নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • দ্বিতীয়নাম
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • মিশু মিলন

নতুন যাত্রী

  • নীল মুহাম্মদ জা...
  • ইতাম পরদেশী
  • মুহম্মদ ইকরামুল হক
  • রাজন আলী
  • প্রশান্ত ভৌমিক
  • শঙ্খচূড় ইমাম
  • ডার্ক টু লাইট
  • সৌম্যজিৎ দত্ত
  • হিমু মিয়া
  • এস এম শাওন

আপনি এখানে

অনন্য আজাদ এর ব্লগ

মুসলমান মনস্তত্ত্ব - প্রথম খণ্ড


মুসলমান পুরুষেরা বোরকা ও হিজাব নিয়ে বড্ড সচেতন। পৃথিবীকে বোরকা দিয়ে ঢেকে দিতে পারলে মুসলমান পুরুষদের মত সুখী আর কেউ হতে পারবে না। মুসলমান পুরুষেরা নিজেদের ব্যবহার আচার আচরণ স্বভাব চরিত্র পোশাক নিয়ে ততোটা সচেতন নন, যতোটা মুসলমান নারীদের জোরপূর্বক বোরকা পরিধান করার ক্ষেত্রে।

প্রতিটি ধর্মগ্রন্থই কুসংস্কারে আচ্ছন্ন


সাম্প্রতি ভারতের হরিয়ানাতে একটি মেয়ে'কে গণধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে। ধর্ষকেরা অভিযোগ তুলেছে, মেয়েটি গরুর মাংস খেয়েছে। মূলত, অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ্যে। পূর্বেও ভারতে এমন অসংখ্য ঘটনা ঘটেছিল। মোদীর হিন্দু পাঠারা ধর্ষণকে অঘোষিতভাবে বৈধ ঘোষণা করে রেখেছে। এই কারণে, এই ধরণের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটে চলছে। ভারতে গরুর মাংস একটি বাহানা। মন চাইলে যাকে তাকে ধর্ষণ করে উল্লেখ করতে হবে গোমাতাকে অসম্মানের কারণে এমন পদক্ষেপ।

‘জীবনেরে কে রাখিতে পারে, আকাশের প্রতি তারা ডাকিছে তাহারে।'- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।


কোন এক ঈদের মৌসুমে কোন একটি মেয়ে নিজের উপার্জিত অর্থ দিয়ে গাবতলির হাট থেকে গরু কিনে বাড়ি ফিরছিল। পিতাবিহীন পৃথিবীতে মেয়েটি অভিভাবকের গুরু দায়িত্ব পালন করতে কার্পণ্যবোধ করে নি। মেয়েটি বেশ খুশি ছিল। সে সময়ে ৪০,০০০ টাকা দিয়ে গরু কেনা বিশাল ব্যাপার।

শেখ মুজিব কি সমালোচনার ঊর্ধ্বে


স্বাধীনতার মহাস্থপতি শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করায় একই পরিবারের দুইজনকে গ্রেপ্তার করে বাঙলাদেশ পুলিশ। সম্প্রতি শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে একটি আইনের খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। অর্থাৎ শেখ মুজিবকে স্মরণ করতে হলে শুধুমাত্র প্রশংসা করতে হবে। শেখ মুজিবের ক্ষেত্রে সমালোচনা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। সমালোচনাকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে। যেহেতু এই আইন সম্পর্কে এখনো বিস্তারিত ব্যাখ্যা করা হয় নি, সেহেতু এই আইনের অন্যান্য দিকগুলি নিয়ে মন্তব্য না করা যাচ্ছে না।

চাকুরীর ক্ষেত্রে সৃজনশীলতা গুরুত্বপূর্ণ নয়


মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় জিপিএ পাঁচ পেতেই হবে। তা না হলে মানিজ্জত শেষ। বর্তমানে জিপিএ পাঁচ না পাওয়ার কারণে অনেকেই আত্মহত্যা করে থাকে। কারণ এখন তো গরু ছাগল হাঁস মুরগী সকলেই জিপিএ পাঁচ পেয়ে থাকে।

মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর থেকে শুরু করে ফেইসবুক জ্ঞানী-বিজ্ঞানী অনেকেই বললেন, জিপিএ পাঁচ গুরুত্বপূর্ণ নয়। রবীন্দ্রনাথ প্রাতিষ্ঠানিক পড়াশোনায় ভালো ছিলেন না। আহমদ শরীফ থার্ড ডিভিশন পেয়েছিলেন। সাকিব আল হাসান জিপিএ পাঁচ পান নি। তাতে কী তাদের কোন সমস্যা হয়েছে? কিন্তু বাস্তব সম্পূর্ণ ভিন্ন।

পুরুষমানুষের প্রাণপ্রিয় বচন


মেয়েরা এত ন্যাকামি করে, মেয়েরা এত ঢং করে, মেয়েরা এত আহ্লাদ করে- এসব পুরুষমানুষের প্রাণপ্রিয় বচন। আবার মেয়েরা যখন ন্যাকামি, আহ্লাদ, ঢং না করে তখন তারাই বলে কাঠকোট্টা মেয়ে। একটু দুষ্টুমিও করতে পারে না। মেয়েদের জীবন সহজ নয়। জীবনের প্রতিটি লগ্নে অগ্নিপরীক্ষা।

তবে কি পুরুষেরা আহ্লাদ করে না? ঠিকই করে। ভালোই করে। কিন্তু এমন ভাবমূর্তি তৈরি করে রেখেছে যে তাদের ক্ষেত্রে আহ্লাদীপনা স্বীকার করা লজ্জাজনক। কোন মেয়েকে পাওয়ার জন্য পুরুষেরা যে পরিমাণ ন্যাকামি-আল্লাদ-ঢং করে, ঠিক পাওয়ার পরেই দৌত্যদানব ভাবমূর্তি পুরনরুদ্ধারে ব্যস্ত হয়ে পড়ে।

এভারেস্ট বিজয়ী ওয়াসফিয়া নাজরিন কোন মতাদর্শের


গুলশানে হামলাকারী জঙ্গি তাহমিদের জন্য এভারেস্ট বিজয়ী ওয়াসফিয়া নাজরিন আবেগপ্রবণ স্ট্যাটাস প্রসব করেছেন। গুলশান হামলার সাথে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের জঙ্গি শিক্ষক হাসনাত ও তাহমিদ ওতপ্রোতভাবে জড়িত।

জঙ্গি হাসনাতের পিতার মন্তব্য ও হাসনাতের সাথে তাহমিদের পিস্তলসহ একাধিক ছবি এবং গুলশান ঘটনাস্থলে স্ত্রীর উপস্থিতি প্রমাণ করে এই হামলার সাথে হাসনাতের পুরো পরিবার জড়িত।পরিবারের সকল সদস্যদের গ্রেপ্তার করলে তথ্য খুব দ্রুততার সাথেই প্রকাশিত হবে।

বাঙালির প্রিয় শব্দ Boobs


ফেইসবুকের কল্যাণে একটি ইংরেজি শব্দ শিখতে পেরেছি। শব্দটি 'Boobs'. আমাদের দেশে এই ইংরেজি শব্দটি যে এত জনপ্রিয় তা ফেইসবুক না ব্যবহার করলে জানাই হতো না। এমন কোন দিন নেই যে ছবির মন্তব্যের বক্সে এই শব্দ দেখি নি। আমার মত হয়তো আরো অনেকেই লক্ষ্য করেছেন।

গরু ও শুয়োর উভয়ই কী হারাম


সাম্প্রতিক, ভারতে গরুর মাংস কেনার অপরাধে দুজন নারীকে চড় থাপ্পড় লাত্থি মারা হয়েছে। প্রথমে হিন্দু মৌলবাদী নারীরা মারামারি শুরু করে এবং পরবর্তীতে সবাই মেলে আক্রমণ চালায়। পুলিশের চোখের সামনেই ঘটনাটি ঘটেছে। কিন্তু উত্তেজিত মূর্খ মৌলবাদী জনতার সামনে পুলিশ টাট্টু ঘোড়া হয়ে দাড়িয়ে ছিল। পরবর্তীতে পুলিশ বাহিনী অসাধারণ ভূমিকা পালন করেছে। পুলিশ আক্রমণকারীদের গ্রেপ্তার না করে, বরং নির্যাতনে শিকার হওয়া দুজন নারীকে গ্রেপ্তার করেছে।

জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে হলে


জঙ্গিবাদীদের মদদদাতা মাদ্রাসার শিক্ষকেরা বলেন জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে হলে ‘বিবস্ত্র চ্যানেল’ বন্ধ করতে হবে। কিন্তু বিষয়টি সম্পূর্ণ উলটো।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

অনন্য আজাদ
অনন্য আজাদ এর ছবি
Offline
Last seen: 21 ঘন্টা 52 min ago
Joined: শুক্রবার, সেপ্টেম্বর 4, 2015 - 10:56অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর