নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 2 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • নীল কষ্ট

নতুন যাত্রী

  • ষঢ়ঋতু
  • এনেক্স
  • আরিফ ইউডি
  • গলা বাজ
  • হুসাইন
  • তারুবীর
  • অন্তরা ফেরদৌস
  • শেখ সাকিব ফেরদৌস
  • প্রাণ
  • ফেরদৌস সজীব

আপনি এখানে

আবু মমিন এর ব্লগ

ধর্ম, দর্শন ও বিজ্ঞান-৪


প্রাাকৃতিক আইন বনাম পদার্থবিজ্ঞানের আইনঃ
.......................................................................
আমদের মহাবিশ্বের প্রাকৃতিক আইন আর পদার্থবিজ্ঞানের সূত্র/নিয়ম/আইন কি একই আইন?

ধর্ম, দর্শন ও বিজ্ঞান-৩


শূন্য থেকে মহাবিশ্ব

০.০ শূন্য কি আমরা জানিনা! অসীম কি তাও আমরা জানিনা! ঈশ্বর কিংবা ব্রহ্ম কি তাও জানিনা! প্রথমোক্ত দুটি চিন্তা গানিতিক চিন্তন থেকে উদ্ভূত যা গনিত কিংবা পদার্থবিজ্ঞানের সঙ্গে যুক্ত যদিও শূন্য ও অসীম চিন্তন দর্শনেরও বিষয়। আর ঈশ্বর কিংবা ব্রহ্ম চিন্তা ধর্ম ও দর্শনের প্রত্যয়।

দুইটি নৈতিক বানীঃ ১. অহিংসা পরম ধর্ম ও ২.জীব হত্যা মহাপাপ


১) অহিংসা পরম ধর্ম। ২) জীব হত্যা মহাপাপ।
__বুদ্ধ

১.১ মানুষ হলো এক কোষী প্রানী/জীব এরই বিবর্তিত কিংবা ক্রমবিকশিত রুপ।

১.২ অতএব, এক কোষী জীবও ক্রম সংকোচিত একজন বুদ্ধ মানব।

১.৩ জগতের প্রতিটি সত্তা জড়-অজড় কিংবা জীব-অজীব প্রত্যকই পরস্পর সম্পর্কযুক্ত এক আন্ত:জালিক বন্ধনে আবদ্ধ। প্রতিটি সত্তাই(জড়, জড়-কনা, জীব, অনুজীব) একে একটি পয়েন্ট।একে বলা যেতে পারে জগতের নেটওয়ার্ক যা জগৎরূপ সুবিশাল মহা কম্পিউটারের সঙ্গে যুক্ত।

ধর্ম, দর্শন ও বিজ্ঞান-২


কেউ এখন দর্শন নিয়ে পড়ালেখা করতে চায়না। সবাই ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার কিংবা পেশাদার বিজনেজম্যান হওয়ার শিক্ষা অর্জন করতে চায়। সমাজ সেবা নয়, সবার উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য টাকা উপার্জনের জন্যে পড়া-লেখা করা। আরেক শ্রেনীর উদ্দেশ্য ধর্ম নিয়ে পড়াশোনা করা। মনে হয় ধর্ম নিয়ে খুব কম পড়াশোনা করেও প্রচুর অর্থ উপার্জন করা সম্ভব।
পড়ালেখার মধ্যে ঢুকে গেছে কমার্শিয়াল চিন্তা। জ্ঞানার্জন নয়, যে বিষয়ে পড়াশোনা করলে চাকুরির বাজার ভালো সে বিষয়ের প্রতি ঝুকে পড়ছে শিক্ষার্থী-অভিভাবকগন।

অথচ জ্ঞানের প্রতি যার অনুরাগ তার দর্শন পড়ার কথা। দর্শন অন্যের মতের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধাশীল হওয়ার শিক্ষা দেয়।

ধর্ম, দর্শন ও বিজ্ঞান-১


১.১ মানব ইতিহাস পর্যালোচনা করে দেখা যায় উৎপত্তির দিক থেকে ধর্ম আগে, দর্শন পরে, বিজ্ঞান তারও পরে।

১.২ ধর্মের প্রাথমিক সংজ্ঞা হলো অতিপ্রাকৃত শক্তিতে বিশ্বাস এবং তাকে ঘিরে আচার-অনুষ্ঠানই ধর্ম।

১.৩ সমাজ পরিবর্তন ও মানুষের জ্ঞানের উৎকর্ষতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ধর্মেরও বিবর্তন ঘটে এবং ঘটে চলছে।

১.৫ ধর্মে অতি প্রাকৃত শক্তিতে বিশ্বাসের সঙ্গে পুজা-অর্চনা-অনুষ্ঠানও যুক্ত হয়।

জ্যামিতির কয়েকটি ভিন্ন পাঠ


জ্যামিতির ভিন্ন পাঠ-১

বৃত্ত একটি বহুভুজ যার বাহুর সংখ্যা অসীম যেখানে বৃত্তের পরিধির প্রতিটি বিন্দুই একেকটি বাহু।

জ্যামিতির ভিন্ন পাঠ-২

বৃত্তের ব্যাসার্ধের বৃদ্ধির সাথে সাথে পরিধির বক্রতা হ্রাস পায়। অতএব অসীম ব্যাসার্ধের বৃত্তের পরিধি একটি সরলরেখা।
অন্যভাবে বলা যায় অসীম ব্যাসার্ধের বৃত্তের পরিধির যে কোন অংশকে সরলরেখা বলে।

জ্যামিতির ভিন্ন পাঠ-৩

বুদ্ধ দর্শনের শূন্যবাদঃ


বুদ্ধের শূন্যবাদ/আপেক্ষিকবাদ:[The madhamika School of Sunyavada]

১.১ বুদ্ধ ধর্মের অন্যতম অনুসারী মাধ্যমিক সম্প্রদায়ের প্রবর্তক সুপ্রসিদ্ধ বৌদ্ধ দার্শনিক নাগার্জুন। মাধ্যমিক সম্প্রদায়ের দার্শনিক মতবাদই হলো শূন্যবাদ যার অপর নাম আপেক্ষিকবাদ( The theory of relativity).এই শূন্যবাদ অনুসারে সবকিছু শূন্য।

১.২ এই শূন্যবাদ অনুসারে, জড় জগত ও মনোজগত সবই মিথ্যা। নাগার্জুনের এই শূন্যবাদ বুদ্ধের প্রতীত্য সমুৎপাদ, যে মতাবাদ অনুসারে সবকিছু শর্তাধীন তা থেকে নিঃসৃত।

বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদের সীমাবদ্ধতা


মানুষ সময় ও স্থানের ফর্মুলায় চিন্তা করে। আর তাই যেখানে দেশ-কাল আছে সেখানে কার্যকারন আছে, সেখানে মানবীয় যুক্তি আছে_সেখানে পদার্থবিজ্ঞানের সূত্রগুলো কার্যকর থাকে। দেশ নেই, কাল নেই, কার্য-কারন নেই, মানবীয় যুক্তি নেই_ বস্তুর অস্তিত্ব নেই। কার্যকারন নেই, বিজ্ঞান নেই, তবুও আমাকে বিশ্বাস করতে হবে বিগ ব্যাং এর মুহুর্তের সেই আয়তনহীন অসীম ভরের বিন্দুকে। আমাকে বিশ্বাস করতে হবে অনস্তিত্ব থেকে অস্তিত্বের আবির্ভাবকে। যা অনস্তিত্ব তাই অস্তিত্ব।
অর্থাৎ বিজ্ঞানের যাত্রাও বিশ্বাস থেকে। আসলে জ্ঞানের যেখানে শেষ সেখানেই
প্রকৃত বিশ্বাস শুরু।

রাষ্ট্রচিন্তাঃ গনতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা


রাষ্ট্র চিন্তাঃ গনতন্ত্র

Majority must be granted. কিংবা ভক্স ডার ভক্স পপুলি অর্থাৎ দশচক্রে ভগবান অস্থির কিংবা Voice of the people is the voice of God. গনতন্ত্র কি আসলে তাই?! দশজনে মিলে একজনকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নিল! ইহা কি গনতন্ত্র? গনতন্ত্র কি সত্যই শুধু সংখ্যা গরিষ্ঠের মতের প্রতিফলন?

উত্তর অবশ্যই না। মানুষের মৌলিক অধিকার, সার্বজনীন নৈতিকতা ও মানবিকতার সঙ্গে সাংঘর্ষিক সংখ্যা গরিষ্ঠের সিদ্ধান্তও গনতন্ত্র নয়।

পরিবার


০.০ পরিবার হলো আদিতম ও ক্ষুদ্রতম মানবীয় সংগঠন। মানুষ তার অস্তিত্বের প্রশ্নেই পরিবার গঠন করে।

১.১ আপনি যদি মুক্ত পুরুষ না হন তাহলে পরিবার নামক বন্ধনে আপনাকে আবদ্ধ হতেই হবে।

১.২ আবদ্ধতাই প্রকৃতির স্বাভাবিক ধর্ম। আবদ্ধতাই স্থায়ী ও অস্তিত্বের প্রকাশক। অনাবদ্ধতা কিংবা মুক্ততা ক্ষণস্থায়ী কিংবা ধ্বংসের নির্নায়ক ও নির্ধারক।

১.৩ সৌর পরিবারের গ্রহ গুলোর দিকে দৃষ্টি দিলেই আমরা বুঝতে পারি আবদ্ধতা কাকে বলে। ইহাই আবদ্ধতা, ইহাই পরিবার।

১.৪ অনুরূপভাবে, পরমানুর দিকে যদি আমরা দৃষ্টি দিই আমরা দেখতে পাই কিভাবে ইলেকট্রন,প্রোটন ও নিউট্রন কনিকা সমূহ আবদ্ধতার মাধ্যমে পরমানু গঠন করে।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

আবু মমিন
আবু মমিন এর ছবি
Offline
Last seen: 2 ঘন্টা 49 min ago
Joined: রবিবার, মে 1, 2016 - 9:00অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর