নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • রবিউল আলম ডিলার
  • নুর নবী দুলাল
  • এন্টারকটিকায় পড়ছি
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • নরসুন্দর মানুষ
  • মৃত কালপুরুষ

নতুন যাত্রী

  • রবিউল আলম ডিলার
  • আল হাসিম
  • মাহের ইসলাম
  • এহসান মুরাদ
  • ফাহিম ফয়সাল
  • সানভী সালেহীন
  • সাঞ্জানা প্রমী
  • অতৃপ্ত আত্বা
  • মনিকা দাস
  • আব্দুল্লাহ আল ম...

আপনি এখানে

ব্লগসমূহ

কে কি করলো সেদিকে খেয়াল না রেখে নিজের ইচ্ছে আর স্বপ্নটাকে প্রাধান্য দিতে হবে তবেই সফলতা আসবে


এদেশে প্রতিদিন কতটা ছেলে কিংবা মেয়ে আত্মহত্যা করে এই হিসেব করার সময় কি আমাদের আছে? যে মানুষটা সারাদিন কোন কাজ না করে বাসায় বসে থাকে তারও এই সময়টা নেই। পত্রিকার পাতায় কিংবা রাতের সংবাদে যখন শুনা যায় ২০-২৫ বছরের একটা মানুষ আত্মহত্যা করেছে তখন অবশ্যই আমরা ভেবে নেই এর প্রধান কারণ প্রেমে ব্যর্থতা। কিন্তু সবার ক্ষেত্রে সেটা না ও হতে পারে।

কাবুলি ড্রেস কি সুন্নতি পোশাক ? সুন্নতি পোশাক আসলে কি?



অনেকেই জেনে বা না জেনে বিবিধ কথা বলে ইসলাম সম্পর্কে। মানে যে যেভাবে বোঝে। যেমন বাংলাদেশের অধিকাংশ ধর্মভিরু লোক আফগানিস্তানের কাবুলি ড্রেসকে [যা পরে তারা পপি চাষের কাজও করে, ছবি সংযুক্ত] সুন্নতি ড্রেস বলে চালায়, যদিও আরব দেশের কেউই ঐ পোশাক পরে না, নবীও পরেননি। তাহলে সুন্নতি পোশাক কি? ইসলামের নবী যে পোশাক পছন্দ করতেন বা অধিকাংশ সময় পরতেন তা কি সুন্নতি? তাহলে দেখি সে কি করতেন?
:

কুরআন অনলি রেফারেন্স: (২১) মুহাম্মদ এর আল্লাহর বৈশিষ্ট্য - তিন


ইসলাম নামক মতবাদের একান্ত প্রাথমিক ও অত্যাবশ্যকীয় শর্ত হলো "বিশ্বাস (ইমান)!" মুহাম্মদ ও তার আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস। ইসলামের এই প্রাথমিক ও অত্যাবশ্যকীয় সংজ্ঞা অনুযায়ী যে-ব্যক্তি বা জনগোষ্ঠী স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদের (সাঃ) ও তার প্রচারিত বাণী ও মতবাদে বিশ্বাসী নয়, তাঁরাই বিপথগামী, লাঞ্ছিত, পথভ্রষ্ট এবং অনন্ত শাস্তির যোগ্য। মুহাম্মদ তার স্ব-রচিত ব্যক্তি-মানস জীবনীগ্রন্থ (Psycho-biography) কুরআনে অত্যন্ত দ্ব্যর্থ-হীন ভাষায় অসংখ্যবার বিভিন্নভাবে তা ঘোষণা করেছেন ।

বিষাক্ত রাজনীতি:- পঞ্চম পর্ব-


বাবরি মসজিদ ও রাম মন্দির বিতর্কটি বহু পুরানো। এর ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটটি হল বাবরের সেনাপতি মীর বাকি খান 1528 খৃষ্টাব্দে বাবরি মসজিদ নির্মাণ করেন। তবে কট্টরপন্থী হিন্দুদের দাবি ছিল ওই স্থানে আগে একটি মন্দির ছিল যা ভগবান রামচন্দ্রের জন্মস্থান। কট্টরপন্থী হিন্দুদের আরও দাবি হল- বাবরের সেনাপতি মীর বাকি খান রাম মন্দির ধ্বংস করেই বাবরি মসজিদ নির্মাণ করেছেন। ঐতিহাসিক রেকর্ড থেকে জানা যায় 1853 সালে ওই স্থানটি নিয়ে প্রথম সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা শুরু হয়। 1885 সালে মহান্ত রঘুবর দাস প্রথম এই মন্দির নিয়ে মামলা করেন কিন্তু তৎকালীন ব্রিটিশ সরকার ও ফৈজাবাদ আদালত মনে করেন প্রায় 356 বছর আগের ঘটনা নিয়ে রায় দেওয়া ঠি

কবিতার নাম 'ইস্তেঞ্জার


লুঙ্গির নিচ দিয়ে চেপে ধরো লিঙ্গ,
একফোঁটা পরে গেলে নামাজ হবে ভঙ্গ।

এক ঠেং উচু করে করো কিছুক্ষণ ওয়াকিং,
খেয়াল রেখো সরে যেনো না যায় ঢিলাকুলুপের সেটিং।

মাঝে মাঝে দেও কাশ খুক খুক করে,
থাকবেনা প্রস্রাব মূত্রনালির নলে।

এভাবে চালিয়ে যাও আট দশ মিনিট,
মূত্রনালি হয়ে যাবে নীট এন্ড ক্লিন।

তারপর ধুয়েমুছে সাফ করো মূত্র,
নিয়মমেনে ওজু করে হয়ে যাও পবিত্র।

প্রতিবার প্রস্রাবের পর করতে হবে ইস্তেঞ্জার,
এছাড়া কিছুতেই হবেনা মূত্র পরিস্কার।

--------------

ইহা সহীহ হিন্দুত্ব নহে !


ভারতে ইদানীং ‘জয় শ্রীরাম’ শব্দটা বেশ শোনা যাচ্ছে। ক্রমেই ধর্মান্ধতা চেপে বসছে ভারতের ঘাড়ে। পাকিস্তানের ক্রমাগত ধর্মীয় সন্ত্রাসে অতিষ্ঠ ভারতবাসীর কাছে হিন্দুত্বের শান্তির বার্তা বিতরণ করছে অারএসএস, শিবসেনা, বিজেপি ও বজরং দল।
রাস্তাঘাট, খোলামাঠ, পরিবহন প্রভৃতি স্থানে হাঁটতে গেলে মাঝেমধ্যে কানে অাসে ‘জয় শ্রীরাম’ নামক শান্তিবাণী (?), যা ক্রমেই খাচ্ছে ভারতীয়দের মননশীলতা ও সৃজনশীলতা।

শুভ নববর্ষের অগ্রিম শুভেচ্ছা...


"সময় আসছে শুভক্ষণ"(13-04-2018)
তাপস ভৌমিক
সময় আসছে শুভক্ষণ,নববর্ষের আগমন,
পান্তা ইলিশ,হালখাতা কোটি হৃদয়ের স্পন্দন
সূ্ঁর্য্যি মামা উঁকি দিবে নতুন ভোরে নতুন দম,
পুলকিত এই হৃদয়ে ঘটবে শত কম্পন।

সময় আসছে শুভক্ষণ,নববর্ষের আগমন,
নৌকাবাইচ আর পুতুলনাচ বসবে কাল জমাজম
পেরাব গ্রামে ঘোড়া মেলা মানবে না কাল দিনক্ষণ,
সার্কাস আর নাগরদোলায় উচ্ছাসিত শিশুমন।

সময় আসছে শুভক্ষণ,নববর্ষের আগমন,
ছায়ানটের অবারতা না যায় করা বর্ণন
শোভা যাত্রার আপন শোভা বয়ে আনুক মঙ্গল,
গ্লানি মুঁছে হোক না মধুর,প্রতিটি বন্ধন।

কালের দৈত্য এসে


আমাদের প্রিয় নতুন স্বভাব জন্ম লয়
শুণ্যরেখায় বহমান চিন্ময় তরুণ হৃদয়
আমার খোদা ও ধ্বংসের কোনও ব্যাখ্যা নেই।
দুর্বল কবুতর পাখা মেলার দায়ে বন্দি যেমন হয়,
তেমনি নিঃশব্দে ক্ষত হই।
আমি জানি-
তোমাদেরও আছে শব্দ ও কারাগার গ্রন্থ,
তাতে হাতির পায়ের মত বিধ্বংসী পদে হেঁটে যাই
শুধু মানুষের জন্য।
হ্যা! আমি জানি-
আমি কখনও মানুষ ছিলাম না; মানুষের মত,
একটি পদ্ম ও জলের সম্বন্ধ
ততটুকু দুরত্বে নির্দম্ভ; এবং বিক্ষত।

এভাবে ক্ষয়ে-ক্ষয়ে মিলিয়ে যাই
সন্ধ্যা তারার মত মধ্যরাতে, একদিন।

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর