প সাহিত্যের প্রতিটি স্তরেই আমাদের অবনমন ঘটছে!

একজন ধর্ষিতা ন্যায় বিচার পাবে কার কাছে?


সমাজের ভয়ে ধর্ষিতার পরিবার অনেক সময়েই ধর্ষণের বিচার দাবি করেন না। সমাজপতিরা অনেকসময় ভয় দেখিয়ে কিংবা কিছু টাকা হাতে গুজে দিয়েই ধর্ষিতার পরিবারকে দমিয়ে রাখে। একজন নারী ধর্ষিতা হয়েছে, এটা জানা জানি হলে এই সমাজে খুব কম লোকই আছে যারা সেই নারীকে বিয়ে করার সাহস দেখায়। অথচ একজন ধর্ষকের জন্য বিয়েশাদি করতে কোন সমস্যাই হয় না। 'পুরুষ মানুষ বয়সকালে দুই চারটে অমন কাজ করেই' বলে ধর্ষণকে জায়েজ করার প্রবণতা সমাজে লক্ষ্যনীয়।

প্রসঙ্গঃ নোয়াখালি বিভাগের দাবি ও মানুষের হাসি - তামাশা



কয়েকদিন আগে একবার লিখেছিলাম, আমি নোয়াখালী বিভাগ হওয়ার পক্ষে নই। আসলে আমি নতুন করে কোন বিভাগ হওয়ারই পক্ষে নই। কারণ আমি বিভাগের কোন উপকারি দিক দেখি না। বিভাগগুলো নিয়ে যদি আলাদা বিভাগীয় সরকার ব্যবস্থা থাকতো, তাহলে আমি বিভাগ করার পক্ষ নিতাম।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ
কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 8 ঘন্টা ago
Joined: রবিবার, মে 8, 2016 - 11:31পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর