নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 9 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • বিকাশ দাস বাপ্পী
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • চিত্রগুপ্ত
  • কাঠমোল্লা
  • নুর নবী দুলাল
  • মৃত কালপুরুষ
  • অ্যাডল্ফ বিচ্ছু
  • নরসুন্দর মানুষ
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি

নতুন যাত্রী

  • আদি মানব
  • নগরবালক
  • মানিকুজ্জামান
  • একরামুল হক
  • আব্দুর রহমান ইমন
  • ইমরান হোসেন মনা
  • আবু উষা
  • জনৈক জুম্ম
  • ফরিদ আলম
  • নিহত নক্ষত্র

আপনি এখানে

ব্লগসমূহ

কুরআন অনলি: (১১) নবুয়তের প্রমাণ দাবী - প্রতিক্রিয়া? – দুই


স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) তার সুদীর্ঘ ২৩ বছরের নবী জীবনে তার চারিপাশের মানুষদের উদ্দেশ্যে পূর্ববর্তী নবীদের যে অলৌকিক কিচ্ছা-কাহিনীগুলো প্রচার করতেন, তার সেই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে যখন অবিশ্বাসীরা মুহাম্মদের কাছে তার নবুয়তের প্রমাণ স্বরূপ তাদেরই মত কোন 'অলৌকিকত্ব (মোজেজা)' হাজির করতে বলেছিলেন; তখন তিনি তাদেরকে কীরূপ অপ্রাসঙ্গিক জবাব, অজুহাত, তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য, হুমকি-শাসানী ও ভীতি প্রদর্শন করেছিলেন, তার আলোচনা আগের পর্বে করা হয়েছে।মুহাম্মদের নিজস্ব জবানবন্দির আলোকে আমরা আরও জানতে পারি, অবিশ্বাসীরা মুহাম্মদের কাছে শুধু যে পূর্ববর্তী নবীদেরই অনুরূপ কোন প্রমাণ হাজির করতে বলেছিলেন তাইই

কত রঙ্গ জানো যে মাওলা, কত রঙ্গ জানো। তুমি সর্প হইয়া দংশন করো আবার ওজা হইয়া ঝারো


মাননীয় যোগাযোগ মন্ত্রী প্রকাশ্যে হয়তো আপনাদেরকে কেহ কিছু বলবে না, হিন্দু নির্যাতন নিয়ে আওয়ামীলীগের যে কোন বক্তব্য একজন সাধারণ মানুষের মনে হাসির খোরাক হবে এবং মনে মনে আপনাদের নিয়ে ঠিকই তামাশা করবে - এমনকি আপনাকে নিয়েও- এটা নিশ্চিত বলতে পারি।

সময়ের মূল্য.....!


সময় হলো প্রকৃতির গতীয় অবস্থা।
:-গতিয় অবস্থা মানে ঠিক বুঝলাম না?
অবশ্যই বুঝবেন। আগে বুঝতে হবে প্রকৃতি কি? প্রকৃতির উপাদানসমূহ নিয়ে প্রকৃতি ঘঠিত।
:-তাহলে উপাদানগুলা কি কি??
এক কথায় যা কিছু আছে সবই প্রকৃতির উপাদান। একদম গ্যালাক্সী টু কোয়ার্ক সবই প্রকৃতি।।এমন কি আমরাও প্রকৃতির উপাদান।
:-তো প্রকৃতির গতি বলতে কি বুঝানো হচ্ছে??
প্রকৃতি মূলত গতিশীল। প্রকৃতি বলতে প্রকৃতির প্রতিটা উপাদানই গতিশীল শুধুমাত্র ভুমি ছাড়া।
:-এমন কোনো উপাদান নাই যেটা স্থির। যেমন :সূর্য, গ্রহ, নক্ষত্র গাছের বৃদ্ধি, আপনার চুল, নখ এসবের বৃদ্ধি সব কিছু গতিশীল।

কবি এবং প্রেমিকারা


স্বর্গের পানশালায় এক কবির সাথে দ্যাখা হল।
তিনি ইতোমধ্যে তিন প্যাক শেষ করে চতুর্থটি ধরেছেন।
তার হাতের গ্লাসটি রূপোর মত চকচক করছিল।
আমি বললাম, আপনি পৃথিবীতে কি কি ভাল কাজ করেছেন?
কবি প্রথমে মুচকি হাসলেন।
তারপর শব্দ করে হাসলেন খানিকক্ষণ।
ঠিক তখন
একটা পাপিয়া মাথার ওপর দিয়ে উড়ে চলে গেল।
তার পায়ে নখ ছিল না কারণ
স্বর্গে শিকারের প্রয়োজন হয় না।
কবি ঢেকুর তুলে বললেন, পৃথিবীটাকে আমি আস্ত কবিতা বানিয়ে ফেলেছিলাম।
ঈশ্বর আমার কবিতা পড়ে মুগ্ধ হয়েছেন।
আমি বললাম, পৃথিবীতে কি কেবল একজনই কবি ছিল?

আকায়েদ উল্লা মুসুলমান নয়, এটা ইহুদীদের ষড়যন্ত্র!


সন্ত্রাসী হামলা করে - ওরা কেহই মুসুলমান নয় এবং শান্তির ধর্মের ইসলামের এদের কোন সম্পর্ক নেই কিংবা এ সবই ইহুদী ও আমেরিকার চক্রান্ত – এসব বাজে বক বক করে আকায়েদ উল্লাদের উত্থান প্রতিহত করা সম্ভব নয়।

স্মৃতিচারণ - ১৪


মালিবাগ মাদ্রাসা, ঢাকা। প্রতি কোরবানির ঈদের অাগে মাদ্রাসায় উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি হয়। কোরবানির চামড়া কালেকশন করার পোস্টারিং, মাদ্রাসা ফান্ডের টাকায় নাস্তা-পানি, সারাদিন ঘোরাঘুরি করা এসবে বেশ মজা! ঈদের একসপ্তাহ অাগ হতে একেবারে স্বাধীন, খাওয়াদাওয়া, ঘোরাফেরা.... ইত্যাদি।

নিম্ন আদালতের বিচারকদের শৃঙ্খলা বিধির গেজেট প্রসঙ্গে


গতকাল সরকার বহুল প্রতীক্ষিত নিম্ন আদালতের বিচারকদের শৃঙ্খলা বিধির গেজেট প্রকাশ করেছে। এই গেজেট প্রকাশ নিয়ে গত দুই বছর ধরে কালক্ষেপণ করেছে সরকার। সেই কালক্ষেপণের কারণ একজন সুরেন্দ্র কুমার সিনহা প্রধান বিচারপতির আসনে ছিলেন। এই কথাটা আইনমন্ত্রীর কথাতেও স্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে। সরকারের ইচ্ছামতো গেজেট প্রকাশের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন একজন সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। সেই সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে সরিয়ে দেয়ার একমাস সময়ের মধ্যেই, দুই বছর গলায় আটকে থাকা কাঁটা সরকার বের করে আনলো!

বাঙালি-মুসলমান ধর্মান্ধ, জঙ্গি ও সন্ত্রাসী হয়ে উঠছে। একটা আকায়েদ উল্লাহ তারই প্রমাণ



এর আগে জঙ্গিতৎপরতার কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই ‘নাফিস’ নামের বাংলাদেশের এক যুবক গ্রেফতার হয়েছিলো। তখন আমরা দেখেছি, তার পক্ষে এদেশের মডারেট-মুসলমানরা নানারকম সাফাই গেয়েছে। আসলে, এই শ্রেণীর মুসলমানদের এখন এমন একটা স্বভাব হয়েছে যে, এরা সব ব্যাপারে মিথ্যা বলতে ভালোবাসে। এরা সহজ-সত্যকে স্বীকার করতে চায় না। আর মিথ্যাই এদের জীবনের একমাত্র আদর্শ।

বাংলা সেই দেশ, যার সীমানায় এসে থমকে গিয়েছিল বিশ্বজয়ী বীর আলেকজান্ডারও।


প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশের মধ্য শেকড়ের একটা নিবিঢ় সম্পর্ক যেমন আছে, তেমনি এই সম্পর্কটি বহু শতাব্দি ধরে অম্ল-মধুরও। এই তিনটি রাষ্ট্রের সম্পর্ক অনেকটা ত্রিভূজ প্রেমের মতো। অবিভক্ত ভারতবর্ষ থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত পাকিস্তানের সাথে বাংলার সম্পর্ক কখনোই শান্ত স্রোতস্বিনীর মতো ছিলো না। পাকিস্তানের সাথে এপার বাংলার সম্পর্ক সব সময় বর্ষার উন্মত্ত খরস্রোতা। একমাত্র ধর্মের মিল ছাড়া বাংলার সাথে পাকিস্তানের কোন দিক থেকেই সামঞ্জস্যতা নাই। তাই তাদের হিসেব আলাদা। অপর দিকে একমাত্র ধর্মীয় অমিল ছাড়া ভারতের সাথে এদেশের সর্বদিক দিয়েই মিল রয়েছে। ভৌগলিক কারণে এপার বাংলা ওপার বাংলার মানুষ এক এবং

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর