নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 7 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • রুদ্র মাহমুদ
  • পৃথু স্যন্যাল
  • সুষুপ্ত পাঠক
  • বেহুলার ভেলা
  • নিটোল আরন্যক
  • মো.ইমানুর রহমান
  • সুজন আরাফাত

নতুন যাত্রী

  • রমাকান্ত রায়
  • আবুল খায়ের
  • একজন সত্যিকার হিমু
  • চক্রবাক অভ্র
  • মিস্টার ইনকমপ্লেইট
  • নওসাদ
  • ফুয়াদ হাসান
  • নাসিম হোসেন
  • নেকো
  • সোহম কর

আপনি এখানে

ব্লগসমূহ

পাবর্ত্য চট্টগ্রামঃ সরকারি কর্মকর্তাদের পানিশমেন্ট জোন


গাইবান্ধায় সাঁওতালদের বাড়িতে আগুন দেয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত পুলিশ সুপার মো আশরাফুল ইসলামকে খাগড়াছড়িতে পুলিশের একটি ব্যাটেলিয়নের প্রধান হিসেবে বদলি করা হয়েছে। কিছুদিন আগে হাইর্কোটের এক আদেশে গাইবান্ধা জেলার পুলিশ সুপার, ওসি ও সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তাকে গাইবান্ধা থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছিল। গতকাল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপণ জারি করে আশরাফুল ইসলামকে খাগড়াছড়ি বদলির কথা ঘোষণা করে।

#অযাচিত_বাক্যব্যয়...! পার্ট- #অনুভূতি_জঙ্গল(১)


২১শে ফেব্রুয়ারি, ১৯৫২সালের এইদিনেই রোপিত হয়েছিল স্বাধীন বাংলাদেশে'র বীজ, যে বীজ ১৯৭১এর ১৬ডিসেম্বর-এ এক ফলবান বৃক্ষে পরিণত হয়েছে, প্রত্যাশার সীমা অসীম ছিলনা, হয়তো আরো বেশি হওয়ার প্রয়োজন ছিল, তা কিন্তু হয়নি, কারণ আমরা বাঙালিরা অল্পতে সন্তুষ্ট থাকতে জানি, কিন্তু বেশি প্রাপ্তির আকাঙ্ক্ষা মুক্ত নিজেকে রাখতে পারিনা সচরাচর; সত্যি বলতে এ আমাদের স্বভাবজাত, আর এ স্বভাবই হয়তো আজ এই নতুন বাংলাদেশ (অনেকের চোখে ডিজিটাল বাংলাদেশ, আমার চোখে কারিগর দিকেই) দেখতে পাচ্ছি; লা ব্যাকরণাদি, বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস, সাংস্কৃতিক আন্দোলন- এ সবই আজ কোন না কোনভাবে বিতর্কের মাঝে পড়ে গেছে, প্রশ্ন হচ্ছে কেন?

ফেসবুকে এখনও ‘রোহিঙ্গানির্যাতন’-এর ছবি এবং বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক-অপশক্তির অপরাজনীতি


বর্তমানে অং সান সুচী নামক যে নেত্রী আছে—সে বার্মার সামরিকজান্তাদের তল্পিবাহক। আর সুচীদের অনুমোদনেই বার্মার সেনাবাহিনী রাখাইন-রাজত্বপ্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে একটি নৃগোষ্ঠীকে নির্যাতন করছে। আবার অনেকে বলেছে, এদের চিরতরে বার্মা থেকে বিদায় করতে চাচ্ছে। এই ঘটনার কিছুটা সত্যতা রয়েছে। আর মিয়ানমারে কিছুটা রোহিঙ্গানির্যাতন হচ্ছে। তবে বাংলাদেশের কিছুসংখ্যক দালাল ও একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীবংশজাত-কুচক্রীমহল যা-বলছে তা আদৌ সত্য নয়। এরা রোহিঙ্গানির্যাতনকে সারাবিশ্বের ইস্যু হিসাবে দাঁড় করানোর জন্য নিজেরা ঘরে বসে যে যেখানে যে-সব আজেবাজে ছবি বা মানুষহত্যার ছবি পাচ্ছে তা-ই নিয়ে অপপ্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। আর তারা সম্পূর্ণ অসৎউদ্দেশ্যে এগুলোকে বার্মার রোহিঙ্গানির্যাতনের ছবি বলে অপপ্রচার করছে। এদের উদ্দেশ্য ভালো নয়। এরা সাম্প্রদায়িকপশুশক্তি।

প্রার্থনা কি ও উহার কার্যকারিতা কিসে?


প্রার্থনা কি ও উহার কার্যকারিতা কিসে?

O my God! There is no God. He is in nowhere but in human belief.

ঈশ্বর থাকুক বা না থাকুক; উহা আছে মানুষের বিশ্বাসে কিংবা নিঃশ্বাসে। ঈশ্বরের নিকট প্রার্থনা মূলত অবচেতন ও চেতন মনের মিথোষ্ক্রিয়ায় ইতিবাচক ফল লাভের আকাঙ্খা। একজন নাস্তিক কিংবা অজ্ঞেয়বাদী অন্যের শুভকামনা কিংবা মঙ্গলকামনা করেন সেটাও প্রার্থনা।

মানুষ যা চায় তা সে পাবেই পাবে যদি এবং কেবল যদি উহা মনছবি আকারে উহা চেতন মন থেকে অবচেতন মনে প্রোগ্রামিত হয়।

অভিজিৎ রায় আর অনন্ত বিজয়ের নতুন লেখা বই আর কখনো পাবেনা এই গ্রন্থমেলা।


আবার ঘুরে ফিরে চলে এল ফেব্রুয়ারি মাস। প্রাণের বই মেলার মাস। সাহিত্য প্রেমীদের মাস। নবীন কবিরা টান টান উত্তেজনা তাদের জীবনের প্রথম বইটি প্রকাশ করবে। কেউ কেউ লম্বা আর চুল দাঁড়ি রেখে কবি কবি উদাস হবার চেষ্টা করবে। কোনো সুন্দরীকে ভাব নিয়ে অটোগ্রাফ দেয়ার জন্য তাদের মন উসখুস করবে। কোনো পাঠক বিভিন্ন স্টলে স্টলে ঘুরে ঘুরে তার প্রিয় লেখকের বইয়ে আলতো হাতে স্পর্ষ করে মন জুড়াবে। মেলায় কোনো কোনো লেখক চায়ের কাপে চুমুক দিয়ে দিয়ে দেশ সমাজ ও বর্তমান রাজনীতি নিয়ে গুরুগম্ভীর আলোচনা করবে। কোনো লেখক তার বইটা বর্তমান প্রেক্ষাপটে কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা আড্ডায় বার বার জাহির করবে। শিশুসাহিত্যিক-বেশ্যারা দুচার লাইনের

৭১-রে ভারত যদি পাকিদের হাতে আমাদের তুলে দিত তখন কেমন লাগত?


মায়ানমারের বৌদ্ধদের হাতে নির্যাতিত—নিপীড়িত রোহিঙ্গা মুসলিমরা আজ চরম মানবেতর দিন অতিবাহিত করছে ৷ বাবার সামনে মেয়েকে,ছেলের সামনে মাকে উলঙ্গ করে ধর্ষণ করছে ৷ ছিড়ে ছিড়ে খাচ্ছে মুসলিমদের ৷ 
যাহোক রোহিঙ্গাদের উপরে যখন অমানবিক নির্যাতন শুরু হলো ৷ তখন রোহিঙ্গা মুসলিমরা জীবনের ভয়ে নদী পথে সোনার বাংলাদেশে আসলো আশ্রয়ের জন্য ৷ কিন্তু বাংলাদেশ সরকার তাদের আশ্রয় না দিয়ে ফেরত পাঠালেন বৌদ্ধদের হাতে ৷ হায় রে ! মানবতা ৷ 
শেষ কথা ৭১ সালে পাকিস্তানী বাহিনীরা যখন আমাদের উপর বর্বর অত্যাচার শুরু করলো ৷ তখন আমার জীবন বাচানোর তাগিদে দেশ ত্যাগ করে ভারতে গেলাম আশ্রয়ের জন্য ৷ ভারত সরকার আশ্রয় দিল ৷

ঠেঙ্গারচরে রোহিঙ্গাদের পুর্নবাসন হবে অমানবিক


যে দ্বীপ কোন ভাবেই বাসযোগ্য নয়, যেখানে প্রতিমুহুর্তে রয়েছে মৃত্যুঝুঁকি। ঠেঙ্গারচরে রোহিঙ্গাদের পুর্নবাসন হবে অমানবিক।নোয়াখালী জেলা সদর থেকে প্রায় ৮০ কি:মি:, উপকূলীয় উপজেলা সুবর্ণচর উপজেলা হতে প্রায় ৫০ কি:মি:, হাতিয়া উপজেলা থেকে ২৫ কি:মি: সন্দ্বীপ উপজেলার পশ্চিম উপকূল হতে ৫ কি:মি: দুরত্বে মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় অবস্থিত এই বিচ্ছিন্ন এবং জনশূন্য দ্বীপ ঠেঙ্গারচর । যেখানে প্রায়ই জোঁয়ার ভাটায় প্লাবিত হয় এ ঠেঙ্গারচর। তাছাড়া লবনাক্ত পানি ঘেরা এই নির্জন দ্বীপে বসবাসের জন্য আছেই বা কি?

আমি অপ্রিয় বলছি- শুনো হে মুর্খের দল!


আমাদের রাষ্ট আর সমাজের অধিকাংশ শিক্ষিত (মাথামোটা শিক্ষিত) অভিভাবকগন মনে করে- ছেলে হোক মেয়ে হোক ডিগ্রি পাশ করলেই সেই শিক্ষিত! ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, অনার্স, মাস্টার্স, বিবিএ, এমবিএ, পাস করলে সেই অধিক শিক্ষিত! কোনো ছাত্র বাইরে গিয়ে পি এইস ডি পড়ে এসে নামের আগে "ডক্টরেট" লাগালে তাদের দৃষ্টিতে সেই তো আরো অনেক বড়ো শিক্ষিত! ডক্টর অমুক, ডক্টর তমুক! আহারে কতো বড়ো শিক্ষিত মানুষ! এসব অভিভাবকরা নির্ধারণ করে দেয় কারা শিক্ষিত, কারা অশিক্ষিত। এরা মনে করে শুধুমাত্র সার্টিফিকেট ওলারা শিক্ষিত বাকি সব অশিক্ষিত! এরা ভাবে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষিতরাই মানুষ, বাকি সব অমানুষ!

অপদ্য বচন (২০৬-২১৫)


২০৬. At times good friends are like good prostitutes - a rare source of brainless entertainment.

২০৭. ২০২০ সাল বাংলাদেশের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বছর। এ বছর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ইসলামের ত্রাতা আওয়ামীবন্ধু শফী হুজুর, উভয়েরই জন্ম শতবার্ষিকী।

২০৮.বাংলাদেশে যারা স্টার জলশা, জী বাংলা এই চ্যানেলগুলো নিষেধের পক্ষে, তাঁদের কমন আর্গুমেন্ট হলো অপসংস্কৃতি বা বাঙালি সমাজের সাথে সাংঘর্ষিক আইডিয়োলজির আত্মীকরণ। খুব জানতে ইচ্ছে করে, গেইম অফ থর্নস বা স্পার্টাকাস-এর ঠিক কোন কোন দিক থেকে আমাদের সংস্কৃতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

চিরঅম্লান বাঙলা !


কৃষ্ণবর্ণ ক্ষীর্ণকায় বাঙালি আর্য সংস্কৃতিতে ছিল ঘৃণ্য, তাই আত্মাভিমান ছিল তার প্রচন্ড। তার নির্দিষ্ট ভৌগলিক সীমারেখা তাকে দিয়েছে বিশেষ ভাষা, সাহিত্য কৃষ্টি ও শিল্প। ময়নামতি তার অতীত, তার গর্ব, তার ঐশ্বর্য। বারবার আমরা আক্রান্ত হয়েছি বিদেশীদের দ্বারা তবুও ভুলবো না এই বাঙলার সোনারগাঁও থেকেই একদিন সুলতান গিয়াসউদ্দিন আযম শা পারস্যের কবি হাফিজকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।

পৃষ্ঠাসমূহ

Facebook comments

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর