নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 0 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

নতুন যাত্রী

  • আরিফ হাসান
  • সত্যন্মোচক
  • আহসান হাবীব তছলিম
  • মাহমুদুল হাসান সৌরভ
  • অনিরুদ্ধ আলম
  • মন্জুরুল
  • ইমরানkhan
  • মোঃ মনিরুজ্জামান
  • আশরাফ আল মিনার
  • সাইয়েদ৯৫১

আপনি এখানে

অনন্য আজাদ এর ব্লগ

প্রকাশ্যে সবই অবৈধ, গোপনে বৈধতা মেলে


পর্নোমুভি গোপনে দেখতে হয়, প্রকাশ্যে দেখলে মানুষজন খারাপ বলবে। ভিড়ের মাঝে নারীর শরীরে হাত দিতে হয়, প্রকাশ্যে দিলে মানুষজন খারাপ বলবে। প্রেমিকাকে বন্ধুর বাড়ি নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। একসাথে একাধিক সম্পর্ক গোপনে করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। গাঁজা ও মদ গোপনে খেতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। শারীরিক সম্পর্ক করে গোপনে ব্যাকমেইল করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। ধর্ষণ ও হত্যা গোপনে করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। যদিও কখনো কখনো প্রকাশ্যেও বৈধতা দেয়। পরকীয়া গোপনে করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। চুম্ব

৭৬ বছর বয়সে আবুল কাসেম ফজলুল হকের শুভবুদ্ধির উদয়


৩১শে অক্টোবর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাঙলা বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষক আবুল কাসেম ফজলুল হকের পুত্র দীপনকে মৌলবাদীরা নিশংসভাবে হত্যা করেছে। পুত্রের জবাই করা লাশ দেখে আবুল কাসেম ফজলুল হকের উপলব্ধি হয়েছে সবার মধ্যে যেন শুভবুদ্ধির উদয় হোক! এই উপলব্ধি কী পুত্রের লাশ দেখার কারণেই হয়েছে! লেখার কারণে লেখক ব্লগার হত্যা, লেখা প্রকাশ করার কারণে প্রকাশককে হত্যা একমাত্র অশিক্ষিত বর্বর হিংস্র ধর্মান্ধ সমাজেই সম্ভব।

আপোষকামী বুদ্ধিজীবী বনাম আপোষহীন হুমায়ুন আজাদ


আজ থেকে ১১ বছর আগে, ২০০৪ সালের ২৫শে জানুয়ারী রাজাকার ধর্মব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন সাঈদি সংসদে দাঁড়িয়ে লেখক অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার এবং ব্লাসফেমি আইনের প্রস্তাব করে। রাজাকার সাঈদিকে বাঙলার সংসদ সদস্যের পদ দিয়ে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া তার স্বামীর চেতনাকে বাস্তবায়ন করে।

মানবতার কোন ধর্ম নেই


ছোট্টকালে আমার এক বন্ধু মিঠু আমাকে জানিয়েছিল সহপাঠীরা তার সাথে খারাপ আচরণ করে। মিঠু সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বী হওয়ার কারণে সহপাঠীরা তাকে খারাপ দৃষ্টিতে দেখে। সহপাঠীদের কাছে মিঠুর বিষয়ে কথা বলতে গেলে তারা আমাকে জানায় মিঠুর শরীর থেকে বিদঘুটে গন্ধ বের হয়, মিঠুর টিফিনের খাবার তাদের খাবারের সাথে মেলে না, বন্ধু মিঠুর কথা বলার ভঙ্গিও ভিন্ন। রাম সাম খেলার সময় যখন মিঠু সহপাঠীদের হস্তে চড় মারে তখন মুসলমান বন্ধুরা খুব ব্যাথা অনুভব করে। যা মুসলমান বন্ধুরা মারলে ততোটা কষ্ট অনুভব হয় না। মিঠুর জীবনে সবচেয়ে বড় অপরাধ ছিল সে মুসলমান নয়।

কাবেরী গায়েন কি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকা নাকি মাদ্রাসার ছাত্রী


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষিকা কাবেরী গায়েন বামপন্থী মহলে অত্যন্ত জনপ্রিয় একজন। গতকাল বাঙলা ট্রিবিউনে তাঁর সাক্ষাৎকার পড়ে হতবাক হয়ে বাধ্য। তিনি তসলিমা নাসরিনের বই না পড়েই তসলিমা নাসরিন সম্বন্ধে একাধিক মন্তব্য করেন, যা অযৌক্তিক ভিত্তিহীন।

কাবেরী গায়েনকে সকলেই সচেতন বলেই জানতেন। সাক্ষাৎকারে কাবেরী গায়েন মৌলবাদ সম্পর্কে চমৎকার সব বক্তব্য রেখেছেন। যা স্বীকার করতেই হবে। অথচ কাবেরী গায়েন নিজেই মৌলবাদীদের ফাঁদে পড়েছেন। এখন বোঝা যাচ্ছে তিনি অনেক কিছুই না জেনে, না পড়ে আন্দাজে গুলি ছুঁড়েন।

ভারতে মুসলমানরা সংখ্যালঘু এবং বাঙলাদেশে হিন্দুরা


ভারতে মুসলমানরা সংখ্যালঘু এবং বাঙলাদেশে হিন্দুরা। প্রায়ই শোনা যায়, ভারতের কিছু প্রদেশে মুসলমানদের জোরপূর্বক হিন্দু করা হছে। অনেক পরিবারের উপর নির্যাতনও করা হচ্ছে। কিন্তু কোন মসজিদ ভাঙার কথা শোনা যায় না। এটা সত্য। তেমনি, বাঙলাদেশে হিন্দু পরিবারের উপর মুসলমানদের নির্যাতন, হিন্দুদের প্রার্থনালয় ভাঙচুর, হিন্দু নারী ধর্ষণ, বাঙলাতে এমন কোন জেলা নেই যেখানে হিন্দুদের প্রার্থনালয় ভাঙা হয় নি। প্রতি মাসে একটি হলেও মন্দির ভাঙার সংবাদ পেয়ে থাকি। এটাও বাস্তব সত্য। অথচ বাঙলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুরা দিনে দিনে কমতে থাকে এবং ভারতে সংখ্যালঘু মুসলমানরা দিনে দিনে বাড়তে থাকে।

চুম্বনের স্বাধীনতা সৃষ্টি


আমরা এমন একটি সমাজে বেড়ে উঠেছি যেখানে মানুষের স্বাধীনতা নেই। ছোট্ট কিছু করতে হলেও অজস্রবার চিন্তা করতে হয়। করা কী ঠিক হবে কি না? একটি বাক্য ব্যয় করতে হলেও অসংখ্যবার চিন্তা করতে হয়, বলা কী ঠিক হবে কি না? মানুষ ভয় পায়, ভয় পেতে সমাজ শিখিয়েছে। মানুষ দেখেছে ও জেনেছে, এই সমাজ কট্টর রীতিনীতি’তে বন্দি। স্বাধীনতা শব্দটির সাথে মানুষ পরিচিত হতে চাইলেও, ভয়ভীতি লোকলজ্জার কারণে অপরিচিত হিসেবে থাকাকেই গুরুত্ব দিয়েছে।

গোপনে সব কিছু বৈধ, প্রকাশ্যে অবৈধ


পর্নোমুভি গোপনে দেখতে হয়, প্রকাশ্যে দেখলে মানুষজন খারাপ বলবে। ভিড়ের মাঝে নারীর শরীরে হাত দিতে হয়, প্রকাশ্যে দিলে মানুষজন খারাপ বলবে। প্রেমিকাকে বন্ধুর বাড়ি নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। একসাথে একাধিক সম্পর্ক গোপনে করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। গাঁজা ও মদ গোপনে খেতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। শারীরিক সম্পর্ক করে গোপনে ব্যাকমেইল করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। ধর্ষণ ও হত্যা গোপনে করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। যদিও কখনো কখনো প্রকাশ্যেও বৈধতা দেয়। পরকীয়া গোপনে করতে হয়, প্রকাশ্যে করলে মানুষজন খারাপ বলবে। চুম্ব

ইউরোপিয়ানদের কাছে বাঙলাদেশ


ইউরোপের মানুষজন বাঙলাদেশ সম্বন্ধে খুব একটা জানে না। অসংখ্য মানুষ আছে যারা বাঙলাদেশ নামক যে একটা দেশ আছে সেটাও শুনে নি। অনেক মানুষকে বলতে শুনেছি, বাঙলাদেশ আর ইন্ডিয়া এক, তাই না? এ বিষয়ে অগণিতবার মানুষজনকে বিস্তারিত বুঝিয়ে বলেছি।

ভালোবাসা হোক উন্মুক্ত


গত বছর আমার এক বোনের সাথে রাস্তায় দেখা হলে আমরা দু'জন দুজনকে জড়িয়ে ধরি। গালে চুমু খাই। বাঙলাদেশের প্রতিটা পুরুষের চোখই একেকটা অণুবীক্ষণ যন্ত্র। রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা শুয়োরগুলো অণুবীক্ষণ যন্ত্রের মাধ্যমে আমার বোনটিকে কামড়ে কামড়ে খাচ্ছিল। আমার বোনটির শাড়ি ভেদ করে ভেতরে প্রবেশ করছিল পুরুষতান্ত্রিক শুয়োরদের অর্গান। শারীরিকভাবে বোনটি আকর্ষণীয় ফিগারের অধিকারি। কোন নারীর আকর্ষণীয় শরীর হলে দেশে তাকে কী কী ধরণের অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে যেতে হয় সেটা সকলেরই জানা।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

অনন্য আজাদ
অনন্য আজাদ এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 13 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, সেপ্টেম্বর 4, 2015 - 10:56অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর