নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • ফারুক হায়দার চৌধুরী
  • নরসুন্দর মানুষ
  • শিকারী
  • ফারজানা সুমনা
  • নুর নবী দুলাল
  • আবদুর রহমান শ্রাবণ
  • মওদুদ তন্ময়
  • অজল দেওয়ান

নতুন যাত্রী

  • প্রলয় দস্তিদার
  • ফারিয়া রিশতা
  • চ্যাং
  • রাসেল আহমেদ
  • আবদুর রহমান শ্রাবণ
  • হিপোক্রেটস কিলার
  • পরিতোষ
  • শ্যামা
  • শিকারী
  • মারিও সুইটেন মুরমু

আপনি এখানে

ব্লগসমূহ

বিদ্যুৎ প্রকল্পে বিনিয়োগ ১০০ কোটি ডলার


দেশের উন্নয়নে বিদ্যুতের প্রয়োজনীয়তা অপরিহার্য। বিদ্যুৎ ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। বিদ্যুতের উন্নয়নে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় ভুটানে জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে ১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগে সম্মতি দিয়েছে বাংলাদেশ। ভারতকে সঙ্গে নিয়ে ত্রিপক্ষীয় ওই প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশ আগামীতে ভুটান থেকে প্রায় এক হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়ার আশা করছে। ২০২১ সালের মধ্যে সারা দেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দিতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। বর্তমানে বিদ্যুৎ উৎপাদন ১৪ হাজার মেগাওয়াট ছাড়িয়ে গেছে। সরকার ২৫ হাজার মেগাওয়াট উৎপাদন টার্গেট নিয়ে কাজ করছে। দেশের অর্থনীতি দ্রুত এগিয়ে য

হেফাজতের ১৩ দফা এবং মুহাম্মদ ও তার উম্মতদের সৃষ্টিকর্তা শানে বেয়াদবি


২০১৩ সালে সারাদেশ যখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে উত্তাল ঠিক তখনই যুদ্ধপরাধিদের বাঁচাতে কৌশল পরিবর্তন করে হেফাজতে ইসলামের উত্থান।কওমি মাদ্রাসা ভিত্তিক এই সংগঠনটি শাহবাগ আন্দোলনকে বানচাল করার অপচেষ্টা থেকে ব্লগারদের নাস্তিক ঘোষণা করে তাদের ফাঁসির দাবিতে পাল্টা শাপলা চত্বর,মতিঝিলে অবস্থান নেয় । এরপর ইসলাম ও রাসুলকে কটূক্তিকারী নাস্তিক ব্লগারদের ফাঁসি দাবী করে হেফাজতে ইসলাম ১৩ দফা দাবি উত্থাপন করে।

আমি বাঁচবো তো?


পঞ্চম শ্রেণীতে উঠেছি আমরা। আমরা বৌচি,লুক,হা-ডু-ডু খেলায় উদগ্রীব ছিলাম। বিকালে স্কুল ছুটির পর বাড়িতে এসে ব্য্গ,স্কুল ড্রেস পরিবর্তন করে সবাই আসতাম জয়দের উঠানে। কিন্তু, খেলাধুলায় সবাই আমার চাইতে জোহরাকে দলে ভিড়ানোর জন্য আগ্রহ করত। জোহরা ছিল খুবই বুদ্ধিমতি , তীক্ষ্ণ মেধাবী এবং ডানপিটে। স্কুলের শিক্ষক, পাড়ার প্রতিবেশী হতে শুরু করে বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয় স্বজনের প্রিয়মুখ জোহরা।

নয়া মাওলানা মোহাম্মদ শামিম উসমান



ফাঁসাইয়া দিলাম মাইনকার চিপায় !! মালাউন মাষ্টারকে ধর্মের নামেই কান ধরে উঠবস করতে বাধ্য করেছিল বিশিষ্ট মুসলমান মাউলানা মোহাম্মদ সেলিম উসমান !! অতঃপর ইসলামই একমাত্র শান্তির ধর্ম এবং মুসলমানের ধর্মিয় অনুভূতিতে লাথি কে পুঁজি বানিয়ে যা ইচ্ছা তাই করা .....

সহি্ ইসলামিক Hypocrisy


কাউকে শারিরিক ভাবে অপমান-অপদস্থ করার উস্কানি মূলক মন্তব্য করা এবং তা করতে পারলে পুরুস্কিত করা হবে, এমন ফতুয়া দেওয়া, কোনো ভাবেই কোনো বেক্তির বাক স্বাধীনতার ভিতরে পরে বলে আমার জানা নেই, বরং এটি উগ্রতা ও আইনে শাস্তি যগ্য অপরাধ। এখন যখন পশ্চিমবঙ্গের এক মুসলিম ধর্মীয় নেতা, সৈয়দ শাহ আতেফ আলি আল কাদেরি এমন একটি উস্কানি মুলক মন্তব্য/ফতুয়া ঘোষণা করলেন, তখন আর বলার অপেক্ষা রাখে না, যে উনি সন্ত্রাসবাদে সমর্থন দিয়ে ফুতুয়া দিয়েছেন, যদিও ইসলামিক বুদ্ধীজীবিরা বরাবরি বলে এসেছেন ইসলাম সন্ত্রাসবাদে সমর্থন করে না। কিন্তু তার এই ফতুয়ার বিরুদ্ধাচার কোন একটি সহি্ মুসলমানও করেনি, বরংচ মাশ্আল্লা/সুবাহনআল্লা বলে

স্ট্যান্ডার্ড গেজ রেললাইনে চলবে দ্রুতগতির এক্সপ্রেস ট্রেন


রাজধানী ঢাকার সাথে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে আধুনিক প্রযুক্তির দ্রুতগামী ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করেছে সরকার। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ট্রেন যাবে দেড় ঘণ্টায়। এজন্য চীন থেকে আনা হবে দ্রুতগতির এক্সপ্রেস ট্রেন। নতুন করে তৈরি করা হবে স্ট্যান্ডার্ড গেজের ডাবল রেল লাইন। তখন অনায়াসে দেড় থেকে দুই ঘণ্টায় ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম যাওয়া যাবে। সে লক্ষ্যে ইতোমধ্যে চীনের সাথে একটি চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়েছে। চলছে ফিজিবিলিটি স্টাডি। এটি শেষ হলে রুট নির্ধারণ করে জমি অধিগ্রহণ শুরু হবে। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের দূরত্ব যাতে কমানো যায় সে লক্ষ্যে নতুন করে স্ট্যান্ডার্ড গেজ রেললাইন স্থাপন করা হবে। ঢাকা থ

সহযোগিতার নতুন দিগন্ত উন্মোচিত


বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সহযোগিতার নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে। ২২টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। বহুল আলোচিত প্রতিরক্ষা সহযোগিতাবিষয়ক তিনটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এছাড়া প্রতিরক্ষা ঋণ সহায়তাবিষয়ক একটি সমঝোতা স্মারকও স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ নিয়ে প্রতিরক্ষাবিষয়ক সমঝোতা স্মারকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চারটি। এছাড়া আর যেসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে তার মধ্যে মহাকাশের শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, আণবিক শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, পরমাণু নিরাপত্তা, পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র, তথ্যপ্রযুক্তি, যোগাযোগ প্রযুক্তি, বিচারিত ক্ষেত্রে সহযোগিতা ও বিচ

মাশাল খান হত্যা। ব্লাসফেমি অভিযোগ নাকি পূর্বপরিকল্পিত মার্ডার?



পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের মারদান শহরে অবস্থিত আবদুল ওয়ালি খান ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী মাশাল খানকে পিটিয়ে হত্যা করার ঘটনা সারা বিশ্বে তোলপাড় তুলেছে। মাশাল খানের বিরুদ্ধে ব্লাসফেমি বা ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করা হয়।কিন্তু ব্লাসফেমি অভিযোগটা কি আসলেই সত্য?

আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই


আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই,
পতনে নেই জনৈকা বিবি হাওয়ার কারসাজি...

এইসব প্রাক-কথন আপাতত অলিখিত থাক,
বর্তমানে বাঁচি, তাই যা হতে দিতে চাই বা হতে পারে-
সেটা লিখে যাওয়াতেই দেয়া যাক বিশেষ প্রাধিকার।

গল্পের এই অধ্যায়ে এখন গ্রীষ্মের দুপুর,
যখন বাগানের হাস্নাহেনার মৃদু সুবাস আরও ফিকে লাগে!
যদিও হাস্নাহেনার ঝোপে আজকাল সাপখোপ থাকেনা;
তবু ধরে নেয়া যাক এক আজাদাহাই লুকোনো সেখানে,
উত্তাপ এবং আর্দ্রতা বেশি বলে খুব বেশি নড়ছে না,
তবে আশেপাশেই তার নিশ্চিত অবস্থান...

গল্পে আগে বলিনি, কেউ জানে না যে-
তার প্রতি আমার গভীর অনুরাগ, আকর্ষণ বেশ অকল্পনীয়,
আর সে আবেগ সম্পর্কে অনবগত বলেই মারাত্মক হিংস্র!

আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য!
আমার আরাধ্য আজাদাহা অবশ্যই স্ত্রী লিঙ্গ, যেহেতু গল্পই-
তাই মানব দেহধারী ও আজাদাহা নারীর সম্পর্কও অসম্ভব নয়।
আমি এই পরিস্থিতিকে যৌক্তিক বলতে বেছে নিতে পারি সেই উক্তি,
"জীবে দয়া করে যেইজন, সেইজন সেবিছে ঈশ্বর!"
আমি নিজেকে দয়া করতে চেয়ে বসেছি সহিংস তাকেই, বুঝিয়েছি নিজেকে,
তার এই হিংস্র আচরণ নিতান্তই আবেগ সম্পর্কে অজ্ঞতাপ্রসুত।
প্রেম কি দয়ার মহৎতম রূপ নয়?

আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই,
পতনে নেই জনৈকা বিবি হাওয়ার কারসাজি...
আমার গল্পের আমি আদম লোভ করে বসেছি সেই আজাদাহা হাওয়ার,
সুযোগ পেলে আদমেও যার লোভ, স্বভাবসুলভ; অন্য কারসাজি নেই...

আমার গল্পের রচয়িতা আমি, কাহিনি অসমাপ্ত...

পৃষ্ঠাসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর