নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • কাঙালী ফকির চাষী
  • মারুফুর রহমান খান
  • মিঠুন বিশ্বাস

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

আসসাঈদ আলম এর ব্লগ

" সুখ "


আজকাল দেখি ওরা রোজ রোজ
টাকা দিয়ে সুখ কিনতে যায়,
কিনতে যায় বললে অবশ্য ভুল বলা হয়,তারচেয়ে বরং বলা চলে, ওরা সুখ
খুঁজতে যায়। আমি চুপচাপ দেখি আর হাসি, তবে শব্দ করি না। আমি দেখি পাখীরাও হাসছে শেষ বিকেলের
কাঁঠবেড়ালিটাও হাসছে কিংবা ক্লান্ত শালিকটাও।
ওরা কিভাবে বুঝবে ট্রামে ধাক্কা খাওয়ার ঠিক আগে
কতটা সুখে ছিলেন জীবনানন্দ দাশ। কিংবা মধুসূদন যখন প্রবাস জীবনের কষ্টে আবার বাংলায় ফিরে এলেন!!!
কিভাবে বুঝবে প্রতিটা বালুদানায় কতটা সুখ আছে।
কিভাবে বুঝবে পঞ্চম_তলার বেলকনিতে বসে থাকা নিঃসঙ্গ
বালকের_অশ্রু_নিংড়ানোর গল্পটা।

কি পাও ভাই ওইটার ভিতর???


আসলামুআলাইকুম ভদ্র,সুশীল সাপ্তাহিক মুসল্লি,কেমন আছেন? ধুর এইসব কথা বাদ দিয়া আসল কথা বলি!

ভুয়ামি বাদ দাও


আপনি কি নিজেকে মনে করেন ধর্ম বিশ্বাসী
মডারেট, উদারপন্থী, নারীর প্রতি বৈষম্য
বিরোধী, অর্থাৎ শান্তিকামী; আবার একই সঙ্গে
মনে করেন কার্টুন একে ব্যঙ্গ করা অপরাধ, ধর্মের
সমালোচনা করা অপরাধ?
তাহলে আপনি কোন ভাবেই শান্তিকামী নন।
আপনি সেই পর্যায়ের ব্যক্তি, যে অন্যের ধর্ম
সমালোচিত হলে আত্মতৃপ্তি লাভ করে, কিন্তু
নিজের বিশ্বাস প্রশ্নবিদ্ধ হলে মনে মনে ক্ষিপ্ত
হয়ে ওঠে। আপনি সমাজে শিক্ষিত সভ্য হিসেবে
পরিচিত তাই প্রকাশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করতে পারেন
না, তাই বলে ঘুরিয়ে পেঁচিয়ে উস্কানি দিয়ে
সমালোচনাকারীর ক্ষতি সাধন করার চেষ্টায় কমতি
রাখেন না। "ব্লাসফেমি" শব্দটি শুনলে আপনি না

" আমি অন্ধ "


আমার চশমার পাওয়ার লেফট: -3.50d
রাইট: -3.50d
অর্থাৎ চোখের রেটিনায় যে প্রতিবিম্ব সৃষ্টি
হয়,অক্ষিগোলক বড় হবার কারনে তা ফোকাস দূরত্ব
থেকে বহুত দূরে প্রতিফলিত হয়।
সহজ ভাষায় আমার চোখের সামনে দিয়ে একটা পাঁচ
টনের ডায়ানাসর দৌড়ায়া গেলে আমি দেখতে
পাবো একটা বড় লেজের পাকিস্তানি মুরগি
দৌড়াদৌড়ি করতেসে!
আমি অন্ধ! চশমা ব্যাতিত কিছুই দেখিনা! সামান্য
দুইটা কথিত চোখ করোটিতে ঝুলে আছে!
এমতাবস্থায় যদি কেউ আমার চশমা খুলে নিয়ে বলে
"আমার চোখের দিকে তাকা! কি দেখতে
পাচ্ছিস!?"
প্রতুত্তরে যদি #আসসাঈদ আলম বলে "কি আবার!?

"Alone but happy"


অনেক দিন থেকেই ভাবছি লিখতে হবে নতুন কিছু।
কি লিখব? কি লিখব করে লাগলাম ছুটতে ভাবনার পিছু।
আর কিছু ভাবতে চাই না, ভাবনার টানলাম ইতি।
কাগজ-কলম হাতে নিয়ে লিখতে আরম্ভ করলাম ভালবাসার গীতি।

স্কুল জীবন শেষ করে কলেজ জীবন দিচ্ছি পারি।
কলেজে গিয়ে regular দেখি সেখানে ভালবাসার ছড়াছড়ি।
ক্লাস টাইমে ও ছুটির পরে ছেলেমেয়ে রা বসে আড্ডা মারে কবুতরের জোড়ার মত।
নিয়মিত কিছু জোড়া কলেজ দেয় ফাঁকি।
(বর্ণ+ইশতিয়াক) এদের নামেও touch দিয়ে রাখি।
এখানে ওখানে ঘুরে বেড়ায় হাতে হাত রাখি।

চারিদিকে প্রেম, ভালোলাগা ও ভালবাসার খেলা।
শুধু আমিই এই পৃথিবীর বুকে নিঃস্ব, সঙ্গীহীন ও একেলা!!
# তবুও নেই আপসোস।

"মানুষ নাকি সৃস্টির সেরা!!!"


হিংস্র সভ্যতা আর মুখোশের আড়ালে তুমি আমি
ভাল মানুষের অভিনয় প্রতিনিয়ত করে যাচ্ছি .....
বিলুপ্ত ভালবাসা, স্নেহ, মায়া-মমতা।।
লোভ লালসা হিংসা গিলে_খাচ্ছে বিবেক.....
তবুও আমরা এখনো নিজেদের কে পৃথিবীর
শ্রেষ্ঠ জীব ভাবি!!!
আমাদের চেয়ে পশু পাখির ভালবাসা অনেক গভীর,
আমাদের বিলুপ্তের দিন আর বেশী বাকি নয়।
আমরা ও একদিন চিড়িয়াখানার জীব হতে
যাচ্ছি.....
হয়তো খুব ভাল শেলে থাকার যোগ্যতা আমাদের
হবে না। তবে বাদাম আমরা নিশ্চয়ই পাব। আমাদের
দেখে কেউ হয়তো অনাবিল বিনোদনের উৎস খুঁজে
পাবে।
আমরাও সেদিন তাদেরকে খুশি করার জন্য যা
করনীয় তাই করব।।
হয়তো নাও করতে পারি।
কেননা আমরা মানুষ ।

বোর্ডিং কার্ড

আসসাঈদ আলম
আসসাঈদ আলম এর ছবি
Offline
Last seen: 2 months 2 weeks ago
Joined: বুধবার, আগস্ট 19, 2015 - 2:20পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর