নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নগরবালক
  • সলিম সাহা
  • বেহুলার ভেলা
  • লালসালু

নতুন যাত্রী

  • সুশান্ত কুমার
  • আলমামুন শাওন
  • সমুদ্র শাঁচি
  • অরুপ কুমার দেবনাথ
  • তাপস ভৌমিক
  • ইউসুফ শেখ
  • আনোয়ার আলী
  • সৌগত চর্বাক
  • সৌগত চার্বাক
  • মোঃ আব্দুল বারিক

আপনি এখানে

সুষুপ্ত পাঠক এর ব্লগ

ইসলামের সেক্যুলারিজম: শঠতা যেখানে আদর্শ


সব সময় শুনবেন ইসলামে সাম্য-ভ্রাতিত্ব-শান্তির কথা বলে। আবার শুনবেন এখানে ভিন্ন ধর্মের মানুষের সমস্ত অধিকার রয়েছে, শুনবেন ইসলাম খোদ সেক্যুলারিজমের কথা বলে! আরো শুনবেন ইসলাম গণতন্ত্রের কথা বলে! আরো শুনবেন ইসলাম শুধু একটি জীবন বিধান, জীবন আদর্শ, এর সঙ্গে রাজনীতির কোন সম্পর্ক নেই। ধর্মব্যবসায়ীরা, যেমন জামাতে ইসলামী, খেলাফত মজলিস, ইসলামী ঐক্যজোটের মত ধর্ম ব্যবসায়ীরা ইসলাম নিয়ে রাজনীতি করে যারা সঙ্গে ইসলামের কুনু সম্পর্ক নাই!

আইএসকে মুসলিমরাই স্বাগত জানিয়েছিল: তারা জানতো না প্রকৃত ইসলামের এত মজা!


সিরিয়াতে যখন আইএসের আগমন ঘটে তখন জনগণ (পড়ুন মুসলমানরা) তাদেরকে স্বাগত জানিয়েছিল। না, এটি আমার কথা নয়। লক্ষ লক্ষ শরণার্থী যারা নিজ গৃহ ছেড়ে জীবন হাতে নিয়ে সিরিয়া-ইরাক থেকে ইউরোপে পাড়ি জমাচ্ছে এটি তাদের স্বীকারোক্তি। কেন আইএসকে সিরিয়ানরা ফুলের মালা নিয়ে স্বাগত জানালো?

ইসলামের মত পরজীবীর দিন কি ঘনিয়ে আসছে?


কুরআন-হাদিস-সিরাত মোতাবেক আইএসকেই সবচেয়ে নিখুঁতভাবে ইসলামকে অনুসরণকারী বলে রায় দেয়ার যথেষ্ঠ কারণ আছে। কিন্তু বহু তাত্ত্বিক আলেমের কাছে অস্বস্তির কারণ ছিল আইএসের আত্মপ্রকাশের এখন উপযুক্ত সময় ছিল কিনা। জিহাদ নিয়ে পড়াশোনা থাকলে জানবেন, জিহাদের সময় হয়েছে কিনা সেটা ইসলামের একজন ইমাম ঠিক করবেন। জিহাদের সঠিক সময় নির্ধারন করা জরুরী। যেমন মুসলিমরা যদি সংখ্যায় কম থাকে তাহলে জিহাদের ডাক দেয়ার বারন আছে। সংখ্যায় বেশি হলেই জিহাদের রকম নিয়ে চিন্তা করতে হবে। যে কারণে বহু আলেম, ইসলামী গবেষক, খেলাফত নিয়ে কাজ করা ব্যক্তিবর্গ বিব্রতকর মৌণতায় ছিলেন আইএস নিয়ে। সত্যিকারের ইসলাম, নবী মুহাম্মদের যুগের ইসলামকে দেখে

ইসলাম ও সন্ত্রাস


এক কথায় মুহাম্মদ তার ধর্মের সারকথা বুঝিয়ে দিয়েছেন। বেহেস্ত হচ্ছে তরবারির ছায়াতলে। তরবারি হচ্ছে ইসলামের সিম্বল। সহি হাদিস বলছে,

পুত্রশোক


-এই যে দ্যাখ, মক্কা শরীফের মাটি!

কাপড়ের পুটলির মধ্যে মুলতানি মাটির মত কিছু একটা দেখা যায়। মোকসদা ভুরু কুঁচকে পুটলির দিকে চেয়ে থাকে। লোকমানের চোখে-মুখে পবিত্র জিনিস ধরে থাকার বিনম্র গর্ব। মোকসদা বারোমাসী আমাশয় রোগী, সে জন্যই কিনা কে জানে তার ভক্তিটক্তি একটু কম। মেজাজটা সব সময় খিটিমিটি। স্বামীর দিকে চেয়ে ধারালো গলায় বলল, মক্বা শরীফের মাটি দিয়া আমি কি করুম?

লোকমান দ্বিতীয় চমক দেখানোর মত করে পানি ভর্তি একটা প্লাস্টিকের বোতল দেখায়। এই দেখ জমজমের পানি। সাবে নিজে আইয়া আমারে দিলো। কইছে, বিকালে আহিছ, জায়নামাজ আর টুপি দিমুনে…

হযরত মুহাম্মদের আগমনী বার্তা কি ইহুদী-খ্রিস্টানদের কিতাবে উল্লেখ আছে?


ছোটবেলায় বড়দের মুখে শুনতাম গৌতম বুদ্ধ তার শিষ্যদের কাছে হযরত মুহাম্মদের আগমনের সংবাদ পৌঁছে দিয়ে বলেছিলেন তিনি যা করতে বলবেন তা শুনতে কিন্তু বুদ্ধের মৃত্যুর পরে শিষ্যরা সেটা না করে নিজেদের মত ধর্ম চালাতে থাকে। …এখন জানি গৌতম বুদ্ধ ঈশ্বর, স্বর্গ, নরক বিবর্জিত একটি নাস্তিক্য মতবাদ প্রচার করেছিলেন। উনার “ধর্মে” ঈশ্বর পরকালের কোন স্থান নেই। সেখানে কেমন করে মুহাম্মদের আগমন বার্তা তিনি প্রচার করেন এখন ভাবলে হাসিই পায়। একজন সাধারণ মুসলিম জ্ঞান হবার পর থেকে কিছু কমন বিষয়ে বিশ্বাস রাখে যেমন- শুধুমাত্র মুসলিমরাই বেহেস্তে (এখন জান্নাত বলার চর্চা দেখছি!) যাবে, বাকী অমুসলিমরা সব দোযগে প্রবেশ করবে। হযরত ম

মসজিদুল হারামে ক্রেন দুর্ঘটনা ও নিধিরাম সর্দার!


মসজিদুল হারামে যখন ক্রেন ভেঙ্গে শতাধিক মানুষ মারা যায় তখন আল্লাহ কি করছিলেন? সাধারণ প্রচলিত ধর্মীয় ব্যাখ্যা হচ্ছে, পাপের ফল বা আল্লাহ ঈমানের পরীক্ষা নিচ্ছেন ইত্যাদি। এগুলো হচ্ছে মোটা দাগে বহুল প্রচলিত ধার্মীকদের মধ্যে জনপ্রিয় ধর্মীয় ব্যাখ্যা। তবে শিক্ষিত ধার্মীক, বিশেষত বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষিত ধার্মীকরা অন্যভাবে এর ব্যাখ্যা করেন (বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মনগড়া!) যেমন, দশতলা থেকে লাফ দিলে আপনি যে নিচে পড়ে যাবেন এটা আপনি জানেন, তাহলে জেনেশুনে এতে আল্লাহকে টেনে আনছেন কেন?

ঈশ্বর কেন্দ্রিক বিজ্ঞান বনাম ধর্ম কেন্দ্রিক নাস্তিকতা


অনেকেই বলেন ধর্মের ভুলগুলো নিয়ে লিখুন কিন্তু তাতে ঘি-মধু ঢেলে লিখুন যেন বিশ্বাসীরা রেগে না উঠে। তারা বলতে চান বিজ্ঞান দিয়ে, সাহিত্য দিয়ে, আড়ে-ঠাড়ে অনির্দিষ্টভাবে ধর্মের অসাড়তা ও ভয়ংকর দিকটি তুলে ধরতে। তারা মনে হয় এই গল্পটা জানে না। এক বাচ্চা তিতা ট্যাবলেট খেতে চায় না বলে বাবা তাকে রসগোল্লার মধ্যে ঢুকিয়ে খেতে দিলো। বাবা পরে ছেলেকে জিজ্ঞেস করছেন, মিষ্টিটা পুরোটা খেয়েছো তো? ছেলে বলল, খেয়েছি তবে মিষ্টির ভিতরে একটা বিচি ছিল সেটা ফালাই দিছি…।

এই মুহূর্তে ব্লগার, ব্লগ মডারেটর, অনলাইন নিউজ পোর্টাল সম্পাদকদের নিরাপত্তার প্রথম পদক্ষেপ


যেদিন নিলয়কে হত্যা করা হয় সেদিনই ছোট একটা নিউজ চোখে পড়েছিল, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে এক মোবাইল ব্যবসায়ীকে বাস থামিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। আজ সেই নিউজের আপডেট হচ্ছে- পুলিশ অস্ত্রসহ সেই ঘটনায় জড়িত ৯ জনকে গ্রেফতার করে ফেলেছে! আজকেই অভিজিৎদার বাবা শ্রদ্ধেয় অজয় রায়ের একটা সাক্ষাৎকার নিলো ইন্ডিপেডেন্ট টিভি। অজয় স্যার সেখানে বললেন, গোয়েন্দারা তাঁকে জানিয়েছে অভিদার হত্যায় জড়িত ৭ জনকে তারা ছবিসহ সনাক্ত করতে পেরেছে।… আশ্চর্য যে তবু তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না!

ইসলামের উদার ভদ্রস্ত ব্যাখ্যায় আমাদের কি উপকার হবে?


একটা জিনিস সব জায়গায় দেখেছি, ইসলামী উদার পন্ডিতদের সমস্ত প্রচেষ্টা নবীজির ইমেজকে রক্ষা করা- সাধারণ মুসলমানদের জন্য তাদের কোন দায় নেই বোধহয়। যেমন ইসলামে স্ত্রীকে প্রহার করা, ব্যভিচারিকে পাথর ছুড়ে হত্যা করা, মুরতাদকে (ইসলাম ত্যাগীকে) হত্যা করা, গণিমতের মাল লুন্ঠন বা বিধর্মীর সম্পত্তিকে দখল করার মত ইসলামী বিতর্কগুলোতে নবীজিকে রক্ষা করাই তাদের মূল উদ্দেশ্য থাকে। তারা বলতে চান- এসব কুরআনে নেই এবং হাদিসে যা আছে তার কোন বিশ্বাসযোগ্যতা নেই। এরকম কিছু লেখা আগেও পড়ে দেখেছি যেখানে সুনির্দিষ্ট কোন প্রমাণ তাদেরও হাতে নেই। প্রথম কথা হচ্ছে জাল ও সহি হাদিস দুটোই নবীজির মৃত্যুর ২৫০ বছর পর সংগ্রহিত। স্রেফ কি

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

সুষুপ্ত পাঠক
সুষুপ্ত পাঠক এর ছবি
Offline
Last seen: 16 ঘন্টা 14 min ago
Joined: শনিবার, ডিসেম্বর 21, 2013 - 3:33অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর