নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • কাঙালী ফকির চাষী
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • মাহের ইসলাম
  • মৃত কালপুরুষ

নতুন যাত্রী

  • নীল মুহাম্মদ জা...
  • ইতাম পরদেশী
  • মুহম্মদ ইকরামুল হক
  • রাজন আলী
  • প্রশান্ত ভৌমিক
  • শঙ্খচূড় ইমাম
  • ডার্ক টু লাইট
  • সৌম্যজিৎ দত্ত
  • হিমু মিয়া
  • এস এম শাওন

আপনি এখানে

ফাহিমা কানিজ লাভা এর ব্লগ

ডানকান ব্রাদার্সের চা শ্রমিকদের ওপর রাষ্ট্রীয় নিপীড়ন


যে চায়ের কাপে চুমুক দিয়ে দিনের শুরু করি আমরা, সেই চা আমাদের ঘরে আসে অনেক শ্রমিকের হাড়ভাঙ্গা খাটুনির বদৌলতে। সেই চা শ্রমিকেরা, যারা উদয়স্ত খেটে মজুরি পায় নামমাত্র। সেই মজুরিতে দুবেলা ভরপেট আহার জোটে না তার পরিবারের, মাথা গোঁজার ঠাঁইটুকুনও জরাজীর্ণ, শিক্ষা-চিকিৎসার মতো মৌলিক অধিকার তাদের কপালে জোটে না বললেই চলে। ওদিকে চা বাগানের মালিকরা পায় ভর্তুকী মূল্যে সার, স্বল্পসুদে সহজ শর্তে ঋণ ও অন্যান্য সকল সুযোগ-সুবিধা। শ্রমিকদের শ্রম সস্তায় কিনে বিপুল মুনাফার পাহাড় তৈরি করে এই চা বাগান মালিকরা। রাষ্ট্রও যুগ যুগ ধরে বিত্তহীন শ্রমিকদের ঠেঙ্গিয়ে পুঁজিপতিদের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করে আসছে।

শহীদ বুদ্ধিজীবী মোহাম্মদ মোর্তজা এবং আমাদের ট্রাজেডি


১৬ ডিসেম্বর আমরা বিজয় দিবস পালন করি। এর ঠিক আগে আগে ১৪ ডিসেম্বর আমাদের পালন করতে হয় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। আনন্দের পূর্ব মুহূর্তে শোক। হয়ত সমস্ত বিজয়ের আনন্দের পেছনেই শোকের ছায়া থাকে। কিন্তু বাংলাদেশ যেন এক ঐতিহাসিক ট্রাজিক নাটকের কুশিলব, যাকে শোকের কালো ছায়া তাড়া করে ফিরছে, স্বাধীনতার ৪৪ বছর পরেও। লক্ষ মানুষের বীরতত্মপূর্ণ সংগ্রাম আর অগণিত মহৎ প্রাণের আহুতির মধ্য দিয়ে যে স্বাধীনতা আমরা পেয়েছি – এই স্বাধীনতাই তাঁদের কাম্য ছিল?

রোকেয়ার আর্কিমিডিয়ান পয়েন্ট ‘নারীশিক্ষা’


৯ ডিসেম্বর, রোকেয়ার জন্ম ও মৃত্যু দিবস। রোকেয়ার জন্ম হয়েছিল আজ থেকে ১৩৫ বছর আগে, ১৮৮০ সালে। মৃত্যু ১৯৩২ সালে। যখন বাংলাসহ সমগ্র ভারতবর্ষ পরাধীনতার শৃঙ্খলে আবদ্ধ। সমাজ ছিল কুসংস্কার, কূপমণ্ডুকতা ও ধর্মীয় গোড়ামিতে আচ্ছন্ন। বিশেষত মুসলিম সমাজ ছিল আরো রক্ষণশীল। সে সমাজে নারীদের অবরোধ প্রথা ভেঙে শিক্ষা গ্রহণের কথা ভাবাও যেত না। এমনই এক সময়ে যুক্তিবাদী-বিজ্ঞানমনস্ক এ সমাজ সংস্কারকের অভ্যুত্থান ইতিহাসে একটি বিশেষ ঘটনা।

রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে এক বিষ্ফোরণের নাম ইয়াসমিন


মোছা. ইয়াসমিন আক্তার। বয়স ১৩/১৪। বাড়ি তাদের দিনাজপুর শহরের রামনগর মহল্লায়। বাবা নেই। গরিব মা শরীফা বেগম ইয়াসমিনকে পাঠিয়েছিলেন ঢাকায় – মেয়ে কাজ করবে, কিছুটা হলেও অভাব ঘুঁচবে। কিশোরী মেয়েটি অচেনা শহরে এসেছিল গৃহপরিচারিকার কাজ করতে। মায়ের জন্য তার মন কাঁদে, তাই মাকে দেখতে সে বাড়ির পথে পা বাড়াল। কিন্তু বাড়িতে সে আর পৌঁছুতে পারে নি। ১৮ মাস পর সেই মেয়ে ফিরে এলো – লাশ হয়ে। পুলিশের হাতে ধর্ষিত হয়ে খুন হল কিশোরী ইয়াসমিন। আর ইয়াসমিন হত্যার বিচার চাইতে গিয়ে এক শিশু, সাত-আট বছরের এক কিশোরসহ প্রাণ দিল সাতজন মানুষ। ছোটভাই শফিকুলের বোন ইয়াসমিন হয়ে উঠল ‘সাত ভাই চম্পা’র মতো এক মিথ, এক পুরাকাহিনীর চরিত্র। স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে গণতান্ত্রিক লড়াইয়ের প্রতীক নূর হোসেনের মতো ইয়াসমিন হয়ে উঠল নারীর ওপর রাষ্ট্রীয় নির্যাতনের প্রতীক।

২ আগস্ট, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে খুনি-ধর্ষক প্রতিরোধ দিবস।


১৯৯৮ সালে জাঃবিঃ ছাত্রলীগের 'মহান' সেঞ্চুরিয়ান ধর্ষক নেতা সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন মানিক ও তার গ্রুপের বিচারের দাবিতে বামপন্থী ছাত্র সংগঠন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট- ছাত্র ইউনিয়নের নেতা-কর্মী ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের সম্মিলিত আন্দোলন প্রবল থেকে প্রবলতর হতে থাকে। কিন্তু ধর্ষক মানিক ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের নেতা ও তৎকালীন জাঃবিঃ-র প্রক্টরের আদরের ভাগনে হওয়ায় প্রশাসন অনেকটা নীরব ভূমিকা পালন করে।

একটি নাসিরের বোন, আমরা ও আমাদের রাষ্ট্র


ভারতের সঙ্গে সিরিজ জয়ের পর বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ঢাকা থেকে সৈয়দপুর যাওয়ার সময় নাসির তার ছোট বোনের সাথে তোলা একটি ছবি তার ফেসবুক ফ্যান পেজে দেয়ার পর আমাদের দেশের অনেক দুষ্টু ছেলে তা দেখে একটু দুষ্টুমি করে কিছু দুষ্টু মন্তব্য করেছে যা অনেকেরর বিবেকে গিয়ে বিঁধেছে। আপনি লজ্জায় মাথা নত করে ভাবছেন- কি অসভ্য এই জাতি!! অবশ্য নাসিরের বোন না হয়ে আম-ভাইয়ের কোন বোন হলে আপনাদের এতো লজ্জা লাগতো কিনা জানি না!!

আনিস রায়হানের সিপিবি-বিচার : গলদের গোড়াটা কোথায়?


আনিস রায়হানের সিপিবি-বিচার : গলদের গোড়াটা কোথায়?
অালী নাঈম

বর্ষবরণ উৎসবে নারী লাঞ্ছনার বিচার চাই


সম্প্রতি বাংলা বর্ষবরণ উৎসবে বিভিন্ন স্থানে নারীদের লাঞ্ছনা ও যৌন নিপীড়নের ঘটনা দেশবাসীকে ক্ষুব্ধ ও ব্যথিত করেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে ন্যাক্কারজনক ও বর্বরতম ঘটনাটি ঘটেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টি.এস.সি. এলাকায়।

মহান বিজ্ঞানী সত্যেন বোসকে স্মরি


আইএস.সি. কেমিস্ট্রি প্রাক্টিকাল ক্লাস। প্রাক্টিকাল করার সময় মনে কিছু নতুন প্রশ্নের উদয় হয় ছাত্রটির। ক্লাসে সময় না থাকায় বাড়িতে পরীক্ষা নীরিক্ষার জন্য কিছু কেমিক্যাল ও যন্ত্রপাতি নিয়ে যাবার পথে আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র রায়ের চোখে ধরা পরে যায় ছাত্রটি।

প্রফুল্ল চন্দ্রঃ চাদরের তলায় কি নিয়ে যাচ্ছিস সত্যেন?
সত্যেন বোসঃ আপনাকে না দেখতে পেয়ে আপনার বিনা অনুমতিতেই ওগুলো বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছি বিশেষ কয়েকটা পরীক্ষা চালানোর জন্য।
প্রফুল্ল চন্দ্রঃ এতো তোর নয়, একটু উচু ক্লাসের পরিক্ষার জন্য এগুলো দরকার।
সত্যেন বোসঃ আমার জানতে ইচ্ছা করে।
প্রফুল্ল চন্দ্রঃ কি ফল পেলি আমাকে অবশ্যই জানাবি।

২৪ আগস্ট, নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস।



১৯৯৫ সালের ২৪ শে আগস্ট, সকালের স্নিগ্ধ আলোকে ম্লান করে দিয়ে সেদিন এক নিরপরাধ কিশোরীর জীবনে নেমে এসেছিল নিকষ কালো রাতের মতো অন্ধকার!! দিনাজপুর শহরের রামনগর মহল্লার এক সহজ-সরল কিশোরী কর্মস্থল ঢাকা থেকে বাড়িতে যাচ্ছিলো মায়ের সাথে দেখা করতে। ভোরে দিনাজপুরের দশমাইল মোড়ে বাস থেকে তাকে নামিয়ে দেয়া হলে পুলিশের জিম্মায় মায়ের কাছে যাবার কথা ছিল তার। কিন্তু রক্ষক যখন ভক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়, তখন মানবতার হয় চরম পরাজয়।

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

ফাহিমা কানিজ লাভা
ফাহিমা কানিজ লাভা এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 11 ঘন্টা ago
Joined: বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 16, 2014 - 2:55অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর