নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মিশু মিলন
  • মোমিনুর রহমান মিন্টু
  • সত্যর সাথে সর্বদা
  • রাজিব আহমেদ
  • দীপ্ত সুন্দ অসুর
  • ফারুক
  • আব্দুল্লাহ্ আল আসিফ
  • নীল কষ্ট

নতুন যাত্রী

  • ফারজানা কাজী
  • আমি ফ্রিল্যান্স...
  • সোহেল বাপ্পি
  • হাসিন মাহতাব
  • কৃষ্ণ মহাম্মদ
  • মু.আরিফুল ইসলাম
  • রাজাবাবু
  • রক্স রাব্বি
  • আলমগীর আলম
  • সৌহার্দ্য দেওয়ান

আপনি এখানে

অনন্য আজাদ এর ব্লগ

ইসলাম নারীকে দিয়েছে অভূতপূর্ব সম্মান ও সুমহান অধিকার


এক কাঠমোল্লা নারীর প্রতি পুরুষের কীরূপ দায়িত্ব ও কর্তব্য সেই বিষয়ে ধর্মীয় জ্ঞান দিতে এসেছিলেন। প্রথমেই তিনি বললেন, আমার প্রকাশিত 'সতীত্ব বনাম বহুগামিতা' প্রবন্ধের বইটির নামকরণ ব্যাপক পরিমাণে অশ্লীল, যা নারীকে পথভ্রষ্ট করে তুলতে পারে। কাঠমোল্লাকে যখন বললাম, হাজার বছর ধরেই তো নারীরা বিপদের মধ্যেই আছে, সেখানে আর কতোই বা পথভ্রষ্ট হতে পারে!

কাঠমোল্লা আমাকে অনেকক্ষণ বোঝানোর চেষ্টা করলেন যে, পুরুষ হয়ে আমি যেই মর্যাদা ও অধিকার পেয়েছি সেটা যেন নষ্ট না করি! পুরুষের দায়িত্ব নারীকে আগলে রাখা, যত্ন নেওয়া, খেয়াল রাখা, বাচ্চা দেওয়া, উপার্জন করে নারীর চাহিদা মেটানো ইত্যাদি।

ইসলাম নারীকে দিয়েছে সর্বোচ্চ সম্মান ও সুমহান মর্যাদা


এক মোল্লা ধর্মীয় জ্ঞান দিতে এসেছিলেন। তাকে বললাম, ইসলাম নারীকে দিয়েছে সর্বোচ্চ সম্মান ও সুমহান মর্যাদা। আমার কথা শুনে মোল্লার দীঘল ঘনকালো দাড়ির মধ্যখান থেকে সাদা দাঁতের ঝিলিক লক্ষ্য করলাম। মোল্লা বললেন, 'মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত! নারীকে এতো সম্মান আর কোন ধর্ম দেয় নি।'
মোল্লাকে জিজ্ঞেস করলাম, এর জন্য কি সারাক্ষণ মায়ের পায়ের নিচে বসে থাকতে হবে? মোল্লা হেসে বললেন, না। মাকে কাজেকর্মে সাহায্য করতে হবে, মায়ের পাশে দেয়ালের মতো দাঁড়াতে হবে, সম্মান করতে হবে ইত্যাদি।

শিল্পীর স্মরণে


ভালোবাসতে ভালোবাসি তোমায়,
বিচ্ছেদে পরিপূর্ণতা পায়।
মিশে ছিলাম পরস্পরের বাহুবন্ধনে,
ওষ্ঠে ওষ্ঠ রেখে গ্রহণ করেছিলাম অমৃতের স্বাদ,
পেয়েছিলাম আমরা নতুন জীবনের পরিপূর্ণতা।

প্রথাগত জীবনে নতি স্বীকার করে
হারিয়ে গেলে জীবনকে অপূর্ণ শূন্যতায় ভরিয়ে।
বিচ্ছেদ ঘটালে আমাদের বাহু বন্ধনের,
ছাড়িয়ে নিলে তোমার ওষ্ঠ আর অধর,
ক্ষণিকের ব্যবধানে অমৃত মনে হতে লাগলো বিষাক্ত বিষ,
পান করতে থাকি,
নিলাভ নীল হয়ে এসেছে শরীর।
ভেবো না আমার প্রস্থানে তোমার মুক্তি,
অথবা তোমার দুরত্বে আমার বিস্মৃতি।

নাস্তিকতা যখন অত্যাচারের অজুহাত


বেগম রোকেয়া যখন নারীমুক্তির আন্দোলন শুরু করেছিলেন তখন এই পুরুষতান্ত্রিক ধর্ম সমাজ রোকেয়াকে থামানোর জন্য নানা ধরণের কৌশল অবলম্বন করেছিল। রোকেয়াকে সহ্য করতে হয়েছিল ইসলামিক মৌলবাদীদের দ্বারা অসহ্য যন্ত্রণা।

কাজী নজরুল ইসলামকে এখন বাঙলাদেশের জাতীয় কবি বলে খুব গর্ব করে মুসলমান বাঙালিরা অথচ এক সময় এই কবির গলায় ছুরি চালানোর জন্য ইসলামিক মৌলবাদীরা হিংস্র থেকে হিংস্রতর হতে উঠেছিল।

যে মুনীর চৌধুরীকে একাত্তুরে হত্যা করা হয়েছিল- যার নামের পূর্বে ‘শহিদ বুদ্ধিজীবী’ শব্দদ্বয় জুড়ে দিয়ে মায়াকান্নায় ভাসিয়ে দেই- সেই মুনীর চৌধুরীকে অনেক যন্ত্রণা দিয়েছিল ইসলামিক মৌলবাদীরা।

বাঙলাদেশের ভাবমূর্তি


ব্লগাররা দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। নাস্তিক ব্লগাররা দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। কীভাবে নষ্ট করছে?

বিয়েই জীবন, বিয়েই মরণ


আজ পর্যন্ত আমার পরিবার আমাকে বিয়ে করার জন্য জোরজবরদস্তি করে নি। কিন্তু আমার আশেপাশের মানুষজন সারাদিন আমাকে বিয়ে করা নিয়ে ঘ্যানঘ্যান করতেই থাকে। তাদের ভাষ্যমতে, বিয়েই হচ্ছে নারী ও পুরুষের জীবনের একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্য। এমন ভাব যেন, বিয়ে ব্যতীত জীবনের কোন মূল্য নেই।

যেখানে ভালোবাসা নেই, সেখানেও বিয়ে মুখ্য। যেখানে প্রেম নেই, সেখানেও বিয়ে গুরুত্বপূর্ণ। যেখানে আস্থা অর্জন করা কষ্টকর, সেখানেও বিয়ে জরুরী। বিয়ে করতেই হবে। বিয়ে না করলে যেন এই সমাজ, রাষ্ট্র, গোবরভরা মস্তিষ্কের কীটপতঙ্গগুলি বুলেট ছুঁড়ে মারবে।

শিশুরা জেগে থাকুক সবুজে


আমার বাচ্চা খুব ভালো লাগে। শিশুরা এতটাই নিষ্পাপ হয় যে তাদের মুখের দিকে তাকালে দুঃখ, কষ্ট, যন্ত্রণা ভুলে থাকা যায়। ২০০৯ এর পূর্বে আমার কোন ধারণাই ছিল না যে বাচ্চারা বিভিন্ন পরিস্থিতিতে কী রকম অঙ্গভঙ্গি করে, ক্ষুধা পেলে কী করে, আপনজনকে দেখতে পেলে কী করে ইত্যাদি!

অপরাধের বৈধতা


শেখ হাসিনার যতো বয়স বাড়ছে, তিনি ততোই ভারসাম্যহীন হয়ে যাচ্ছেন। সাম্প্রতিককালে তিনি 'গুম' নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন তাতে তিনি যে একটি অগতান্ত্রিক রাষ্ট্রের একজন দায়িত্বজ্ঞানহীন স্বৈরশাসক তাই প্রমাণ হচ্ছে।

স্রোতের বিপরীতে চলা নারী


আমার পরিচিত একজন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। তিনি যখন সেই বিভীষিকাময় পরিস্থিতির বর্ণনা করছিলেন, আমি নিজেই দুমড়ে-মুচড়ে যাচ্ছিলাম। যারা ধর্ষণের মতো জঘন্য অপরাধের ভুক্তভোগী, তাদের মধ্যে খুব অল্প সংখ্যক মানুষ থাকেন, যারা সেই যন্ত্রণাকে উপচে ফেলে সামনের দিকে অগ্রসর হতে পারেন।

প্রতিক্রিয়াশীল রাজনীতি


বাঙালির মানবতা শুধু সন্দেহজনকই নয়, বরং বিপদজনকও বটে। প্রায় দুইমাস আগে কোন একজনের সাথে বাঙলাদেশে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া নিয়ে আলোচনা করছিলাম। তিনি যা বলেছিলেন, তা মানবতার ক্ষেত্রে ভুল বলেন নি। কিন্তু বাঙলাদেশ রাষ্ট্রের ও বাঙালির মানবতা যে স্বার্থকেন্দ্রিক, নির্দিষ্ট গোষ্ঠীকেন্দ্রিক তা তিনি অস্বীকার করতে চাচ্ছিলেন। আজকের দিনের বাঙলাদেশের রাজনীতি সম্বন্ধে তার জ্ঞান সীমিত বলা যেতেই পারে।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

অনন্য আজাদ
অনন্য আজাদ এর ছবি
Offline
Last seen: 2 দিন 4 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, সেপ্টেম্বর 4, 2015 - 10:56অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর