নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • দ্বিতীয়নাম
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • নুর নবী দুলাল
  • মিশু মিলন

নতুন যাত্রী

  • নীল মুহাম্মদ জা...
  • ইতাম পরদেশী
  • মুহম্মদ ইকরামুল হক
  • রাজন আলী
  • প্রশান্ত ভৌমিক
  • শঙ্খচূড় ইমাম
  • ডার্ক টু লাইট
  • সৌম্যজিৎ দত্ত
  • হিমু মিয়া
  • এস এম শাওন

আপনি এখানে

মঞ্জুরে খোদা টরিক এর ব্লগ

প্রতিবছর বই ছাপার দরকার নেই, সে টাকায় শিশুদের খাবার দিন..


নতুনবছর মানেই শিক্ষামন্ত্রী আবার প্রস্ততি নিচ্ছেন, ছেলেমেয়েদের মাঝে নতুন বই বিতরণের। অনেক অনিয়মের মধ্যে এটাও একটা সাফল্য যে, নিয়ম করে ঠিক সময়ে শিশুদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হয়। এর সাথে যুক্ত আছে প্রকাশনা শিল্প, শ্রমশক্তি ও বিশাল পুঁজি। কিন্তু প্রতিবছর একই বই ছাপাতে তো অনেক অর্থের দরকার হয়। এর কি কোন বিকল্প ব্যবস্থা নেই? শিক্ষার সীমিত বাজেটের বিপুল অর্থ প্রতিবছর খরচ না করলেই কি নয়? কিন্তু এ কাজের সাথে যুক্ত যে আমলাতন্ত্র, তারা কি সহজেই এ কাজটা করবে?

ছাত্র রাজনীতির কর্মকান্ডে পরিবর্তন আনতে হবে


ছাত্ররাজনীতি ও আন্দোলনের বিষয়টি একটু বাজার অর্থনীতি ধারার আলোচনার মাধ্যমে বুঝতে চেষ্টা করি। বাজারে যদি কোন পণ্যের চাহিদা না থাকে তাহলে তার বাজারজাত করা অত্যন্ত কঠিন। সে রকম পরিস্থিতিতে যদি কোন পণ্য বাজারজাত করতেই হয়, তাহলে প্রথমে তার উপযুক্ত পরিবেশ তৈরী করতে হবে। একটি নেতিবাচক বাজার বাস্তবতায় চাহিদাহীন কোন পণ্যের বাজারজাত করতে- অতি উপযুক্ত ও সুদক্ষ প্রতিনিধি দরকার, যে তার পণ্যের চাহিদা তৈরী করবে, বাজার সম্প্রসারণ ও স্থীতিশীলতা তৈরী করবে।

বাজেট, উচ্চশিক্ষার ভ্রান্তনীতি, সদিচ্ছাই অর্থায়নের সমাধান


ভূমিকাঃ আর কয়েকদিন পরেই অর্থমন্ত্রী সংসদে বাজেট উত্থাপন করবেন। তার অংশ হিসেবে এক প্রাকবাজেট আলোচনায় তিনি ঘোষণা করেছেন, সরকারী উচ্চমাধ্যমিক কলেজ, মেডিকেল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বেতন ৫ গুন বৃদ্ধি করবেন! এই ঘোষণার পর শিক্ষার্থী ও ছাত্র সংগঠন ও শিক্ষা সংশ্লিষ্টদের কোন প্রতিক্রিয়া দেখলাম না! বিভিন্ন সময় কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে যখন অস্বাভাবিক বেতন-ফি বৃদ্ধি করা হয়, তখন ছাত্রসমাজ এর প্রতিবাদ করে। এবং ছাত্রদের আন্দোলন-সংগ্রামের গতিপ্রকৃতি দেখে সরকারও তার কৌশল ও অবস্থান পরিবর্তন করে!

কওমীর শিক্ষা ও পাঠ্যক্রমের পর্যালোচনা - ১



বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ “সাধারণ শিক্ষার ধারায়” বাংলাভাষাতেই সব বিষয়ের শিক্ষা দেয়া হয়। সেখানে একটি বিদেশী ভাষা ইংরেজী বাধ্যতামুলক হিসেবে আছে। এই ভাষার সাথে দেশের প্রশাসনিক কাজকর্ম, ভিন্ন ভাষার জ্ঞানঅর্জন, আন্তর্জাতিক শ্রমবাজার, বৈদেশিক বাণিজ্য ও কূটনৈতিক সম্পর্কের বিষয়টি যুক্ত। ভাষা ও শিক্ষার এই কাঠামোর ব্যবহারিক বিষয়টি দেশের সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিকভাবে স্বীকৃত। আর ইংরেজী মাধ্যমের শিক্ষায় তারা ইংরেজী ভাষার মাধ্যমে বিদেশী সিলেবাস অনুসরণ করে লেখাপড়া করে। সেখানে প্রধানত একটি ভাষার মাধ্যমেই লেখাপড়া শেখানো হয়। তারমানে উভয় ধারাই প্রধানত একটি ভাষাকেই তাদের শিক্ষার মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করছে। তাতে কি তাদের জ্ঞানঅর্জনে কোন ঘাটতি ও অসঙ্গতি দেখা যাচ্ছে? তারমানে এই নয় যে, ইংরেজী মাধ্যমের শিক্ষাকে সমর্থন করা হচ্ছে!

অভিলাষি মনঃ ছাত্র ইউনিয়ন ও কিছু করণীয়


শেষ বিকেলের অনুভূতি

কওমী মাদ্রাসা ও আধুনিক শিক্ষা প্রসঙ্গে ড. সলিমুল্লাহ খানের আলোচনার সমালোচনা-


অধ্যাপক সলিমুল্লাহ খান আমার গুরু। স্কুলজীবন থেকে যার কথা-আলোচনা-লেখা-বিশ্লেষণ আমাকে মুগ্ধ করে রেখেছে! উনার অনেক কিছুই আমার অতি আগ্রহের বিষয়। বাংলা ভাষার পন্ডিতদের মধ্যে যাকে আমি অনন্য প্রতিভা মনে করি। সম্প্রতি কওমী মাদ্রাসার শিক্ষা ও আধুনিক শিক্ষা নিয়ে ‘আমাদের সময়ে’ ড. সলিমুল্লাহ খানের বক্তব্য পড়লাম। সেখানে তাঁর কিছু বক্তব্য আমার কাছে অস্পষ্ট ও বিভ্রান্তিকর মনে হয়েছে। তাঁর যে বক্তব্যগুলো আমার কাছে অধিক অসঙ্গতিপূর্ণ মনে হয়েছে সেগুলোকে শিরোনাম রেখে তার একটি সমালোচনা এখানে হাজির করেছি।

কওমী সনদের শর্ত ও স্বীকৃতিঃ পর্যালোচনা - ৪


শিক্ষা কি?
শিক্ষা হচ্ছে এমন একটি পদ্ধতিগত ও কাঠামোগত ধারাবাহিক প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে একজন ব্যক্তি তার জ্ঞান, দক্ষতা, বিচারশক্তি ও বুদ্ধিবৃত্তিক উন্নতির মাধ্যমে উন্নত জীবন গড়ে তোলে। কে কি পেশায় নিজেদের গড়ে তুলতে চান, শিক্ষা হচ্ছে সেই বিষয়ের জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জনের একটি পরিকল্পিত পদ্ধতি। সাধারণত একটি নির্দিষ্ট স্তর, মান ও শিক্ষন-প্রশিক্ষনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের সেই লক্ষ্যের উপযুক্ত সক্ষমতা অর্জন করতে সমর্থ হয়।

ধর্মভিত্তিক শিক্ষা কি প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা?

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

মঞ্জুরে খোদা টরিক
মঞ্জুরে খোদা টরিক এর ছবি
Offline
Last seen: 1 month 1 week ago
Joined: বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 4, 2016 - 11:59পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর