নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

There is currently 1 user online.

  • বেহুলার ভেলা

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

আশরাফুল করিম চৌধুরী এর ব্লগ

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রাম শহরের নির্যাতন কেন্দ্র ও বধ্যভুমিসমুহ ( পর্ব-৩).


১৯৭১ এ পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী পুরো বাংলাদেশ জুড়ে তাদের যেই নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালায় তার সাক্ষী আমার আজো দেখতে পাই এই বাংলার মাটিতে। তাদের থাবায় এই বাংলা পরিবর্তিত হয়েছিল নরকে। যার স্মৃতি আমরা আজোভুলতেপারিনি। আর পাক বাহিনী কার্যক্রমের বিরাট একটিঅংশ ছিল বানিজ্য নগরী চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক। প্রায় মাস আটেক আগে চট্টগ্রামের নির্যাতন ওবধ্যভূমির একটিতালিকা দিয়েছিলাম। প্রথম দুইটি পর্ব দ্রুত প্রকাশ করতে পারলেও ব্যক্তিগত জীবনের নানান জটিলতায় তা আর চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। মাঝখানে প্রায় ৯মাসের বিরতি। আজ থেকে আবারসেই তালিকার প্রতিটি নির্যাতন কেন্দ্র ওবধ্যভূমির বিবরণসমেত বিস্তারিত প্রকাশ করছি।

৭৩টি ভাষায় ভালোবাসার প্রকাশ


"আমি তোমাকে ভালবাসি"
কথাটা আমরা কতজনকে কতভাবেই না বলি! কিন্তু বৈচিত্রতা থাকেই বা কতটুকু?
মা, বাবা, ভাই, বোন, প্রমিকা কিংবা বন্ধু সবাইকেই এই কথাটা যে কতবার বলেছি তার ইয়ত্তা নেই। আসুন জেনে নিই, ৭৩টি ভাষায় "আমি তোমাকে ভালোবাসি" এর অনুবাদ।
১.বাংলা = আমি তোমাকে ভালবাসি
২.ইংরেজি = আই লাভ ইউ
৩.ইতালিয়ান = তি আমো ৪.রাশিয়ান =
ইয়া তেবয়া লিউব্লিউ

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রাম শহরের নির্যাতন কেন্দ্র ও বধ্যভূমি (পর্ব -২)


১৯৭১এ পাক বাহিনী সমগ্র বাংলাদেশ জুড়ে তাদের যেই নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালায় তার সাক্ষী আমার আজো দেখতে পাই এই বাংলার মাটিতে। তাদের থাবায় এই বাংলা পরিবর্তিত হয়েছিল নরকে। যার স্মৃতি আমরা আজো ভুলতে পারিনি। আর পাক বাহিনী কার্যক্রমের বিরাট একটি অংশ ছিল বানিজ্য নগরী চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক। কিছুদিন আগে চট্টগ্রামের নির্যাতন ও বধ্যভূমির একটি তালিকা দিয়েছিলাম (http://www.istishon.com/node/748) । আজ থেকে সেই তালিকার প্রতিটি নির্যাতন কেন্দ্র ও বধ্যভূমির বিবরণ সমেত বিস্তারিত প্রকাশ করছি।
_ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _

বাবা ডাক বিভিন্ন ভাষায়


যেই লোকটি আমার বালিশের পাশে চকলেট লুকিয়ে রাখতেন তিনি আমার বাবা। আমার আজও মনে আছে, বষার্য় গ্রামের বাড়ি গেলে কাদামাখা পিচ্ছিল পথে ভয়ে একজনের হাত শক্ত করে ধরে থাকতাম পরম নির্ভরশীলতায়। তিনি আর কেউ নন, আমার বাবা। প্রতি বছর ঘুরে বাবা দিবস আসে। এত মানুষের ভিড়ে আমি আমার বাবাকে খুঁজে পাইনা। আকাশের শত শত তারার মাঝে তাকে খোঁজার চেষ্টা করি। কখনও বাবাকে নিয়ে বিশেষ কিছু লিখতে পারিনা। চোখটা ঝাপসা হয়ে যায়। কলমটা ধরে রাখার শক্তি পাইনা। আজ বিশ্ব বাবা দিবসে সব বাবাদের প্রতি রইল শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা। আর আসুন, জেনে নিই পৃথিবীর কয়েকটি উল্লেখযোগ্য ভাষায় বাবা ডাক।

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রাম শহরের নির্যাতন কেন্দ্র ও বদ্ধভূমি (পর্ব-১)


১৯৭১এ পাক বাহিনী সমগ্র বাংলাদেশ জুড়ে তাদের যেই নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালায় তার সাক্ষী আমার আজো দেখতে পাই এই বাংলার মাটিতে। তাদের থাবায় এই বাংলা পরিবর্তিত হয়েছিল নরকে। যার স্মৃতি আমরা আজো ভুলতে পারিনি। আর পাক বাহিনী কার্যক্রমের বিরাট একটি অংশ ছিল বানিজ্য নগরী চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক। কিছুদিন আগে চট্টগ্রামের নির্যাতন ও বধ্যভূমির একটি তালিকা দিয়েছিলাম। আজ থেকে সেই তালিকার প্রতিটি নির্যাতন কেন্দ্র ও বধ্যভূমির বিবরণ সমেত বিস্তারিত প্রকাশ করছি।

গুরু তোমায় সালাম


আজকে সারাটা দিন কিভাবে জানি কেটে গেল! কত কথা চারপাশে! অতীত হয়তবা এভাবেই হারিয়ে যায়।
******************
২০১১সালের ০৫জুন। যথারীতি সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশেও পালিত হচ্ছিল বিশ্ব পরিবেশ দিবস। কিন্তু এদেশের সঙ্গীতের গোটা পরিবেশে যেন বিরাজ করছিলো এক থমথমে অবস্থা।করবেই না বা কেন? সকাল১০টা ২০মিনিটেই তো অসংখ্য ভক্তদের কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি দিয়েছেন, এদেশের পপ মিউজিকে কাণ্ডারি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আজম খান। দুরারোগ্য ক্যান্সারে নিভে যায় পপগুরুর জীবন প্রদীপ। দিনটা ছিল রবিবার। সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের বাতাসও যেন কেঁদে ফিরছিলো এই পপগুরুর মৃত্যুতে।
~~~~~~~~~~~~~~~~

কেটে যাওয়া কিছু সময়ের প্রতিজ্ঞা


বিকালে বের হয়েছিলাম তার সাথে। হাতটা ধরে রাস্তা পার করা। তারপর স্বদেশপল্লী কিংবা আড়ং, যেখানেই যাই তার হাতটা বাঁধা থাকে আমার হাতে। সূর্য অস্ত গেল। আমরা ঢুকলাম। চিটাং শপিং কমপ্লেক্সে। এরপর সানমার।
মধ্যবিত্ত হওয়ার এই এক দোষ। যেটাতেই হাত দিই ভয়ে সরে আসি।অভাব শব্দটা আমাদের কপালে সিলগালা করা আছে। সেও কিছু কিনল না আমিও না। আর একটা দ্বীর্ঘশ্বাস। তারপর একটা দোকানে বসে ফুচকা আর আইসক্রীম খাওয়া।
আর বাসায় ফেরা।
মা, আজকে আবারো এভাবে খালি হাতে বাসায় ফিরতে হল। আমার জীবনের প্রথম মাইনেটার ভাগীদার হবে তুমি। তারপর আজকের মত আমরা শপিংয়ে যাব।
শুধু তুমি আর আমি।

লালচোখ


এই কৈশোর অক্সিজেনের নিদারুণ অপচয়ে ব্যস্ত।
রক্তমাংসের এই শরীরে,
বিদ্যুত্‍ প্রবাহের ভাব।
বদ্ধ ঘরের স্বপ্নগুলো,
এক মুহুর্তের ক্লিকেই,
হয়ে যায় নিঃশেষ।
নির্ঘুম চোখদুটি আকাশ দেখে।
তাকে ছুঁতে পারার আশা,
ডাস্টবিনে পঁচে যাওয়া উচ্ছিষ্টের মতই,
কালো কুকুরের আহার।

ইংরেজী ২১ / ০৫ / ১৩
(উত্‍সর্গঃ সেইসব মানুষদেরকে যারা তথাকথিত সমাজব্যবস্থার কাছে সবসময়ই মার খেয়ে যায়।

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রাম শহরের নির্যাতন কেন্দ্র ও বধ্যভূমি সমূহ


একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে পাক বাহিনী অন্যান্য শহর গুলির মত দখল করে নেয় চট্টগ্রাম শহরও। তারা তাদের সৈন্যবাহিনী ও বাঙ্গালী দোসরদের সাথে হাত মিলিয়ে গড়ে তোলে বধ্যভুমি ও অত্যাচার কেন্দ্র। এখানে তেমনি খুজে পাওয়া বধ্যভুমি ও অত্যাচার কেন্দ্রগুলির তালিকা দেওয়া হল :
১। মহামায়া ডালিম ভবন(ডালিম হোটেল)
২। চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজ
৩। চট্টগ্রাম স্টেডিয়াম
৪। চট্টগ্রাম সেনানিবাস
৫। গুডস হিল
৬। রেডিও ট্রান্সমিশন কালুরঘাট
৭। টাইগারপাস নৌহাঁটি
৮। ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ
৯। নৌবিহার সদর দপ্তর পতেঙ্গা
১০। সার্সন রোডের পাহাড়ের বাংলো
১১। হোটেল টাওয়ার(জামাল খানের মোড়ে)

চট্টগ্রামের শিক্ষাঙ্গনে জামাত শিবির


বর্তমানে চট্টগ্রামে শিক্ষাঙ্গনে যে বিষয়টি লক্ষণীয় তা হল জামাত শিবিরের কুপ্রভাব। মাদ্রাসা তো বটেই, স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় কোনোটাই এদের আওতামুক্ত নয়। আমি চট্টগ্রামে এমন একটা বিদ্যালয়ে পড়েছি যেখানে শিবিরের প্রভাব সুস্পষ্ট। সেইসূত্রে তাদেরকে কাছ থেকে দেখার সুযোগ আমার হয়েছি। এদের প্রভাব যে কতটা শক্তিশালী তা অকল্পনীয়। এদের নির্দেশে স্কুলের টিচার বদলি হয়, স্কুল কলেজের কার্যক্রম পরিচালিত হয়, এদের বিরুদ্ধে কথা বলা মানেই নিশ্চিত সাসপেন্ড!

পৃষ্ঠাসমূহ

বোর্ডিং কার্ড

আশরাফুল করিম চৌধুরী
আশরাফুল করিম চৌধুরী এর ছবি
Offline
Last seen: 4 years 1 month ago
Joined: শনিবার, ফেব্রুয়ারী 16, 2013 - 8:30অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর